ব্রেকিং:
আগে থেকেই প্রস্তুত ছিলাম বলেই বাংলাদেশ ভালো আছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী শর্ত সাপেক্ষে হোটেল ও বেকারি খোলা থাকবে, জানালো ডিএমপি স্পেনে মৃত্যুর মিছিলে আরো ৮৩২ জন করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ফিরলেন জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি বাংলাদেশে তৈরি হল প্রথম ভেন্টিলেটর যন্ত্র ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানিয়ে পথচারীদের বাড়ি ফেরাচ্ছে সেনাবাহিনী চীনে সুস্থ হওয়া ৩ থেকে ১০ শতাংশ ফের আক্রান্ত সংসদ টিভিতে মাধ্যমিকের ক্লাস শুরু করোনাভাইরাস কীভাবে ছড়াচ্ছে, জানা নেই বিজ্ঞানীদেরও! অনলাইন কাঁপাচ্ছে ‘বড় লোকের বেটি’ ‘হক্কলে শুধু মুখোশ আর ওষধ দেয়, খাওন দেয় না’ দেশে নতুন করে কেউ করোনায় আক্রান্ত হননি কোয়ারেন্টাইন না মানায় ২৫ জনকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা বাঞ্ছারামপুরে করোনা রোধে জীবাণুনাশক স্প্রে হোম কোয়ারেন্টাইনে না থাকায় দুবাই ফেরত যুবককে জরিমানা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করায় কারাদন্ড ও অর্থদন্ড প্রদান করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুবসমাজের সচেতনতা মূলক উদ্যোগ বিষ প্রয়োগে ৩০ লক্ষ টাকার মাছ নিধন নাসিরনগরে ২ ভাইয়ের ঝগড়ায় প্রাণ গেল শিশুর নবীনগরে পিপিই , হ্যান্ডগ্লাপস, মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিতরণ
  • রোববার   ২৯ মার্চ ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৫ ১৪২৬

  • || ০৪ শা'বান ১৪৪১

১১

সরাইলে করোনা প্রতিরোধে ইউএনও’র ব্যাপক উদ্যোগ

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৬ মার্চ ২০২০  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইলে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এ এস এম মোসা। বুধবার (২৫ মার্চ) করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ ও মোকাবেলায় উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভায় বক্তব্যে তিনি এ ব্যাপারে নানা উদ্যোগের কথা জানান। এসময় এ পরিস্থিতিতে এখানকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে ইউএনও সভায় উপস্থিত সর্বস্তরের জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনের সকল বিভাগের কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানান। উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর। সভায় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তা ডাঃ মো. নোমান মিয়া, সরাইল থানার অফিসার ইনচার্জ সাহাদাত হোসেন টিটো, উপজেলা পরিষদের দুই ভাইস চেয়ারম্যান ও নয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ এখানকার সরকারি দফতরের সকল কর্মকর্তারা।

ইউএনও তাঁর বক্তব্যে বলেন, করোনা প্রতিরোধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে কার্যকরী সকল ব্যবস্থাই ইতোমধ্যে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ বিভাগও তাদের কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। সকল মানুষকে আপাদত ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। নিম্ন আয়ের মানুষদের কথা বিবেচনায় রেখে এনজিও কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত ঋণ আদায় কার্যক্রম স্থগিত রাখতে বলা হয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারে ওষুধের দোকান, মুদি দোকান, চাল-আটা ও সবজি দোকান ব্যতিত সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আরো বলেন, আমরা সার্বক্ষণিক বাজার মনিটরিং কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। সম্প্রতি যারা বিদেশ থেকে এসেছেন এবং তাদের সংস্পর্শে যারা রয়েছেন তাদের ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিন নিশ্চিতকরণ করেছি। সেই সঙ্গে জনসমাগম, সভা, মিছিল, মিটিং, সেমিনার, রাজনৈতিক ও সামাজিক অনুষ্ঠান ইত্যাদি বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছি। এমনকি কোনো প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন মোড় ও চায়ের স্টলে আড্ডা, বিনোদন কেন্দ্রে ঘোরাঘুরি ও কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠান সবকিছু বন্ধ থাকার কথাও বলা হয়েছে।

এক্ষেত্রে কেও যদি অনিয়ম করে, তাহলে তাঁর কন্টাক নম্বরে ফোন করে জানানোর জন্যও সবাইকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে ইউএনও জানান।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর