ব্রেকিং:
১ সপ্তাহেও সন্ধান মেলেনি নিখোঁজ ব্যবসায়ীর শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ তিতাস নদীর উপর নব-নির্মিত সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া আওয়ামী লীগ সম্পাদকের মামলায় চাঞ্চল্য সাধক কবি মনোমোহন দত্ত’র ১৪২ তম জন্মউৎসব আলহাজ্ব এড. হুমায়ুন কবীরের স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগ দেওলিয়া হয়নি, দেওলিয়া হলে বিএনপি হয়েছে! উদ্বোধনের অপেক্ষায় নবীনগর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন বিপুল উৎসাহ উদ্দিপনায় স্টুডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভাষা সৈনিক মুহাম্মদ মুসাকে স্মরণ উৎসবমুখর পরিবেশে স্কুল কেবিনেট নির্বাচন অনুষ্ঠিত করোনাভাইরাস নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সতর্কতা ছোট বড় সবাই ঝুঁকিতে! করোনা ভাইরাস এড়ানোর উপায় রমজানে তেল-চিনি সংকটের সম্ভাবনা নেই: বাণিজ্যমন্ত্রী লুঙ্গি পরার যত উপকারিতা ইসলামী শিক্ষার গুরুত্ব তোপের মুখে পর্দা কেলেঙ্কারি মামলার আসামি! অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের উদ্যোগে গাল্লিবয়’র নতুন গান গণধর্ষণের পর ফেসবুক লাইভে এসে ধর্ষকদের বিকৃত উল্লাস! ‘নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার পথ খুঁজছে বিএনপি’

রোববার   ২৬ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৩ ১৪২৬   ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

১১১০

৩ এপ্রিল পবিত্র শবে মেরাজ

প্রকাশিত: ৯ মার্চ ২০১৯  

দেশের আকাশে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রজব মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। এর ফলে আগামী শনিবার (৯ মার্চ) থেকে ১৪৪০ হিজরির রজব মাস গণনা শুরু হবে। সেই হিসেবে আগামী ৩ এপ্রিল (২৬ রজব, বুধবার) দিবাগত রাতে পবিত্র শবে মেরাজ পালিত হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির বৈঠক থেকে এ সিদ্ধান্ত জানানো হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন বায়তুল মুকাররম সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ও জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ।

এছাড়া বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র রজব মাসের চাঁদ দেখা গেলে তা জানানোর জন্য অনুরোধ জানিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহর নির্দেশে হজরত জিবরাইল (আ.)-কে সঙ্গে নিয়ে মহানবী হজরত মুহাম্মাদ (সা.) ঊর্ধ্বাকাশে গমন করেন।
  
৬২০ খ্রিস্টাব্দে ২৬ রজব রাতে মহানবী (সা.) এর সঙ্গে সরাসরি আল্লাহর সান্নিধ্য লাভের অলৌকিক এ ঘটনা ঘটে।

রফরফ নামক বিশেষ বাহনে করে ৭০ হাজার নূরের পর্দা পেরিয়ে আরশে আজিমে মহান আল্লাহ তায়ালার সান্নিধ্য লাভ করেন। এরপর উম্মতের জন্য পাঁচওয়াক্ত নামাজের হুকুম নিয়ে ফিরে আসেন পৃথিবীতে।

একই সময়ে মহানবী (সা.) সৃষ্টি জগতের সবকিছুর রহস্য অবলোকন করেন। আরবি ভাষায় মেরাজ অর্থ হচ্ছে সিঁড়ি। আর ফার্সি ভাষায় এর অর্থ ঊর্ধ্ব জগতে আরোহণ।

মেরাজ সম্পর্কে পবিত্র কোরআনের সূরা বনিইসরাইলে বলা হয়েছে (আয়াত ১) : 

سُبْحَانَ الَّذِي أَسْرَى بِعَبْدِهِ لَيْلاً مِّنَ الْمَسْجِدِ الْحَرَامِ إِلَى الْمَسْجِدِ الأَقْصَى الَّذِي بَارَكْنَا حَوْلَهُ لِنُرِيَهُ مِنْ آيَاتِنَا إِنَّهُ هُوَ السَّمِيعُ البَصِيرُ

‘তিনি পরম পবিত্র ও মহিমাময়, যিনি রাতে স্বীয় বান্দাকে মসজিদুল হারাম থেকে মসজিদুল আকসা পর্যন্ত নিয়ে গেলেন। যার চারদিকে আমি বরকতমণ্ডিত করেছি। যেন আমি আমার কিছু নিদর্শন দেখাই। নিশ্চয়ই তিনি সর্বশ্রোতা ও সর্বদ্রষ্টা।’ (সূরা: বনিইসরাইল, আয়াত: ১)।

মেরাজের ঘটনাকে মহানবী (সা.) এর আধ্যাত্মিক সফর হিসেবে মনে করেন ওলামায়ে কেরাম। এদিন বিশ্বের মুসলমানরা বিশেষ নামাজ, দোয়া ও ইবাদতের মাধ্যমে দিনটি পালন করেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর