ব্রেকিং:
শীতার্তদের পাশে সংবাদপত্র কর্মীরা স্বাস্থ্য সেবা হচ্ছে মানবতার প্রধান উৎস মাদকমুক্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়া গড়তে ‘আলোর সিঁড়ি’র ব্যতিক্রমী উদ্যোগ কাদিয়ানিদের অমুসলিম ঘোষনার দাবিতে বিক্ষোভ মাদকাসক্ত স্বামীকে পুলিশে দিলেন স্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পারাবত এক্সপ্রেস ট্রেন আগুন শেখ হাসিনা সড়কে ব্রিজের নির্মাণকাজ পরিদর্শন বিশ্ববিখ্যাত ইনটেলের চেয়ারম্যান হলেন বাংলাদেশি ওমর ইশরাক পবিত্র জুমাবারের সুন্নতগুলো জেনে নিন ছড়িয়ে যাচ্ছে করোনাভাইরাস, সৌদিতে ভারতীয় আক্রান্ত পাকিস্তানকে হারাতে আজ মাঠে নামবে টাইগাররা রোহিঙ্গা গণহত্যা: মিয়ানমারের বিরুদ্ধে চার আদেশ ঐতিহাসিক গণঅভ্যুত্থান দিবস আজ মাদরাসায় এক কেজি মুড়ির বিল ১৪ হাজার ৮৮০ টাকা! সেনাবাহিনীর শীতকালীন মহড়া প্রত্যক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী আজিজুল হকের মায়ের মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের শোক সরকারি নির্মাণাধীন বাসগৃহ পরিদর্শন করেন ইউএনও মৎস্য ব্যবসায়ীদের বাজার বর্জন বাজার ব্যবস্থাপনা ও সংস্কার কাজ পরিদর্শন আকস্মিক কলেজ পরিদর্শনে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী

শনিবার   ২৫ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১১ ১৪২৬   ২৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

১২৪৪

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ আবশ্যক: খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

বর্তমান প্রজন্মের মধ্যে ভাষা আন্দোলনের মর্ম ছড়িয়ে দেয়ার জন্য প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণ করা অত্যাবশকীয় বলে মন্তব্য করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় পরিচালিত হওয়া বর্তমান সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে বাংলাদেশের মানুষের চেতনায় ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, দেশপ্রেম ও দেশীয় সংস্কৃতি চর্চ্চা বৃদ্ধি পেয়েছে। 

শনিবার বিকেলে জেলার নিয়ামতপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে শহীদ মিনার নির্মাণ কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, ভাষা আন্দোলনের চেতনা থেকেই বাঙালির হৃদয়ে স্বাধীনতার তাগিদ অনুভূত হয়েছে। তাই আমাদের জাতীয় চেতনায় ভাষা আন্দোলনের গুরুত্ব অপরিসীম। পৃথিবীতে একমাত্র বাঙালি জাতিকে তাদের ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষার জন্য রক্ত দিতে হয়েছে। 

খাদ্যমন্ত্রী আরো বলেন, বাঙালির ভাষা দিবস এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শীতার কারণে ২১ ফেব্রুয়ারি আমাদের ভাষা দিবসের গুরুত্ব ও তাৎপর্য আন্তর্জাতিক মহলে নাড়া দিতে সক্ষম হয়েছে। 

তিনি বলেন, যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নেই, সেখানে শহীদ মিনার স্থাপন করা হবে। সেক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানের আর্থিক সংগতি না থাকলে টিআর এর অর্থে সেসব স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় শহীদ মিনার তৈরি করা হবে। 

অনুষ্ঠানে নিয়ামতপুরের ইউএনও আবু সালেহ মাহফুজুল আলম সভাপতিত্ব করেন। এতে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক কামাল হোসেন, নিয়ামতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এনামুল হকসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতারা বক্তব্য রাখেন। 

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর