ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • শনিবার   ৩০ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

১২০

মুক্তিযুদ্ধ গ্যালারি সম্পর্কে জানে না তিতুমীরের শিক্ষার্থীরা

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ৭ অক্টোবর ২০১৯  

রাজধানীর সরকারি তিতুমীর কলেজে আছে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি গ্যালারি। ২০১১ সালের ৯ আগস্ট শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এ গ্যালারি উদ্বোধন করেন। কিন্তু শিক্ষার্থীদের কাছে আজও অজানা এই গ্যালারি।

তিতুমীর কলেজের গণিত বিভাগের ইশা ইসরাত ও সমাজকর্ম বিভাগের আবিদ হাসানের কাছে জানতে চাইলে বলেন, তিতুমীর কলেজে যে মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি আছে সেটাইতো জানি না।

২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মির্জা রাকিব বলেন, কলেজে তিনবছর পার করেছি। অথচ মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি যে কি আছে আজও জানি না।

প্রাণীবিদ্যা বিভাগের মাহবুব হাসান রিপন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের সময় এ কলেজের ভূমিকা অত্যাধিক ছিলো। মুক্তিযুদ্ধে শহিদ হয়েছিলেন তিতুমীর কলেজের প্রথম ভিপি শহিদ সিরাজুল ইসলাম। দুঃখজনক হলেও সত্যি মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি গ্যালারি থাকলেও এখনো শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত না।

এ নিয়ে তিতুমীর কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর আশরাফ হোসেন জানান, বিভিন্ন জাতীয় দিবসে মুক্তিযুদ্ধের এই স্মৃতি গ্যালারিটি শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়। পরিচালনার জন্য নির্দিষ্ট কোনো লোক নেই। তাই এখনও শিক্ষার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করা যাচ্ছে না। এই গ্যালারিকে আরো আধুনিক করার প্রক্রিয়া আছে। প্রক্রিয়া শেষে অবশ্যই উন্মুক্ত করা হবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর