ব্রেকিং:
আরো কটা দিন বাঁচার স্বপ্ন দেখছে মাহাবুব ট্রেন দুর্ঘটনায় চালক, সহকারী ও গার্ড দায়ী শ্রেষ্ঠ শিক্ষক সম্মাননা প্রদান প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ অবশেষে ময়নাতদন্ত ছাড়াই আসমার লাশ ফিরে পেল বাবা-মা ভুয়া সাংবাদিক পরিচয়ে মাদক ব্যবসা, অতঃপর... স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিদর্শিকার সেচ্ছাচারিতা প্রতিটি ফার্মেসি ও ক্লিনিকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে মরদেহ নিয়ে নিহতের পরিবার ও পুলিশের মধ্যে টানাপোড়া ভ্রাম্যমান আদালতে ৬ জুয়াড়ির জরিমানা পিকআপের ধাক্কায় অটো যাত্রীর করুণ মৃত্যু মাদক বিরোধী অভিযানে আটক ৬ নারীর এই তিন রোগে সতর্ক হতে হবে এখনই পঞ্চগড় থেকে স্পষ্ট দেখা দিচ্ছে কাঞ্চনজঙ্ঘা পাত্রীকে সোনা কেনার টাকা দেবে সরকার বাংলাদেশি রাজীবের সততায় স্যালুট জানাল সিঙ্গাপুর পুলিশ আজ থেকে শুরু ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন স্পষ্ট করে লিখতে চিকিৎসকদের নির্দেশ পরীক্ষার হলে উত্তরপত্র পৌঁছে দেন শিক্ষক! রোহিঙ্গা নির্যাতন: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

২১৩

৪৮ তম শহরে ভ্রমণ কন্যারা

প্রকাশিত: ৩০ জানুয়ারি ২০১৯  

‘নারীর চোখে বাংলাদেশ’ শ্লোগানে স্ক্রুটি চড়ে সারাদেশ বেড়ানো ভ্রমণ কন্যারা মঙ্গলবার দেশের ৪৮তম শহর হিসেবে পাবনায় পৌঁছেছে।

ট্রাভেলটস অব বাংলাদেশ নামের সংগঠনের ব্যানারে ভ্রমণ কন্যারা হচ্ছেন, ডা. সাকিয়া হক, ডা. মানসী সাহা, সিলভী রহমান ও শামসুন নাহার সুমা। এদের সহযোগীতা করছেন পাবনার মেয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তাসলিমা খাতুনসহ বেশ কয়েকজন।

তারা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের মাঝে নারীর ক্ষমতায়ন, বয়ো:সন্ধিকালীন সমস্যা ও সমাধান, নিজেকে সুরক্ষার কৌশল, মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস, পর্যটন কেন্দ্রগুলোর ইতিহাস ঐতিহ্য তুলে ধরে আলোচনা ও ভিডিও প্রদর্শন করছেন। তাদের উপস্থিতি ও নারী জাগরণের বার্তা নিয়ে জেলায় জেলায় ঘুরে বেড়ানোর জন্য শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা শুভেচ্ছা জানান।

ভ্রমণ কন্যারা পাবনা ডিসি মো. জসিম উদ্দিনের সঙ্গে সাক্ষাত করে তাদের আগমণ বার্তা পৌঁছে দেন। ডিসি তাদের উদ্যোগকে অভিনন্দন ও সার্বিক সহযোগিতা করেন। এরপর ভ্রমণ কন্যারা পাবনা প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। প্রেস ক্লাবের নেতারা তাদের অভিনন্দন জানান।

ভ্রমণ কন্যা ডা. মানসী সাহা জানান- আমরা দুই জন ঢাকা মেডিকেল কলেজ এবং দুইজন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লেখা পড়া শেষ করেছি। এই কার্যক্রম ২৭ নভেম্বর ২০১৬ সালে শুরু করেছি। আমাদের গ্রুপে এখন সদস্য সংখ্যা ২৭ হাজার। এ পর্যন্ত ৪৮ জেলা ভ্রমণ করলাম। পর্যাক্রমে সব জেলা শেষ করব।

ভ্রমণ কন্যা ডা. সাকিয়া হক বলেন, আমাদের তেমন কোন সমস্যা হয় না। হালকা কিছু সমালোচনা, ইভটিজিং, আর চোখে তাকানো ছাড়া তেমন কোন সমস্যা হয় না। তবে সহযোগীতা ব্যাপকভাবে পাচ্ছি। বাংলাদেশ একটি সুন্দর ও সম্ভাবনাময় দেশ। আমরা আশাবাদী এদেশের নারী জাগরণ ও দ্রুত উন্নয়ন নিয়ে।

সিলভী রহমান বলেন, আমরা বাংলাদেশকে নিয়ে একটি নতুন পর্যটনের স্বপ্ন দেখি। যেখানে মেয়েরা এবং বিদেশিরা স্বাচ্ছন্দে বাংলাদের প্রকৃতি উপভোগ করবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া