ব্রেকিং:
টিউশনির টাকায় গুজবের বিরুদ্ধে ৩১ দিন হাঁটলেন সাইফুল কন্ডিশনিং ক্যাম্পেই যাত্রা শুরু নতুন দুই কোচের প্রথম সমকামী ক্রিকেটার হিসেবে মা হচ্ছেন স্যাটারওয়েট তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি কাদেরের স্মার্ট কার্ড অনলাইনে সংশোধন করবেন যেভাবে একজনের কিডনি ও লিভারে বাঁচলো তিনজনের প্রাণ পিতলের পুতুলকে সোনার মূর্তি বলে বিক্রি করে, চার জীনের বাদশা আটক বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার সেনাপ্রধানদের সৌজন্য সাক্ষাৎ প্রধানমন্ত্রীকে ভারত সফরে মোদির আমন্ত্রণ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান নিশ্চিত করতে হবে: রাষ্ট্রপতি আজ ভয়াল ২১ আগস্ট পানিবণ্টন সমস্যার সমাধান হবে: জয়শঙ্কর কুকুরের মুখ থেকে নবজাতককে বাঁচালেন পুলিশ কর্মকর্তা রক্তদানে সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নয় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালনের আগ্রহ প্রকাশ ভারতের মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ‘গাঙচিল’ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী কমছে মিন্নির দোষ স্বীকার নিয়ে এসপির মন্তব্য জানতে চান হাইকোর্ট

বৃহস্পতিবার   ২২ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

১৪৪৯

মোটরসাইকেলে ঘুচল বেকারত্ব

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

উচ্চ শিক্ষাগ্রহণ করে খালি হাতে বসে নেই সুনামগঞ্জের ১১ উপজেলার ২০ হাজার যুবক। বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পেতে চালাচ্ছেন মোটরসাইকেল। এতে আয়ও হচ্ছে বেশ ভালো।

জেলার সব উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চলে বর্ষা মৌসুমে নৌকা ও শুষ্ক মৌসুমে মোটরসাইকেল চলে। এর বেশির ভাগ চালক যুবক। এর মধ্যে তাহিরপুরের অঞ্চলে মানুষ হাঁটার বদলে মোটরসাইকেল ব্যবহারে স্বাচ্ছন্দবোধ করছে। তাহিরপুর ছাড়াও বিশ্বম্ভরপুর, জামালগঞ্জ, মধ্যনগর, ধর্মপাশা, দিরাই, শাল্লা উপজেলার প্রত্যান্ত অঞ্চলে যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচল করে না। এতে বিকল্প বাহন হিসেবে মোটরসাইকেল দেখা যায়।   

তাহিরপুরের বীরনগড় গ্রামের মোটরসাইকেল চালক সবুজ মিয়া বলেন, প্রতিদিন সকাল থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালিয়ে খরচ শেষে ৪০০-৫০০ টাকা আয় হয়। কোনদিন এক হাজার টাকাও আয় করতে পারি। রাজনৈতিক মিছিলে মোটরসাইকেল চালকদের গুরুত্ব বেড়ে যায়।

মোটরসাইকেল চালক আবুল হোসেন বলেন, সারাদিন আয়ের টাকা সঞ্চয় করে অনেকে একাধিক মোটরসাইকেলের মালিক হয়েছেন। গ্রাম-গঞ্জে মোটরসাইকেল চালিয়ে আয়ের টাকায় পরিবার নিয়ে সুখেই আছি।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল বলেন, মোটরসাইকেল চালকরা সরকারি চাকরির আশায় না বসে সৎভাবে আয় করছে। এমন উদ্যোগ প্রশংসার যোগ্য।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর