ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

২৮৯

লকডাউন মানছেন না ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষ!

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১২ এপ্রিল ২০২০  

দুইজনের মৃত্যু, সাতজনের আক্রান্ত হওয়ার খবরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে অনেকটাই ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ বলে মনে করা হচ্ছে। তাই গতকাল  শনিবার সন্ধ্যা থেকেব্রাহ্মণবাড়িয়াকে লকডাউন ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। স্থানীয়দের মধ্যে এ নিয়ে আতঙ্কও আছে। তবে লকডাউন করা হলেও এলাকার মানুষ যেন সেটা মানছেনই না।

বিশেষ করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদরের বিভিন্ন এলাকার চিত্র দেখে বুঝার উপায়ই নেই যে লকডাউন চলছে। সার্বিক পরিস্থিতিতে লকডাউন তো দূরের কথা সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মুখোশ পড়াসহ সাধারন নিয়মই যেন তাঁরা মানছেন না।  

এ প্রসঙ্গে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর দফতর) আবু সাঈদ বলেছেন, ‘জনসাধারণকে বুঝতে হবে কি ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজমান। আমাদের পুলিশ সদস্যরা সর্বাত্মক চেষ্টা করছেন মানুষকে ঘরে রাখার জন্য। নিজেদের সুরক্ষার জন্য্য সবাইকে নিজ থেকেই এখন ঘরে চলে যাওয়া উচিত।’

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে জেলা প্রশাসন। শনিবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে লকডাউন মানার আহবানও জানানো হয়েছে। 
তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রকাশ পাওয়া ও বিভিন্ন মাধ্যম থেকে সংগ্রহ করা কিছু ছবি থেকে দেখা যায়ম সকাল নয়টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত পৌর এলাকার টি.এ রোড, মঠেরগোড়া, কুমারশীল মোড়, সদর হাসপাতাল সড়কে সাধারণ মানুষের অবাধ চলাচল। অন্যসব দিনের মতোই ওই সড়কগুলো দিয়ে রিকশা ও মোটসাইকেল এবং সিএনজি ও ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা চলাচল করছে। বিভিন্নস্থানে পুলিশ সদস্য মোতায়েন থাকলেও জনসাধারণের চলাচল বন্ধে খুব একটা তৎপরতা নেই।

এদিকে সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী জেলার আখাউড়া উপজেলার রাণীখার গ্রামে মারা যাওয়া নারী করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। এ নিয়ে জেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন দুইজন। কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে মারা যাওয়া নারী নবীনগরের বলে জানিয়েছে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের একটি সূত্র। তবে ওই নারী বাঞ্ছারামপুরের বাসিন্দা বলে অপর একটি সূত্র দাবি করেছে। মারা যাওয়া দুইজন ছাড়াও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরে দুইজন, আখাউড়ায় তিনজন, নবীনগরে একজন ও বাঞ্ছারামপুরে দুইজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর