ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • মঙ্গলবার   ০৭ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৩ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলকদ ১৪৪১

১৩২

সম্মান শুধু শরীরে সীমাবদ্ধ নয়: মিথিলা

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ৬ নভেম্বর ২০১৯  

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রাফিয়াথ রশীদ মিথিলা ও নাট্য নির্মাতা ফাহমির কয়েকটি অন্তরঙ্গ ছবি ছড়িয়ে পড়েছে। এ নিয়ে ফেসবুকে হইচই লেগেই আছে। সোমবার ‘টেক বিনোদন’নামে একটি ফেসবুক গ্রুপ থেকে তাদের দুটি ছবি ছাড়া হয়।

এ ঘটনার পরই সোশ্যাল মিডিয়া ছাড়াও সর্বত্র বিনোদন প্রেমীদের মনে উঁকি দিচ্ছে নানা প্রশ্ন। অনেকেই ফাহমি ও মিথিলার বক্তব্য জানতে চেয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে মিথিলার সঙ্গে কয়েকবার যোগাযোগের চেষ্টাও করা হয়। তবে তেমন কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।  

তবে মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে মিথিলা তার ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে একটি পোষ্ট দেন। এতে তিনি লেখেন, কী ঘটেছে তার কোনও ব্যাখ্যা দিতে আসিনি। বরং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আমার কিছু ব্যক্তিগত ছবি নিয়ে যা হয়েছে সেই সম্পর্কে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করতে চাই। এসব ছবির কিছু বাস্তব, কিছু মনগড়া। আমার সুনাম ক্ষুণ্ন করতে কিছু অপরাধী প্রতিহিংসাপরায়ণ হয়ে এগুলো অনলাইনে ছেড়ে দিয়েছে।

২০১৭-১৮ সালে ফাহমির সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক থাকাকালে তোলা কিছু ছবি ফাঁস হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, তার (ফাহমি) ফেসবুক প্রোফাইল হ্যাক হয়েছিল। তখনই অপরাধীরা খারাপ উদ্দেশ্যে ব্যবহারের জন্য এগুলো খুঁজে নিয়েছে। এখানে  ডেটিং শব্দটির ওপর জোর দিতে চাই, যার অর্থ আমরা একটি সম্পর্কে ছিলাম। সহজভাবে বললে দুটি মানুষ একে অপরের সঙ্গে জড়ালে ঘনিষ্ঠ মুহূর্ত কাটায়, ছবি তোলে। প্রযুক্তির যুগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা এগুলো ভাগ করে নেয়। তবে নিজের গোপনীয়তা রক্ষা করতে না পারার দায় আমারই।

এছাড়া ব্যক্তিগত ছবি ফাঁস হওয়া নিয়ে মিথিলা যে মোটেও লজ্জিত নন, তা স্ট্যাটাসেই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। লিখেছেন, আমার লজ্জা লাগছে এই ভেবে, দেশের কিছু কুৎসিত লোক আমার ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ইচ্ছেমতো পোস্ট, শেয়ার ও ব্যবহারের সুযোগকে কাজে লাগিয়েছে। আমার খ্যাতি ও ভাবমূর্তিকে অসম্মান করে তারা সাবস্ক্রিপশন বাড়াচ্ছে ও নানান খবর ছড়িয়ে দিচ্ছে। আমাকে কার্যত ধর্ষণ করা হচ্ছে। আমার লজ্জা হয় সেইসব মিডিয়ার জন্য, বিশেষ করে কয়েকটি নিউজ পোর্টাল আমার অনুমতি ছাড়াই আমাকে উদ্ধৃত করে এই খবর প্রকাশ করেছে। অথচ আমি এ নিয়ে কখনোই কথা বলিনি বা কোনও বক্তব্য দেইনি। ঘরে-বাইরে, ভার্চুয়াল জগতসহ সর্বত্র যেকোনও জায়গায় নারীদের যৌন হেনস্তা করা হলে একইভাবে লজ্জিত ও ক্ষিপ্ত হই।

স্ট্যাটাসে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করে মিথিলা লিখেছেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমার সম্মান ও মর্যাদা শুধু আমার শরীর বা অন্তর্বাসে কিংবা ব্যক্তিগত ছবির মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। জীবনে কঠোর পরিশ্রম, সৃজনশীলতা ও শিক্ষার মাধ্যমে সব অর্জন করেছি। আমার অতীতের ব্যক্তিগত মুহূর্তগুলো চুরি করে কিছু অপরাধীর কুকর্মের কারণে এসব ভেঙে যাওয়ার মতো ঠুনকো নয়।

গত ২৪ ঘণ্টা ফাঁস হওয়া ছবি নিয়ে মুখ না খোলা প্রসঙ্গে মিথিলা জানান, তার আশা ছিল, এর মাধ্যমে আরো শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসতে পারবেন। তবে যেসব ফেসবুক গ্রুপ, পেজ ও অনলাইন পোর্টাল অনুমতি ছাড়া ফাঁস হওয়া ছবিসহ খবর প্রকাশ করেছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনি পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়েছেন।

তিনি সাইবার অপরাধ বিভাগে অভিযোগ জানানোর কথাও বলেছেন। লিখেছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহায়তায় যারা আমার মান-সম্মান নিয়ে খেলেছে সেই দুষ্কৃতিকারীদের চিহ্নিত করে ছাড়বো। শপথ করছি, নিজের জন্য এবং হ্যাকার ও সাইবার অপরাধীদের শিকার হওয়া সবার জন্য লড়বো।

সেই স্ট্যাটাসে অবশ্য দুঃসময়ে পাশে থাকার জন্য পরিবার, বন্ধু ও সহকর্মীদের ধন্যবাদ দিয়েছেন মিথিলা। পরে অবশ্য রাত সাড়ে ১২টার দিকে স্ট্যাটাসটি মুছে ফেলা হয়।

প্রসঙ্গত, ভালোবেসে তাহসানের সঙ্গে ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট বিয়ের পিঁড়িতে বসেন মিথিলা। তাদের একমাত্র সন্তান আইরা তেহরীম খান। পরে দুজনের সম্পর্কে ফাঁটল দেখা দিলে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি বিচ্ছেদ হয়।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া