ব্রেকিং:
টিউশনির টাকায় গুজবের বিরুদ্ধে ৩১ দিন হাঁটলেন সাইফুল কন্ডিশনিং ক্যাম্পেই যাত্রা শুরু নতুন দুই কোচের প্রথম সমকামী ক্রিকেটার হিসেবে মা হচ্ছেন স্যাটারওয়েট তারেকের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি কাদেরের স্মার্ট কার্ড অনলাইনে সংশোধন করবেন যেভাবে একজনের কিডনি ও লিভারে বাঁচলো তিনজনের প্রাণ পিতলের পুতুলকে সোনার মূর্তি বলে বিক্রি করে, চার জীনের বাদশা আটক বাংলাদেশ ও ইন্দোনেশিয়ার সেনাপ্রধানদের সৌজন্য সাক্ষাৎ প্রধানমন্ত্রীকে ভারত সফরে মোদির আমন্ত্রণ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান নিশ্চিত করতে হবে: রাষ্ট্রপতি আজ ভয়াল ২১ আগস্ট পানিবণ্টন সমস্যার সমাধান হবে: জয়শঙ্কর কুকুরের মুখ থেকে নবজাতককে বাঁচালেন পুলিশ কর্মকর্তা রক্তদানে সবাইকে এগিয়ে আসা উচিত: সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নয় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালনের আগ্রহ প্রকাশ ভারতের মেডিকেলে ভর্তি পরীক্ষা ৪ অক্টোবর বৃহস্পতিবার ‘গাঙচিল’ উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগী কমছে মিন্নির দোষ স্বীকার নিয়ে এসপির মন্তব্য জানতে চান হাইকোর্ট

বৃহস্পতিবার   ২২ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৬ ১৪২৬   ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

১৪৬৭

মালয়েশিয়ায় পুলিশি অভিযানে দুই বাংলাদেশি নিহত

প্রকাশিত: ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

মালয়েশিয়ায় পুলিশি অভিযানে দুই বাংলাদেশি নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। দেশটির তামান মুডুন, বাতু ৯ চেরাস এলাকার একটি বাড়ি থেকে অপহৃত এক বাংলাদেশিকে উদ্ধারের সময় পুলিশের গুলিতে এ দুজন নিহত হন।

মালয়েশিয়ার জাতীয় দৈনিক ষ্টার অনলাইনে প্রকাশিত এক খবরে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

পুলিশের বরাত দিয়ে পত্রিকাটি জানাচ্ছে, মঙ্গলবার রাতের ওই অভিযানে নিহতরা অপহরণকারী ছিলেন। তাদের বিরুদ্ধে ১৩টি অভিযোগ ছিল। 

কাজাং ওসিপিডির সহকারী কমিশনার আহমেদ জাফির ইউসুফ বলেন, কুয়ালালামপুরের পুলিশ একটি সংঘবদ্ধ চক্রকে ধরার জন্যে ওঁত পেতে ছিল। তামান মুদুনের একটি ছোট স্থানে অবস্থান করছিল তারা। সেখানে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে রাখা হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছিল। আনুমানিক রাত ১টা ৩৫ মিনিটের দিকে পুলিশ বাড়িটিতে অভিযান চালালে অপহরণকারীরা পুলিশের উদ্দেশে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে। পুলিশ তখন আত্মরক্ষার জন্য পাল্টা গুলি ছুঁড়ে।

তিনি আরো বলেন, আমরা ওই বাড়ি থেকে সফলভাবে অপহরণকৃত এক বাংলাদেশিকে উদ্ধার করতে পেরেছি। তার বয়স আনুমানিক ৩০ থেকে ৩৫ বছর। গত ৮ ফেব্রুয়ারি সেন্তুল থেকে তাকে অপহরণ করা হয়েছিল।

তবে উদ্ধারকৃত বাংলাদেশির নাম এখনো প্রকাশ করেনি পুলিশ। তারা বলছে, নিহত দুই বাংলাদেশির কাছে কোনো বৈধ কাগজপত্র ছিল না।

জাফির ইউসুফ জানান, ঘটনাস্থল থেকে একটি ৯এমএম পিস্তল এবং একটি চাপাতি উদ্ধার করা হয়েছে। তবে নিহত ব্যক্তিদের কাছ থেকে কোনো ধরনের দলিল-দস্তাবেজ পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। ৩০৭ ধারায় পেনাল কোর্টে এ মামলার তদন্ত চলছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে পুলিশ বলছে, নিহত দুই বাংলাদেশির বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন দেশের শ্রমিকদের অপহরণ করে চাঁদাবাজির অভিযোগ ছিল। মুক্তিপণের দাবিতে এ পর্যন্ত তারা ২ দশমিক ৫ মিলিয়ন মালয় রিংগিত অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর