ব্রেকিং:
সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে পরিবহন ধর্মঘট,পণ্যের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা! মাদকসহ দুই ব্যবসায়ী আটক গৃহবধূর মৃত্যুতে শ্বশুর বাড়ির লোকজন পলাতক মানব কল্যান সংঘঠনের উদ্যোগে শীতবন্ত্র বিতরণ ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধরা পড়লো প্রতারক দম্পতি! বিদ্যালয়ের মাঠে গণ-কবরের স্মৃতি অনির্বাণ উদ্বোধন ট্রেনের ধাক্কা থেকে অল্পের জন্যে রক্ষা পেল অটোরিকশা তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে স্কুলছাত্র আটক ধর্মীয় বিষয় নিয়ে বিবাদ করা যাবে না জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে পথচারী ও যাত্রীরা গাঁজার বস্তায় ঘুমিয়ে পড়ল মাদকাসক্ত যুবক! দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন মোটরসাইকেল নিয়ে ফেঁসে গেলেন এসআই সাজেকে চান্দের গাড়ির ভাড়া নির্ধারণ দৃশ্যমান হচ্ছে পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার বেড়েছে ডলারের দাম ফোনের স্টোরেজ বাড়াবেন যেভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য নেদারল্যান্ডের ৩৯ লাখ পাউন্ড অনুদান ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সক্ষম কাঁচা মরিচ! র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমকে হাইকোর্টে তলব

বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৭২৪

বাঁচতে চায় বিরল রোগে আক্রান্ত মোস্তাকিম

প্রকাশিত: ৩ নভেম্বর ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া উপজেলার দক্ষিণ ইউনিয়নের হীরাপুর দক্ষিণ পাড়া গ্রামের দরিদ্র  নজরুল ইসলাম বিকাশ(২৫) পেশায় একজন রিক্সা চালক। থাকেন ছোট্ট একটি নড়বড়ে টিনের ঘরে। তবুও স্ত্রী ও দুই সন্তানকে নিয়ে রিক্সা চালানোর আয় দিয়ে বেশ ভালোই চলছিলো তাদের ছোট্ট সুখের সংসার। এখন বড় সন্তান মোস্তাকিমের বিরল রোগই যেন তাদের সকল সুখ কেড়ে নেবার কারণ। প্রায় ৫ বছর ধরেই মোস্তাকিমের পুরো শরীরে দেখা দেয় চুলকানি। একসময় চুলকাতে চুলকাতে সারা শরীরের মাংসে দেখা দেয় ক্ষত। হাত ও পায়ে দেখা দেয় বুড়ো মানুষদের মতো চামড়া জমে যাওয়া।

রিক্সা চালিয়ে নজরুল যা কিছু জমা করে ছিলেন সবই শেষ করেছেন বড় ছেলে মোস্তাকিম কে বাচাঁতে। কুমিল্লা-ঢাকা সহ বেশ কয়েকজন ডাক্তার দেখানোর পর প্রায় ১৫ টি পরিক্ষা করানোর পরেও ডাক্তার বলতে পারছেনা এ রোগের নাম। খরচ হয়েছে জীবনের সব সঞ্চয়। এখন মোস্তাকিমের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন অনেক টাকা। তার শরীরে চুলকাতে চুলকাতে যখন শিশুটি কেঁদে ওঠে তখন যেন মা-বাবার বুক ফেটে যায় এনময় এক হৃদয় বিদারক সময় যাচ্ছে তাদের।

শিশুটির মা শারমিন আক্তার কেঁদে কেঁদে বলেন, আমার এই ছেলেটির শরীরের চুলকানি শুরু হয় প্রায় ৫ বছর আগে। এর পর থেকে ধীরে ধীরে এ রোগটি তার সারা শরীরে ছড়িয়ে পরে। চুলকানের সময় ওর কান্না দেখলে আমার বুকটা ফেটে যায়। আমি কি করবো বুঝতে পারছিনা। আমাদের যা কিছু ছিলো সব কিছু দিয়েও ওর চিকিৎসা কার্য সম্পন্ন করতে পারিনি। আমরা দেশবাসীর কাছে আমার সন্তানকে বাচাঁতে সাহায্য চাইছি।

শিশু মোস্তাকিমের বাবা নজরুল ইসলাম বিকাশ বলেন,   আমার ছেলেটির রোগের নাম কোন ডাক্তারই বলতে পারেননি। ডাক্তার বলেছে আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকার কোন ভালো হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। আমি এমনিতেই ওর চিকিৎসার জন্য অনেক মানুষের কাছ থেকে ধার করে টাকা এনেছি। এখন আমি কি আমার কিডনি বিক্রি করে ওর চিকিৎসা করবো আমি বুঝতে পারছিনা। দেশের বিত্তবানরা আমাকে সাহায্য করুন আমার এ অবুঝ শিশুটিকে বাচাঁতে, আমি আপনাদের কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকবো।

যোগাযোগঃ মোস্তাকিমের মা- ০১৬৪৬-২৬২৪৩৬

বিকাশ নাম্বারঃ পার্সোনাল ০১৯৮৩-০৭৩১৪৫

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর