ব্রেকিং:
নবীজি (সা.) এর বিদায় হজের ভাষণ দু’দেশের অমীমাংসিত বিষয়গুলোর সমাধান হবে: কাদের মুখ দিয়ে পবিত্র কোরআনের পাতা উল্টিয়ে ৩০ পারা মুখস্থ ঈদে সড়কের পরিস্থিতি যেন গতবারের পুনরাবৃত্তি না হয়: কাদের পাঁচ বছরের মধ্যে দেশে শতভাগ ইন্টারনেট: পলক ১৬ জনকে আসামি করে নুসরাত হত্যাকাণ্ডের অভিযোগপত্র প্রস্তুত বাংলাদেশ প্রেক্ষাপট, আন্ত-অভিযানে স্থলবাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি পার্বত্য অঞ্চলের শিশুরা শিক্ষা বঞ্চিত হবে না: শিক্ষামন্ত্রী স্থগিত ৫ উপজেলায় ভোট ১৮ জুন চাল আমদানি কমাতে শুল্ক বাড়ল দ্বিগুণ তিন বছরে বাংলাদেশের সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা আটটি বেড়ে এখন ১১৪টি পরিবর্তন ছাড়াই ১৫ সদস্যে ভরসা বাংলাদেশের দেশে সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ উৎপাদনের রেকর্ড ৮০ বছরের মধ্যেই সমুদ্রে তলিয়ে যাবে বাংলাদেশ! দেশকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত করেছে সরকার: পাটমন্ত্রী কোরআন অনুবাদ করতে গিয়ে মুসলমান হলেন ধর্ম যাজক ‘জাল’ প্রতিরোধে ১০০০ টাকার নতুন নোট নতুন চমক, দেশে চালু হচ্ছে বেকার ভাতা লক্ষ্যমাত্রার বেশি ধান কিনতে সুপারিশ শেখ হাসিনাকে বরণের অপেক্ষায় জাপান: রাষ্ট্রদূত

শুক্রবার   ২৪ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪২৬   ১৯ রমজান ১৪৪০

৯৮

৪৮ তম শহরে ভ্রমণ কন্যারা

প্রকাশিত: ৩০ জানুয়ারি ২০১৯  

‘নারীর চোখে বাংলাদেশ’ শ্লোগানে স্ক্রুটি চড়ে সারাদেশ বেড়ানো ভ্রমণ কন্যারা মঙ্গলবার দেশের ৪৮তম শহর হিসেবে পাবনায় পৌঁছেছে।

ট্রাভেলটস অব বাংলাদেশ নামের সংগঠনের ব্যানারে ভ্রমণ কন্যারা হচ্ছেন, ডা. সাকিয়া হক, ডা. মানসী সাহা, সিলভী রহমান ও শামসুন নাহার সুমা। এদের সহযোগীতা করছেন পাবনার মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসলিমা খাতুনসহ বেশ কয়েকজন।

তারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাঝে নারীর ক্ষমতায়ন, বয়ো:সন্ধিকালীন সমস্যা ও সমাধান, নিজেকে সুরক্ষার কৌশল, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, পর্যটন কেন্দ্রগুলোর ইতিহাস ঐতিহ্য তুলে ধরে আলোচনা ও ভিডিও প্রদর্শন করছেন। তাদের উপস্থিতি ও নারী জাগরণের বার্তা নিয়ে জেলায় জেলায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা শুভেচ্ছা জানান।

ভ্রমণ কন্যারা পাবনা ডিসি মো. জসিম উদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাত করে তাদের আগমণ বার্তা পৌঁছে দেন। ডিসি তাদের উদ্যোগকে অভিনন্দন ও সার্বিক সহযোগিতা করেন। এরপর ভ্রমণ কন্যারা পাবনা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। প্রেস ক্লাবের নেতারা তাদের অভিনন্দন জানান।

ভ্রমণ কন্যা ডা. মানসী সাহা জানান- আমরা দুই জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং দুইজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেখা পড়া শেষ করেছি। এই কার্যক্রম ২৭ নভেম্বর ২০১৬ সালে শুরু করেছি। আমাদের গ্রুপে এখন সদস্য সংখ্যা ২৭ হাজার। এ পর্যন্ত ৪৮ জেলা ভ্রমণ করলাম। পর্যাক্রমে সব জেলা শেষ করব।

ভ্রমণ কন্যা ডা. সাকিয়া হক বলেন, আমাদের তেমন কোন সমস্যা হয় না। হালকা কিছু সমালোচনা, ইভটিজিং, আর চোখে তাকানো ছাড়া তেমন কোন সমস্যা হয় না। তবে সহযোগীতা ব্যাপকভাবে পাচ্ছি। বাংলাদেশ একটি সুন্দর ও সম্ভাবনাময় দেশ। আমরা আশাবাদী এদেশের নারী জাগরণ ও দ্রুত উন্নয়ন নিয়ে।

সিলভী রহমান বলেন, আমরা বাংলাদেশকে নিয়ে একটি নতুন পর্যটনের স্বপ্ন দেখি। যেখানে মেয়েরা এবং বিদেশিরা স্বাচ্ছন্দে বাংলাদের প্রকৃতি উপভোগ করবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া