ব্রেকিং:
দুর্ধর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আটক সাংবাদিকতায় দেশ সেরা অ্যাওয়ার্ড পেলেন মিশু জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত বিষ প্রয়োগে সর্বশান্ত মৎস্য চাষী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সংবর্ধনা পাঁচ দফা দাবিতে ফারিয়ার মানববন্ধন মসজিদের দেয়ালে ফাটল, আতঙ্কে মুসল্লিরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক উদ্ধার মাদক বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত মাদকসেবীর হুমকিতে স্কুলে যাওয়া বন্ধ শিক্ষার্থীর ফুটপাত দখলমুক্ত করলেন ইউএনও শারীরিক সক্ষম হলেই রক্তদান করবে শিক্ষার্থীরা একই তেলে বার বার রান্না ক্যান্সার ও হৃদরোগের কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ তথ্যমন্ত্রীর মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী নারীর মনে জায়গা পাওয়ার উপায় পানিতে পড়া ফোন যেভাবে দ্রুত সারিয়ে তুলবেন যে কারণে ‘সুদ’ হারাম উদ্বোধন হলো শেখ কামাল ক্লাব কাপ আওয়ামী লীগের সম্মেলন মানেই নতুন মুখ: কাদের

সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

১৪

সব সক্ষম ব্যক্তির কর্মসংস্থান হবে: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

অর্থনীতি এগিয়ে যাচ্ছে উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে দেশের সব সক্ষম ব্যক্তির কর্মসংস্থান হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ বিশ্বের উন্নয়নশীল প্রথম ২০টি দেশের তালিকায় চলে আসবে বলে আশা করছি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষে শনিবার জাতীয় জাদুঘরে এক অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন। শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ শিক্ষা উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রায়ই তাকে আগে থেকেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থাপনা সম্পন্ন করে রাখার পরামর্শ দেন, যেন কৃষক, শ্রমিক, ফেরিওয়ালা, কামার, হস্তশিল্পীসহ প্রতিটি শ্রমজীবী পরিবারের অন্তত একজন সদস্যের কর্মসংস্থান করা যায়।

দেশের দারিদ্রতার হার ২১ শতাংশে নেমে গেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার ২০৩০ সাল নাগাদ দারিদ্রতার এই হার শূন্য থেকে ৩ শতাংশে নামিয়ে আমার লক্ষ্য সরকারের রয়েছে।

বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফ এর তথ্য উপাত্তের বরাত দিয়ে অর্থমন্ত্রী বলেন, বিগত ১০ বছর নাগাদ বাংলাদেশ জিডিপি প্রবৃদ্ধিতে শীর্ষ স্থান অধিকার করে আছে। এই অগ্রগতি অব্যাহত থাকলে ২০২৭ সাল নাগাদ বৈশ্বিক অর্থনীতিতে দেশ ২৬তম স্থান অধিকার করতে সক্ষম হবে।

শিক্ষা জীবনের সস্মৃতিচারণ করে মুস্তফা কামাল বলেন, আমার জীবনের গল্প আপনাদের কাছে অবিশ্বাস্য মনে হবে। বেতন না দিতে পারার কারণে স্কুলে আমার তিন বার নাম কাটা গেছে। গ্রামের মানুষ আমার বেতন দিয়েছেন। এসএসসি ফর্ম ফিলাপের টাকা ছিলনা, শেষদিন আমার এলাকার একজন আমাকে টাকা দেন। আমি লজিংয়ে থেকে লেখাপড়া করেছি, টিউশনি করেছি।

শিশুদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, টিউশনি ও লজিংয়ে থেকে লেখাপড়া করে অর্থমন্ত্রী হতে পারলে তোমরা কেন পারবে না, তোমরা আরো বড় বড় দায়িত্ব পালন করতে পারবে।

পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মো. রকিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, মাহমুদ উস সামাদ এমপি ও জনতা ব্যাংকের চেয়ারম্যান জামালউদ্দিন আহমেদ।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর