ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

৪১৭

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিপন হত্যা মামলায় তিন বন্ধুর যাবজ্জীবন

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রিপন মিয়া হত্যা মামলায় তিনজনকে যাবজ্জীবন দিয়েছেন আদালত। তবে এ মামলার আরেক আসামি রিপন মিয়ার স্ত্রী আমেনা বেগমকে (৩৫) বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ শফিউল আজম এ আদেশ দেন। এসময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিল। দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলো– বাঞ্ছারামপুর উপজেলার ভেলানগর গ্রামের সিদ্দিক মিয়ার ছেলে শিপন মিয়া (৪৫), বাতেন মিয়ার ছেলে মো. কবির (৩৪) ও কাজী মোস্তফার ছেলে মো. হাবিব (২৩)।
রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এসএম ইউসুফ। তিনি জানান, ২০১৬ সালের ২ জানুয়ারি থেকে ১০ জানুয়ারির মধ্যে কোনও একদিন উপজেলার রূপসদী গ্রামের রিপন মিয়াকে হত্যা করে লাশ তার শ্বশুর বাড়ি ভেলানগর গ্রামের একটি জমির বালিতে পুঁতে রাখে তারই তিন বন্ধু শিপন মিয়া, মো. কবির ও মো. হাবিব। এই চার বন্ধু মিলে মাদকের ব্যবসা করতো। এ ব্যবসায় দ্বন্দ্ব দেখা দিলে এর জেরে রিপনের স্ত্রী আমেনা বেগমের সাহায্যে তাকে হত্যা করা হয়।
সূত্র আরও জানায়, এ ঘটনায় রিপনের ভাই বোরো মিয়া বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন। প্রথমে মামলায় আমেনা বেগম ও শিপন মিয়াকে আসামি করা হয়। তদন্তে মো. কবির ও মো. হাবিবের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পেলে তাদের দুইজনকেও অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দেয় পুলিশ। আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে শিপন মিয়া, মো. কবির ও মো. হাবিব হত্যার কথা স্বীকারও করে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর