ব্রেকিং:
গৃহবধূকে উত্ত্যক্ত করার দায়ে যুবকের কারাদণ্ড গাছে-গাছে সৌরভ ছড়াচ্ছে আমের মুকুল মাদ্রাসার হোস্টেলে ছাত্রীর ঝুলন্ত লাশ! কাতারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার কৃতিত্বপূর্ণ সাফল্য অর্জন চাঞ্চল্যকর রকেট হত্যার ঘটনায় প্রতিবাদ সভা প্রতিবন্ধীদের ভাতা নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ চোরাচালান প্রতিরোধ ও আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত বাবাকে পেটানোর প্রতিশোধ নিতে হত্যাকাণ্ড! সোনা রোদে চোখ মেলেছে সূর্যমুখী এয়ার ফ্রেশনার ব্যবহারে বাড়ছে ক্যান্সারের ঝুঁকি! অপরাধ করে কেউ পার পাবে না: ওবায়দুল কাদের পুরান ঢাকায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান, ২০ কোটি টাকা উদ্ধার দেশীয় বেনসন-গোল্ডলিফে মিলল নিকোটিনের চেয়েও ‘মারাত্মক’ উপাদান ক্লাসে ঢুকে নারী শিক্ষকের হাত ভাঙলেন দম্পতি হরিণের চামড়ায় দাঁড়িয়ে সৌম্যের আশীর্বাদ, পড়বেন শাস্তির মুখে! মাদকিবরোধী অভিযানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলা, গাড়ি ভাঙচুর সুইসাইড নোটে কী লিখেছিলেন সালমান শাহ ভালোবেসে বিয়ে করে কারাগারে তরুণ-তরুণী বিশ্বজুড়ে মহামারি রূপ নিচ্ছে প্রাণঘাতী করোনা ধর্ষণে জন্ম: নবজাতককে নিয়ে থানায় কিশোরী
  • মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ১৩ ১৪২৬

  • || ০১ রজব ১৪৪১

১২০

হলি আর্টিজান মামলায় ১০০ জনের সাক্ষ্য সমাপ্ত

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৮ আগস্ট ২০১৯  

রাজধানী গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলার ঘটনায় করা মামলা সাক্ষ্য দিয়েছেন ইউনাইটেড হাসপাতালের দুই চিকিৎসক ও এক পুলিশ পরিদর্শক। এ নিয়ে ২১১ জনের মধ্যে ১০০ জনের সাক্ষ্য শেষ হয়েছে। সাক্ষীরা হলেন- চিকিৎসক সাদিয়া ইসলাম স্বর্ণা, নাদিম মহবুব ও পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজমের পরিদর্শক সফিউদ্দিন শেখ।

মঙ্গলবার ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মজিবুর রহমানের আদালতে তারা সাক্ষ্য দেন। এ সময় তাদের জেরা করেন আসামি পক্ষের আইনজীবীরা। আদালত পরবর্তী সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য ২৯ আগস্ট দিন ধার্য করেন। ট্রাইব্যুনালের পেশকার রুহুল আমিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজানে হামলা চালিয়ে বিদেশি নাগরিকসহ ২০ জনকে হত্যা করে জঙ্গিরা। তাদের গুলিতে দুই পুলিশ কর্মকর্তা নিহত হন। পরে অভিযানে পাঁচ জঙ্গি নিহত হয়। ওই ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গুলশান থানায় একটি মামলা করে পুলিশ।

২০১৮ সালের ২৬ নভেম্বর আট আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের মধ্য দিয়ে দেশের ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়াবহ জঙ্গি হামলার বিচার আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়।

মামলার আসামিরা হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান, হাদিসুর রহমান সাগর, শরিফুল ইসলাম ও মামুনুর রশিদ। এ ছাড়া বিভিন্ন অভিযানে ১৩ জন নিহত হওয়ায় তাদের অব্যাহতির সুপারিশ করেন তদন্ত কর্মকর্তা। পরে মামলা থেকে তাদের অব্যাহতি দেয়া হয়।

হলি আর্টিজানে সেনাবাহিনীর অপারেশন থান্ডারবোল্টে নিহত পাঁচ হামলাকারী হলেন- রোহান ইবনে ইমতিয়াজ, মীর সামেহ মোবাশ্বের, নিবরাস ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ওরফে উজ্জ্বল ও খায়রুল ইসলাম ওরফে পায়েল।

এ ছাড়া এ মামলায় আসামিদের মধ্যে বিভিন্ন ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযানে নিহত আটজন হলেন- তামীম আহমেদ চৌধুরী, নুরুল ইসলাম মারজান, তানভীর কাদেরী, মেজর (অবসরপ্রাপ্ত) জাহিদুল ইসলাম ওরফে মুরাদ, রায়হান কবির তারেক, সারোয়ান জাহান মানিক, বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট ও মিজানুর রহমান ওরফে ছোট মিজান।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আদালত বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর