ব্রেকিং:
তিন বছরে বাংলাদেশের সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা আটটি বেড়ে এখন ১১৪টি পরিবর্তন ছাড়াই ১৫ সদস্যে ভরসা বাংলাদেশের দেশে সর্বোচ্চ বিদ্যুৎ উৎপাদনের রেকর্ড ৮০ বছরের মধ্যেই সমুদ্রে তলিয়ে যাবে বাংলাদেশ! দেশকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে পরিণত করেছে সরকার: পাটমন্ত্রী কোরআন অনুবাদ করতে গিয়ে মুসলমান হলেন ধর্ম যাজক ‘জাল’ প্রতিরোধে ১০০০ টাকার নতুন নোট নতুন চমক, দেশে চালু হচ্ছে বেকার ভাতা লক্ষ্যমাত্রার বেশি ধান কিনতে সুপারিশ শেখ হাসিনাকে বরণের অপেক্ষায় জাপান: রাষ্ট্রদূত নিরাপদ ঈদযাত্রায় যাত্রী কল্যাণ সমিতির ২০ প্রস্তাব চাল আমদানি নিয়ন্ত্রণ করা হবে: অর্থমন্ত্রী সরকারি চাকরিজীবীদের বেতন-ভাতা ২৮ মে কবুতর দিয়ে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় ইয়াবা পাচার বাড়ল মোবাইল ব‌্যাংকিংয়ে লেনদেন সীমা শিগগিরই যোগ্য সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত হবে: শিক্ষামন্ত্রী অধিক উৎপাদনের লক্ষ্যে একীভূত হচ্ছে ঘোড়াশাল ও পলাশ সার কারখানা শিক্ষক নিবন্ধনের প্রিলিতে পাস ১ লাখ ৫২ হাজার দেশের প্রথম মহিলা কারাগারে স্থানান্তরিত হচ্ছেন খালেদা জিয়া! ঈদে ঘরমুখী যাত্রীদের ভোগান্তি কমবে: কাদের

বৃহস্পতিবার   ২৩ মে ২০১৯   জ্যৈষ্ঠ ৮ ১৪২৬   ১৮ রমজান ১৪৪০

সর্বশেষ:
আজ থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সংখ্যা জরিপের ফল আজ জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় সক্ষম হয়েছি: প্রধানমন্ত্রী তরুণীকে খুশি করতে শিক্ষা উপমন্ত্রী সেজে ধরা যুবক সারেংয়ের দক্ষতায় অল্পের জন্য বাঁচলো এমভি গ্লোরি অব শ্রীনগর-২ লঞ্চের ২৫০ যাত্রীর প্রাণ।
১১

সানগ্লাসে হারাতে পারেন চোখ, যদি এগুলো জানা না থাকে...

প্রকাশিত: ১২ মে ২০১৯  

মানুষের ব্যবহার্য কিছু জিনিসের মধ্যে প্রয়োজনীয় একটি হলো সানগ্লাস। তাপমাত্রার পারদ, ধুলাবালি থেকে পরিত্রাণ ও স্টাইলের জন্য এই জিনিসটি থাকা চায়ই। আবার অনেকেই আছেন যারা এসব কারণ ছাড়াও সানগ্লাস পরে ঘুরে বেড়ান। মোদ্দাকথা সানগ্লাস অতীব গুরুত্বপূর্ণ আবার অনেকের কাছে অর্থহীন ছাড়া কিছুই নয়। কারণ এমনও কিছু আছেন যারা সানগ্লাস ব্যবহার করতে পছন্দই করেন না।

যাইহোক, যারা সানগ্লাসকে নিজেদের পার্থিব জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জিনিস মনে করেন, আজ তাদের নিয়েই আমাদের আলোচনা। তাছাড়া, যত দিন যাচ্ছে ততই বাড়ছে তাপমাত্রার পারদ! আর এই পারদ থেকে নিজেকে চোখকে সানগ্লাসের প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। আসলেই রোদ থেকে চোখ বাঁচাতে সানগ্লাসের কোনো বিকল্প নেই।


 

 

কেন ব্যবহার করবেন সানগ্লাস? 

১. সানগ্লাস অনেকেই অনেক কাজে ব্যবহার করে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এটা গরম থেকে খানিকটা চোখকে মুক্তি দিতে ব্যবহার করা হয়।

২. পোকা-মাকর, রাস্তার ধুলোবালি ইত্যাদি থেকে বাঁচতেও সানগ্লাস ব্যবহার করা হয়।

৩. সানগ্লাস আমাদের সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মির কুপ্রভাব থেকেও রক্ষা করে।

৪. রাতের বেলা ড্রাইভিং করার সময় উল্টো পাশ থেকে আসা গাড়ির আলোতে পথ দেখতেও সানগ্লাস ব্যবহৃত হয়।
 
৫. অনেকেই শুধু মাত্র ফ্যাশনের কাজে সানগ্লাস ব্যবহার করে থাকেন।


 

 

কোন ধরনের সানগ্লাস ব্যবহার করবেন?

আপনি আপনার উপকারের জন্যই মূলত সানগ্লাস ব্যবহার করছেন। কখনো কি ভেবে দেখেছেন, এই সানগ্লাস উপকার নয় বরং আপনার কালও হতে পারে? একটু গুছিয়ে বলি, ধরুন আপনি আপনার চোখকে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে বাঁচাতে সানগ্লাস ব্যবহার করছেন, তবে এমন কোনো সানগ্লাস আপনি ব্যবহার করছেন যাতে আপনার চোখই নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।

কীভাবে সেটা? 

সস্তা সানগ্লাস ব্যবহারের ফলে এমনটা হওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি থাকে। কারণ, সস্তার সানগ্লাসে ব্যবহৃত নিম্ন মানের রঙিন প্লাস্টিকে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি ঠেকানোর কোনো ক্ষমতা নেই। উল্টো তা চোখের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। দুর্বল হয়ে পড়তে পারে আপনার/আমার দৃষ্টিশক্তি। শুধু দুর্বলই নয় একসময় পুরোপুরি হারাতে পারে আপনার চোখ।


 

 

এই প্রসঙ্গে চক্ষু বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন, চলুন দেখে আসা যাক-

বিশেষজ্ঞদের মতে, সস্তায় চোখ বাঁচাতে গিয়ে উল্টে আরো ভয়ংকর বিপদ ডেকে আনতে পারে সানগ্লাস ব্যবহারকারীরা। এর ফলে অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে। যেমন-

১) নিয়মিত সস্তা সানগ্লাস ব্যবহারের ফলে অকালেই চোখে ছানি পড়ে যেতে পারে। এর ফলে মাথা ব্যথা থেকে শুরু করে আরো বহু ধরনের রোগ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই সস্তা সানগ্লাস কেনার আগে ভেবে দেখা প্রয়োজন।

২) সস্তা সানগ্লাস ব্যবহারের ফলে শুকিয়ে যেতে পারে চোখের কর্নিয়া। এতে করে উপকারের চেয়ে অপকারের পরিমাণ আরো বেশি বেড়ে যাবে।

৩) সস্তা সানগ্লাস নিয়মিত ব্যবহারের ফলে চোখের দৃষ্টিশক্তি অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যেতে পারে, এর ফলে দূরদৃষ্টি বা ক্ষীণদৃষ্টির সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৪) সস্তা সানগ্লাস নিয়মিত ব্যবহারের ফলে ‘আইলিড’ ক্যান্সারের ঝুঁকি বহুগুণ বেড়ে যায়। ফলে অল্প টাকায় মরণব্যাধি রোগে আক্রান্ত হতে পারে এই ধরনের ব্যবহারকারীরা।

৫) সস্তা সানগ্লাস নিয়মিত ব্যবহারের ফলে ‘রিফ্রাক্টিভ এরর’ বা চোখের প্রতিসারক ত্রুটি বহুগুণ বেড়ে যায়। এই সমস্যার ফলে দৃষ্টিশক্তি ঝাপসা হয়ে যেতে পারে। এতে করে সামনের পুরো সাবজেক্ট ঘোলা দেখা যাবে। এমনকি রাতকানা রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে। 

এবার ভেবে দেখুন কোন ধরনের সানগ্লাস আপনি ব্যবহার করবেন? তাই ডেইলি বাংলাদেশের পাঠকদের বলছি, সস্তা সানগ্লাস কেনা বা ব্যবহারে থেকে দূরে থাকুন। এতে করে সাময়িক প্রশান্তির জন্য বড় ধরনের বিপদ পেয়ে বসতে পারে আপনাকে। মনে রাখবেন, শুধুমাত্র পলিকার্বোনেট লেন্সই সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মি আটকাতে পারে। তাই সানগ্লাস কেনার ক্ষেত্রে চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া সবচেয়ে শ্রেয়। যদি তাতে অপারগ হন, তাহলে অবশ্য একটু দামী সানগ্লাস ব্যবহারের চেষ্টা করবেন। তাতে করে বেঁচে যাবে আপনি ও আপনার চোখ।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া