ব্রেকিং:
কসবায় ভিজিডি কার্ডের চাউল বিতরণ মাদক বিরোধী অভিযানে আটক তিন কারা থাকছে আখাউড়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে সুশাসনের জন্য দুর্নীতিই প্রধান অন্তরায় সরাইলে অপপ্রচার নিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ বিএনপি নেতা দুদুর বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা বিএনপি’র পকেট কমিটি বাতিলের দাবীতে বিক্ষোভ ও ঝাঁড়ু মিছিল ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত মুসলিম যাত্রী থাকায় আমেরিকান এয়ারলাইনসের ফ্লাইট বাতিল নির্ধারিত সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী ব্যাংক নোটের আদলে বিল ব্যবহারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হুঁশিয়ারি তিন স্পা সেন্টার থেকে ১৬ নারী ও ৩ পুরুষ আটক দেশে বেড়েই চলেছে ইন্টারনেটের গ্রাহক সংখ্যা শাবিপ্রবি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিনের অনিয়ম ও দুর্নীতির শ্বেতপত্র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সরকারের উদ্যোগের ঘাটতি নেই ক্যাসিনো চালাতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তেল স্থাপনায় হামলার প্রতিশোধ নেবে সৌদি আরব অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করছে আওয়ামী লীগ মাদক ব্যবসায়ীদের চেনার উপায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১১ জন খেলাঘরের জাতীয় পরিষদে

সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৮ ১৪২৬   ২৩ মুহররম ১৪৪১

৩৯৬৮

ভোটে অশান্ত পরিবেশ যেন সৃষ্টি না হয়: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২৭ ডিসেম্বর ২০১৮  

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, ভোটের আগে পরে শান্ত পরিবেশ বজায় রাখবেন। কোনো অশান্ত পরিবেশ যেন সৃষ্টি না হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের শাপলা হলে এ অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কার্যালয়ের মুখ্য সচিব মো. নজিবুর রহমান। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম, প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এসডিজিবিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, সামরিক সচিব মেজর মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীন, কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান ও প্রেস সচিব ইহসানুল করিম এসময় উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বংলা গড়তে সবার সহযোগিতা কামনা করে কার্যালয়ের কর্মচারীদের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এ এগিয়ে যাওয়া যেন থেমে না যায় তার দায়িত্ব আপনাদের নিতে হবে।

তিনি বলেন, ‘দেশের মানুষের উন্নয়নে কাজ করছি। মানুষ যাতে ভালো থাকে সে জন্য কাজ করে যাচ্ছি। ১০ বছর টানা ক্ষমতায় থেকে কাজ করায় উন্নয়ন দৃশ্যমান হচ্ছে। সাধারণ মানুষও বুঝতে পারছে তার জীবনমান উন্নয়ন হচ্ছে।’শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা ২০২০ সালের মার্চ থেকে ২০২১ সালের মার্চ পর্যন্ত মুজিববর্ষ ঘোষণা করেছি। এ বর্ষটি আমরা ভালোভাবে পালন করতে চাই।’

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর