ব্রেকিং:
দুর্ধর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আটক সাংবাদিকতায় দেশ সেরা অ্যাওয়ার্ড পেলেন মিশু জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত বিষ প্রয়োগে সর্বশান্ত মৎস্য চাষী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সংবর্ধনা পাঁচ দফা দাবিতে ফারিয়ার মানববন্ধন মসজিদের দেয়ালে ফাটল, আতঙ্কে মুসল্লিরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক উদ্ধার মাদক বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত মাদকসেবীর হুমকিতে স্কুলে যাওয়া বন্ধ শিক্ষার্থীর ফুটপাত দখলমুক্ত করলেন ইউএনও শারীরিক সক্ষম হলেই রক্তদান করবে শিক্ষার্থীরা একই তেলে বার বার রান্না ক্যান্সার ও হৃদরোগের কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ তথ্যমন্ত্রীর মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী নারীর মনে জায়গা পাওয়ার উপায় পানিতে পড়া ফোন যেভাবে দ্রুত সারিয়ে তুলবেন যে কারণে ‘সুদ’ হারাম উদ্বোধন হলো শেখ কামাল ক্লাব কাপ আওয়ামী লীগের সম্মেলন মানেই নতুন মুখ: কাদের

সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

৭৬৭

মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রিতে শুদ্ধি অভিযান

প্রকাশিত: ১৯ মে ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ওষুধ প্রশাসন এবং বাংলাদেশ কেমিস্ট অ্যান্ড ড্রাগিস্ট সমিতির যৌথ উদ্যোগে শহরের বিভিন্ন মেডিকেল হল এবং ফার্মেসিতে শুদ্ধি অভিযান চালানো হয়েছে। শহরের কুমারশীল মোড়, ল্যাবএইড মোড়, হাসপাতাল রোড, পুরাতন জেলরোড, ছাতিপট্টি এলাকায় অভিযান চালানো হয়।
এসময় শহরের হাসপাতাল রোডের, মুশকিল আহসান ফার্মেসি, খেয়াম ফার্মেসিসহ ২০টি ওষুধের দোকান থেকে অন্তত ২৫ হাজার টাকার অনিবন্ধিত ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ অপসারণ করা হয়।
অভিযানে নেতৃত্ব দেন ওষুধ প্রশাসন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা তত্ত্বাবধায়ক বাদল শিকদার, বাংলাদেশ কেমিষ্ট অ্যান্ড ড্রাগিষ্ট সমিতির সভাপতি জহিরুল হক, সাধারণ সম্পাদক আবু কাউছার। 
বাদল শিকদার জানান, আমরা প্রথম দিন সব ফার্মেসি মালিকদের সর্তক করেছি। শীঘ্রই অনিবন্ধিত ও মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ রাখার বিষয়ে বড় ধরনের অভিযান পরিচলনা হবে। এতে জেল-জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। তাই আগাম সর্তকতা হিসেবে আজকের শুদ্ধি অভিযান চালানো হয়েছে। 
এদিকে ওষুধ প্রশাসন এবং বাংলাদেশ কেমিষ্ট অ্যান্ড ড্রাগিষ্ট সমিতির এ অভিযানকে স্বাগত জানিয়ে ওষুধ নিতে আসা রোগী জানান, এ অভিযানকে আমরা স্বগত জানাচ্ছি। ওষুধ বিভাগে অরাজকতা বিরাজ করছে। বলা হয় এক ধরনের ওষুধ দেয়ার জন্যে। দেয়া হচ্ছে আরেক ধরনের ওষুধ। এছাড়া মেয়াদ আছে কিনা অনেক সাধারণ রোগী সেটা পরীক্ষা করার সুযোগ পান না অজ্ঞতার কারণে। আর এ সুযোগে অসাধু দোকান-মালিকরা মেয়াদোত্তীর্ণ ও অনিবন্ধিত ওষুধ বিক্রি করেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর