ব্রেকিং:
করদাতাদের সুবিধার্থে বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ স্যানিটেশন মাস ও বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত জেলে পরিবারের মাঝে ছাগল বিতরণ খাদ্য উৎপাদন বৃদ্ধি ও ইঁদুর নিধনে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসীদের হামলা কার্টুনে ভরা নবজাতকের মরদেহ উদ্ধার পণ্যের মূল্য তালিকা ও মেয়াদোত্তীর্ণ তারিখ না থাকায় জরিমানা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আহত ১৫ নিরাপদ খাদ্য আইন বাস্তবায়নের দাবিতে মানববন্ধন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অপপ্রচার স্বাস্থ্য সচেতনতায় মা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হাসপাতালে নবজাতক রেখে মা উধাও সাড়ে ৮ লাখ টাকা দিয়েও হলো না চাকরি, কাঁদলেন প্রার্থী ২০২৩ বিশ্বকাপের আয়োজক হতে পারে বাংলাদেশ! কোটি টাকার কারেন্ট জালে আগুন দেশের ‘অপরিচিত’ কিছু সমুদ্র সৈকত আপনার দেহে কি ক্যান্সার বাসা বেঁধেছে? বুঝে নিন ১০টি লক্ষণে র‌্যাগিং বন্ধে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের আহ্বান ডিজিটাল মেলায় দেশি রোবট নিয়ে কৌতুহল জুতার বাজে গন্ধ দূর করুন সহজ একটি কৌশলে!

বৃহস্পতিবার   ১৭ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ১ ১৪২৬   ১৭ সফর ১৪৪১

১২

মুক্তিযুদ্ধ গ্যালারি সম্পর্কে জানে না তিতুমীরের শিক্ষার্থীরা

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজে আছে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি গ্যালারি। ২০১১ সালের ৯ আগস্ট শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ গ্যালারি উদ্বোধন করেন। কিন্তু শিক্ষার্থীদের কাছে আজও অজানা এই গ্যালারি।

তিতুমীর কলেজের গণিত বিভাগের ইশা ইসরাত ও সমাজকর্ম বিভাগের আবিদ হাসানের কাছে জানতে চাইলে বলেন, তিতুমীর কলেজে যে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি আছে সেটাইতো জানি না।

২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মির্জা রাকিব বলেন, কলেজে তিনবছর পার করেছি। অথচ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি যে কি আছে আজও জানি না।

প্রাণীবিদ্যা বিভাগের মাহবুব হাসান রিপন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় এ কলেজের ভূমিকা অত্যাধিক ছিলো। মুক্তিযুদ্ধে শহিদ হয়েছিলেন তিতুমীর কলেজের প্রথম ভিপি শহিদ সিরাজুল ইসলাম। দুঃখজনক হলেও সত্যি মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি থাকলেও এখনো শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত না।

এ নিয়ে তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আশরাফ হোসেন জানান, বিভিন্ন জাতীয় দিবসে মুক্তিযুদ্ধের এই স্মৃতি গ্যালারিটি শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়। পরিচালনার জন্য নির্দিষ্ট কোনো লোক নেই। তাই এখনও শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা যাচ্ছে না। এই গ্যালারিকে আরো আধুনিক করার প্রক্রিয়া আছে। প্রক্রিয়া শেষে অবশ্যই উন্মুক্ত করা হবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর