ব্রেকিং:
সুষ্ঠু ও নকলমুক্ত পরিবেশে জেএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন দিপা হত্যার রহস্য উদঘাটন ট্রেন দুর্ঘটনায় অনেকের দোষ পেয়েছে তদন্ত কমিটি নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরগণের দায়িত্ব গ্রহণ লাগামহীন পেঁয়াজের বাজার ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু ঝুঁকিপূর্ণ সিলেট-আখাউড়া রেলপথ! কোরআন-হাদিসে জুমা’র গুরুত্ব ও তাৎপর্য যুবলীগের বয়সসীমা শিথিলের সম্ভাবনা নেই পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করার উপায় রেসলার ও হলিউড অভিনেতা রক মারা গেছেন! রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্তে অনুমোদন দিলো আইসিসি কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক বরখাস্ত রোহিঙ্গার শপিং ব্যাগে মিলল ৪৯ লাখ টাকার ইয়াবা ‘জঙ্গি দমনে পুলিশের ভূমিকা ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে’ ট্রেন দুর্ঘটনার সাহসী সেই পাঁচ যুবক সন্তানের মা হলেন সেই প্রতিবন্ধী ধর্ষিতা পাল্টে গেছে সরাইল বিশ্বরোড মোড়ের দৃশ্যপট! নিয়মিত হাঁটুন সুস্থ থাকুন! ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে কাতারে দোয়া মাহফিল

শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১১

৫০ ফুট গভীর কূপে ১৮ ঘণ্টা আটকে শিশুর করুণ মৃত্যু

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

৫০ ফুট গভীর কূপে ১৮ ঘণ্টা আটকে থাকার পর পাঁচ বছরের এক কন্যা শিশুর করুণ মৃত্যু হয়েছে। 

সোমবার ভারতের হরিয়ানা প্রদেশের কার্নাল জেলার হরিসিংহ গ্রামে দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

দীর্ঘ সময় ধরে চেষ্টা চালিয়ে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করেছে উদ্ধারকর্মীরা। 

ঘড়াউন্ডা থানার ইন্সপেক্টর শচিন ফোনে জানান, রোববার ঘড়াউন্ডা অঞ্চলের মাঠে খেলার সময় মেয়েটি কূপে পড়ে যায়। তিনি আরো জানান, উদ্ধারের পর মেয়েটিকে দ্রুত কর্নালের সিভিল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, মেয়েটি বাসা থেকে খেলতে বের হওয়ার পর নিখোঁজ হয়। একপর্যায়ে পরিবারের সবাই মেয়েটির খোঁজ শুরু করলেও তাকে না পেয়ে তার পরিবার মেয়েটির কূপে যাওয়ার ব্যাপারে ধারনা করে।  

জেলা প্রশাসন ও পুলিশকে এ ব্যাপারে জানানোর পর সেখানে উদ্ধার অভিযান শুরু হয়। পরবর্তীতে ন্যাশনাল ডিজেস্টার রেসপন্স ফোর্স’কেও এ ব্যাপারে অবগত করা হয় বলে কর্তৃপক্ষ জানায়। 

তার জন্য কূয়ার ভেতরে অক্সিজেন সরবরাহের ব্যবস্থা করা হয়। শিশুটির অবস্থা জানতে কূয়ার ভেতরে ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়। যার মাধ্যমে উদ্ধারকর্মীরারা মেয়েটির পা দেখতে পায়।

ইন্সপেক্টর শচিন জানান, মেয়েটি বেঁচে আছে সেই আশায় তার বাবা-মায়ের কথার একটি রেকর্ড কূপের পাঠানো হয়। বাবা-মায়ের কন্ঠ শুনলে মেয়েটি নিরাপদ বোধ করবে ধারণা ছিল তাদের। তবে, কূপে পড়ে যাওয়া মেয়েটির কোনো ধরণের নড়াচড়া লক্ষ্য করা যায়নি। 

অসাবধানতার কারণে ভারতে প্রায়ই এ ধরণের ঘটনা ঘটে। গত কয়েকদিন আগে ভারতের নাড়ুকাট্টিপাট্টিতে ৮০ ঘণ্টার উদ্ধারকাজ চালানোর পরে তিন বছর বয়সী ছেলে সুজিথ উইলসনের পচা ও ছিন্ন-বিচ্ছিন্ন দেহ টেনে তোলেন সেখানকার উদ্ধারকর্মীরা।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর