ব্রেকিং:
সবজি বেচেই চলে সংসার প্রশাসনের তৎপরতায় বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল তিন স্কুলছাত্রী ৫০০০ মিটার দৌঁড়ে বিশ্ব রেকর্ড ৯৬ বছরের বৃদ্ধের! আর্থিক সহায়তা পেতেই ট্রাম্পের কাছে মিথ্যাচার করলো প্রিয়া সাহা! কারাগারে মিন্নি মিয়ানমারের উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পর্যাপ্ত নয়: জাতিসংঘ বদলি খেলোয়াড় নামানোর নতুন নিয়ম চালু আইসিসির বাংলাদেশ-ভারত-ভুটান বাণিজ্যে নবযাত্রার সূচনা জাতীয় মৎস্য পুরস্কারে স্বর্ণপদক পেল নৌবাহিনী ওষুধের পাতায় মেয়াদ-মূল্য স্পষ্ট থাকতে হবে: হাইকোর্ট জিম্বাবুয়েকে বহিষ্কার করল আইসিসি রোহিঙ্গা নির্যাতন: আইসিসি’র অনুমতি পেলে তদন্তে নামবে দল ক্রিকইনফোর একাদশেও সাকিব, নেই কোহলি রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্বেগ রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মিন্নি জেলা হাসপাতালগুলো দালালমুক্ত করার নির্দেশ জঙ্গি-চরমপন্থীদের আবির্ভাব যেন না হয়: ডিসিদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হতে চাই: প্রধানমন্ত্রী নয়ন বন্ডের ঘনিষ্ঠ রিশান ফরাজী গ্রেফতার ক্রাইস্টচার্চে নিহতদের স্বজনদের হজ করাবে সৌদি

রোববার   ২১ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০

৬৯৮

বাড়ি-গাড়ি কিছুই নেই তবুও তিনি ২৫ বছর জনপ্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

বাড়ি নেই, গাড়ি নেই। রাত হলে মাথা গোজেন অন্যের বাড়িতে। দিনে সাইকেল চেপে খোঁজ খবর নেন এলাকাবাসীর। দীর্ঘ ২৫ বছর ধরে এই দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন তরুণ বিশ্বাস নামের এক পঞ্চায়েত সদস্য। খবর আনন্দবাজার।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের জলপাইগুড়ির দক্ষিণ পাণ্ডাপাড়ার পঞ্চায়েত সদস্য তরুণ বিশ্বাস। তার বয়স ৫০ পেরিয়েছে। পেশায় তিনি শাড়ি বিক্রেতা। তবে একসময় ভ্রাম্যমান ফাস্টফুডের দোকান ছিল তার। মালিক ফেরত চাওয়ায় ঠেলার দোকান সঙ্গে সঙ্গে দিয়ে দিয়েছেন। এখন সাইকেলে করে দিনভর শাড়ি বিক্রি করেন তিনি। তরুণ বিশ্বাস জানালেন, এতে দু’ভাবে লাভ হয় তার। এক, শাড়ি বিক্রি করে মাস শেষে ১০ হাজার টাকা রোজকার হয়। দুই, জনগণের ভালো-মন্দও জানা যায়।

কাপড় বিক্রি করে লাভ হওয়া দশ হাজার টাকার বেশিরভাগই তিনি খরচ করেন মেয়ের পড়ালেখায়। মেয়ে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়েন। তরুণ বলেন, এই একটি মাত্র স্বপ্ন আমার। মেয়ের পড়ায় যেন সমস্যা না হয়। এরজন্য আমি আমিষ খাওয়া বাদ দিয়েছি। কারণ এতে খরচ বেশি। তাছাড়া ঘর ভাড়া না নিয়ে এক দাদার বাড়িতে থাকছি এখন।

তরুণ বিশ্বাস তার সততার কারণে গ্রামে বেশ জনপ্রিয়। তার বড় ভাই অবসরপ্রাপ্ত পুলিশক দীপক বললেন, তরুণ তখন উপপ্রধান। পঞ্চায়েত থেকে নারকেল গাছের চারা বিলি করা হচ্ছিল। আমি গিয়েছিলাম, দেয়নি। বলেছিল, নিজের দাদাকে চারা দিলে লোকে কী বলবে!

জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদ আসনের বিজয়ী নুরজাহান বেগম বলেন, যাদের নিজস্ব বাড়ি নেই, তাদের সরকারি প্রকল্পে বাড়ি দেয়ার সুযোগ রয়েছে। তরুণকে জেলা পরিষদ থেকে ঘর দিতে চেয়েছিলাম, ফিরিয়ে দিয়েছেন। বলেছেন, তার থেকেও নাকি অনেক গরিব এলাকায় রয়েছেন।

তরুণ বিশ্বাস ১৯৮৩ সালে প্রথম পঞ্চায়েত সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তারপর থেকে নির্বাচনে তিনি কখনো হারেননি। তৃণমূলের সঙ্গে সম্পর্ক দলের জন্মলগ্ন থেকে। তবে এলাকার ডান-বাম সকলের কাছেই তিনি জনপ্রিয়। এই পঞ্চায়েত সদস্য বলেন, মানুষের জন্য কাজ করি। তাই আমাকে সবাই ভোট দেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর