ব্রেকিং:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সিভিল সদস্যের গলাকেটে ছিনতাই ভারতকে হারিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী আবুধাবি পৌঁছেছেন নাসিরনগরে ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের মামলা ছয় জেলায় সার সরবরাহ বন্ধ আশুগঞ্জ সারকারখানার নবীনগরে সরকারি খাল ভরাটের মহা উৎসব! ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অবৈধ গ্যাস সংযোগ তদন্তে মাঠে দুদক সরাইলে পুলিশের হাতে পলাতক আসামি গ্রেপ্তার আশুগঞ্জ সার কারখানা থেকে পুনরায় সার সরবরাহ শুরু হয়েছে বিজয়নগরে পলাতক ৭ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ পরীক্ষার মুখে আখাউড়া ছাত্রলীগ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ডেঙ্গু প্রতিরোধে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান নূর চৌধুরীর তথ্য প্রকাশে কানাডার আদালতে বাংলাদেশের পক্ষে রায় আখাউড়ায় শিক্ষকের যৌন হয়রানির প্রতিবাদে সড়কে শিক্ষার্থীরা সরাইলে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চারপাশে জুয়া ও মাদকের আসর অর্থ লেনদেনের অভিযোগে সরাইল স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটি বাতিল নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান আখাউড়া উপজেলা ছাত্রলীগে পদ পেতে এ কি শর্ত দিলেন আইনমন্ত্রী! সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ ব্রিটেনের প্রধান গির্জায় কোরআন তিলাওয়াতের বিরল ঘটনা

শনিবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৬ ১৪২৬   ২১ মুহররম ১৪৪১

২৫৪

বি.বাড়িয়ায় অংশীদারিত্ব বুঝে পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন ওয়ারিশরা

প্রকাশিত: ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া পৌরসভাস্থ সাবেক চেয়ারম্যান প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা মাইনুল ইসলামের ডুপ্লেক্স বাড়ীর নিজেদের অংশীদারিত্ব বুঝে পেতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন তার ভাই মোঃ ফকরুল ইসলাম ও তার তিন বোন আয়েশা বেগম, দিলারা বেগম, ফেরদৌস রহমান।

গতকাল রবিবার বিকেলে মাইনুল ইসলামের বাড়ীর সামনে ফকরুল ইসলামের দখলীয় জমির অংশে সংবাদ সম্মেলন করে তারা এ দাবি করেন। 

সংবাদ সম্মেলনে ফকরুল ইসলাম ও তার তিন বোন অভিযোগ করে বলেন, প্রয়াত সাবেক চেয়ারম্যান মাইনুল ইসলাম এই দুতলা ডুপ্লেক্স বাড়ী নির্মান করার সময় কয়েক কিস্তিতে ৫৬ লাখ টাকা নিয়েছেন, বিনিময়ে ডুপ্লেক্স বাড়ীর দূ’তলার তিন রুমের দুই রুম তাদের কে দিয়েছেন কিন্তু মাইনুল ইসলাম মারা যাওয়ার পর তার ছেলে রাজীব তাদের কে বাড়ী থেকে বের করে দিয়েছেন তাদের দুই রুমে থাকতে না দিয়ে তাদের সাথে দূর্ব্যবহার করছেন। এসময় মাইনুল ইসলামের তিন বোন বলেন আমরা আমাদের পৈতৃক সম্পত্তির আমাদের অংশ দাবি করছি, আমরা দীর্ঘদিন ধরে এই দাবি করলেও তারা বিভিন্নভাবে কালক্ষেপণ করে আসছেন। তারা আরো অভিযোগ করে বলেন, আমরা তিন বোন ঢাকা থেকে এসেছি কিন্তু আমরা আসবো জেনে আমাদের ভাইপো মাজহারুল ইসলাম রাজিব বাড়ীতে তালা লাগিয়ে তার পরিবার নিয়ে বাহিরে চলে গেছে।  ফকরুল ইসলাম ও তার তিন বোন বলেন আমার ভাই মুক্তিযোদ্ধা না  এবং এই বাড়ীর জায়গা এখনো বাবার নামে আছে মাইনুল ইসলাম কোন কাজ করতেন না। এসময় বিভিন্ন সময় ঘটে যাওয়া ঘটনার বিস্তারিত বর্ননা দিয়ে সাংবাদিকদের রোটারী একটি দলিল ও বাবার নামে দলিল দেখিয়ে এসব দাবি করেন ফকরুল ইসলাম ও তার তিন বোন।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে,  মাজহারুল ইসলাম রাজিব তার বিরুদ্ধে করা ফকরুল ইসলাম ও তিন বোনের সব অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, তারা আমার বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগ করে অনৈতিকভাবে আমার পিতা প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা মাইনুল ইসলামের এককভাবে নির্মাণ করা ডুপ্লেক্স বাড়ীর অংশীদার দাবি করছেন, আমার পিতা বেচেঁ থাকতেই ওয়ারিশদের আমার চাচা ও ফুফুর যাবতীয় পাওনা সমাধান করে গেছেন, এখন আমার পিতার মৃত্যুর পর এ দাবি হাস্যকর। রাজিব আরো বলেন,  আপনারা সাংবাদিকেরা দেখুন তিনি দাবির স্বপক্ষে কোন প্রমান দেখাতে পারেনি শুধু একটি ভুয়া নোটারী দলিল দেখিয়ে সবাই কে বিভ্রান্ত করছেন।

উক্ত সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর