বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

বৌভাতের খাবার খেয়ে বর-কনেসহ হাসপাতালে ৭০ জন

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত : ১০:৫৮ এএম, ৯ অক্টোবর ২০১৯ বুধবার

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার ময়দানদিঘী ইউপিতে বৌভাত অনুষ্ঠানের খাবার খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন নারী ও শিশুসহ অন্তত ৭০ জন। বর-কনেসহ তাদের পঞ্চগড়ের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর থেকে তাদের হাসপাতালে নেয়া শুরু হয়। খাবারে বিষক্রিয়ায় তারা অসুস্থ হয়েছেন বলে চিকিৎসকরা ধারণা করছেন।

ময়দানদিঘী ইউপির গাইঘাটা এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে মাজেদুল ইসলামের সঙ্গে একই ইউপির কাদেরপুর এলাকার আমিরুল ইসলামের মেয়ে আম্বিয়া খাতুনের বিয়ে হয়। সোমবার মাজেদুলের বাড়িতে বৌভাতের আয়োজন ছিল। দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খাওয়া দাওয়া করেন আমন্ত্রিতরা। এরপর বাড়ি ফিরে রাতে অনেকে অসুস্থ হয়ে পড়েন। ডায়রিয়া,বমি, পেট ব্যথাসহ নানা উপসর্গ নিয়ে রাতভর কষ্ট করেন অর্ধশতাধিক ব্যক্তি। অসুস্থ প্রত্যেকই বৌভাতের খাবার খেয়েছেন। অসুস্থতার মাত্রা বেড়ে গেলে মঙ্গলবার দুপুর থেকে তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা শুরু হয়। সন্ধ্যা পর্যন্ত বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৬০ জন ও পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ৯ জন ভর্তি হয়েছেন। রোগীর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা। বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জায়গার সংকুলান না হওয়ায় প্রতি সিটে দুজন করে রোগী রাখা হয়েছে। বারান্দা ও মেঝেতে বিছানা পেতে চিকিৎসা নিচ্ছেন অনেকে। 

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ওই রোগীদের খোঁজ খবর নিতে যান পঞ্চগড়ের জেলা প্রশাসক সাবিনা ইয়াসমিন। এ সময় এসপি ইউসুফ আলী ও সিভিল সার্জন ডা.নিজাম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। ডিসি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন।

বরের বাবা সিরাজুল ইসলাম বলেন, সোমবার সুন্দরভাবেই বৌভাতের আয়োজন সম্পন্ন হয়। গভীর রাত থেকে এক এক করে অসুস্থ হওয়ার খবর আসতে থাকে। এমনকি আমাদের পরিবারের লোকজন ও বর-কনেসহ সবাই অসুস্থ হয়ে পড়েছে। সবাই এখন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি। জানিনা কিভাবে এ ঘটনা ঘটেছে।

বোদা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.জাহিদ হাসান বলেন, সব রোগীর লক্ষণ দেখে আমরা মনে করছি খাবারে পয়জনিংয়ের কারণে তারা অসুস্থ পড়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।