ব্রেকিং:
নাসিরনগরে ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের মামলা ছয় জেলায় সার সরবরাহ বন্ধ আশুগঞ্জ সারকারখানার নবীনগরে সরকারি খাল ভরাটের মহা উৎসব! ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ তদন্তে মাঠে দুদক সরাইলে পুলিশের হাতে পলাতক আসামি গ্রেপ্তার আশুগঞ্জ সার কারখানা থেকে পুনরায় সার সরবরাহ শুরু হয়েছে বিজয়নগরে পলাতক ৭ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ পরীক্ষার মুখে আখাউড়া ছাত্রলীগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান নূর চৌধুরীর তথ্য প্রকাশে কানাডার আদালতে বাংলাদেশের পক্ষে রায় আখাউড়ায় শিক্ষকের যৌন হয়রানির প্রতিবাদে সড়কে শিক্ষার্থীরা সরাইলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চারপাশে জুয়া ও মাদকের আসর অর্থ লেনদেনের অভিযোগে সরাইল স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি বাতিল নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান আখাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগে পদ পেতে এ কি শর্ত দিলেন আইনমন্ত্রী! সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ব্রিটেনের প্রধান গির্জায় কোরআন তিলাওয়াতের বিরল ঘটনা স্মার্টফোনের বদলি হিসেবে ‘স্মার্ট গ্লাস’ আনছে ফেসবুক এডিআর বাড়িয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক আওয়ামী লীগের নেতারা দুর্নীতি করলে ছাড় নয়: কাদের

শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৫ ১৪২৬   ২১ মুহররম ১৪৪১

২৯১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিপন হত্যা মামলায় তিন বন্ধুর যাবজ্জীবন

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিপন মিয়া হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত। তবে এ মামলার আরেক আসামি রিপন মিয়ার স্ত্রী আমেনা বেগমকে (৩৫) বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শফিউল আজম এ আদেশ দেন। এসময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিল। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো– বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ভেলানগর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে শিপন মিয়া (৪৫), বাতেন মিয়ার ছেলে মো. কবির (৩৪) ও কাজী মোস্তফার ছেলে মো. হাবিব (২৩)।
রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এসএম ইউসুফ। তিনি জানান, ২০১৬ সালের ২ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারির মধ্যে কোনও একদিন উপজেলার রূপসদী গ্রামের রিপন মিয়াকে হত্যা করে লাশ তার শ্বশুর বাড়ি ভেলানগর গ্রামের একটি জমির বালিতে পুঁতে রাখে তারই তিন বন্ধু শিপন মিয়া, মো. কবির ও মো. হাবিব। এই চার বন্ধু মিলে মাদকের ব্যবসা করতো। এ ব্যবসায় দ্বন্দ্ব দেখা দিলে এর জেরে রিপনের স্ত্রী আমেনা বেগমের সাহায্যে তাকে হত্যা করা হয়।
সূত্র আরও জানায়, এ ঘটনায় রিপনের ভাই বোরো মিয়া বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। প্রথমে মামলায় আমেনা বেগম ও শিপন মিয়াকে আসামি করা হয়। তদন্তে মো. কবির ও মো. হাবিবের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পেলে তাদের দুইজনকেও অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে শিপন মিয়া, মো. কবির ও মো. হাবিব হত্যার কথা স্বীকারও করে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর