ব্রেকিং:
আজিজুল হকের মায়ের মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের শোক সরকারি নির্মাণাধীন বাসগৃহ পরিদর্শন করেন ইউএনও মৎস্য ব্যবসায়ীদের বাজার বর্জন বাজার ব্যবস্থাপনা ও সংস্কার কাজ পরিদর্শন আকস্মিক কলেজ পরিদর্শনে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী মধ্যযুগীয় কায়দায় গৃহবধুকে নির্যাতন অতঃপর ৯৯৯-এ ফোন কোচিং বাণিজ্যে ব্যস্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা রেললাইনের পাশ থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার মাদক সেবন ও বিক্রির দায়ে মা-ছেলের কারাদণ্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কওমী মাদরাসার সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত সুদমুক্ত ঋণ দিল বসুন্ধরা ফাউন্ডেশন সেচ প্রকল্পের খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ ও ময়লার স্তুপ! আত্মসমর্পণ করবেন অর্ধশতাধিক ইয়াবা ব্যবসায়ী সিনহাসহ ১১ জনকে হাজির হতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির নির্দেশ ভুয়া কাবিননামায় লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র গরু ব্যবসায়ীর টাকা হাতিয়ে নিয়ে ফেঁসে গেলেন এসআই মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দৈনিকে বাংলাদেশি শিশু আইমানের আবিষ্কার! ‘দুর্নীতিবাজ মানুষকে আগে ক্ষমা চাইতে হবে’ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বরগুলোর রহস্য জেনে নিন অস্ত্রের মুখে অপহরণের পর নারীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

বৃহস্পতিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১০ ১৪২৬   ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৮৬৭

রক্তদান বা গ্রহণের ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো জানা থাকতে হবে

প্রকাশিত: ২৫ জুলাই ২০১৯  

সময় এখন পাল্টেছে। তা না হলে, আগে এক ব্যাগ রক্তের জন্য জাতীয় গণমাধ্যম টেলিভিশনেও জরুরি বিজ্ঞপ্তি দিতে হতো। আরো কতো কি! আর এখন ফেসবুকে একটি পোস্ট। ব্যাস, হয়ে গেলো। 

রক্তদান একটি সহজ ও সাধারণ বিষয় কিন্তু এর গুরুত্ব নিঃসন্দেহে বহু বেশি। রক্তদানের ফলে রক্তদাতার শারীরিক কোনো ক্ষতি হয় না। 

তবে রক্তদান নিয়ে আমাদের দেশে অনেকের মাঝে বেশ কিছু মিথ বা ভ্রান্ত ধারণা প্রচলিত আছে। এ বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা বলেন, এটি শারীরিক কোনো ক্ষতি করে না।

এদিকে রক্তদাতার পরিমাণ যেমন বেড়েছে, এর সচেতনতার বিষয়গুলো জানাও জরুরি হয়ে পড়েছে। চলুন, রক্তদান বা গ্রহণ করতে গেলে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে সেগুলো জেনে নেই-

রক্তদানের ক্ষেত্রে  
•    রক্তের লোহিত কণিকার আয়ু থাকে ১২০ দিন। অর্থাৎ রক্ত না দিলেও ১২০ দিন পর লোহিত কণিকা স্বাভাবিকভাবে মরে যায়। 
•    একজন সুস্থ, সবল, নীরোগ মানুষ প্রতি চার মাস অন্তর রক্ত দিতে পারেন।
•    যে ব্যক্তি রক্তদান করবে তাকে শারীরিকভাবে সুস্থ হতে হবে।
•    রক্তদাতার বয়স কমপক্ষে ১৮ বছর।
•    রক্তদানকারীর ওজন কমপক্ষে ১১০ পাউন্ড হতে হবে।
•    রক্তচাপের দিকে লক্ষ্য রাখা দরকার। খুব বেশি বা খুব কম কোনটিই রক্তদানের জন্য উপযুক্ত নয়।
•    কোনো রোগের জন্য অ্যান্টিবায়োটিক গ্রহণ করলে সেই দিনগুলোতে রক্তদান না করা ভালো।
•    নারীরা মাসিক চলাকালীন বা গর্ভাবস্থায় রক্তদান করতে পারবেন না 
•    শরীরে হিমোগ্লোবিন কম থাকলেও রক্ত দেয়া যাবে না। 

রক্তদানের পর 
•    কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিতে হবে।
•    দুই গ্লাস পানি বা জুস খেলে রক্তের জলীয় অংশটুকু পূরণ হয়ে যায়। 
•    স্বাভাবিক কাজকর্মে কোনো বিধি-নিষেধ নেই।

আমাদের দেশে রক্তদানকারী নানা সংগঠন রয়েছে। এছাড়া কারো রক্তের প্রয়োজন হলে বা নিজে রক্ত দিতে চাইলে সন্ধানী, বাঁধন, আই ব্লাড নেটওয়ার্ক ছাড়াও অনলাইনে বেশ কিছু ব্লাড ডোনার গ্রুপ রয়েছে। সেখানে যোগাযোগ করতে পারেন। 

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর