ব্রেকিং:
আজিজুল হকের মায়ের মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের শোক সরকারি নির্মাণাধীন বাসগৃহ পরিদর্শন করেন ইউএনও মৎস্য ব্যবসায়ীদের বাজার বর্জন বাজার ব্যবস্থাপনা ও সংস্কার কাজ পরিদর্শন আকস্মিক কলেজ পরিদর্শনে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী মধ্যযুগীয় কায়দায় গৃহবধুকে নির্যাতন অতঃপর ৯৯৯-এ ফোন কোচিং বাণিজ্যে ব্যস্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা রেললাইনের পাশ থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার মাদক সেবন ও বিক্রির দায়ে মা-ছেলের কারাদণ্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কওমী মাদরাসার সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত সুদমুক্ত ঋণ দিল বসুন্ধরা ফাউন্ডেশন সেচ প্রকল্পের খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ ও ময়লার স্তুপ! আত্মসমর্পণ করবেন অর্ধশতাধিক ইয়াবা ব্যবসায়ী সিনহাসহ ১১ জনকে হাজির হতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির নির্দেশ ভুয়া কাবিননামায় লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র গরু ব্যবসায়ীর টাকা হাতিয়ে নিয়ে ফেঁসে গেলেন এসআই মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দৈনিকে বাংলাদেশি শিশু আইমানের আবিষ্কার! ‘দুর্নীতিবাজ মানুষকে আগে ক্ষমা চাইতে হবে’ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বরগুলোর রহস্য জেনে নিন অস্ত্রের মুখে অপহরণের পর নারীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

শুক্রবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১০ ১৪২৬   ২৮ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

১৪০

ফোন তুলেই ‘হ্যালো’ বলার রহস্য জানলে অবাক হবেন

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৯  

টেলিফোন বিজ্ঞানের এক বিস্ময়কর আবিষ্কার। আর বিভিন্ন পথ অতিক্রম করে আজকের এই মোবাইল ফোন। আর এর পথপ্রদর্শক টেলিফোন। টেলিফোন আবিষ্কারের কথা কম-বেশি সবারই জানা। কিন্তু ফোন তুলেই হ্যালো বলার রহস্য অনেকেরই অজানা।

আলেক্সান্ডার গ্রাহাম বেল স্কটল্যান্ডের এডেনবার্গে ১৮৪৭ সালের ৩ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন এবং ১৯২২ সালের ২ আগস্ট মৃত্যুবরণ করেন। জীবদ্দশায় তিনি বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় তার প্রতিভার ছাপ রেখেছেন। যা মানব কল্যাণের ইতিহাসে স্মরণীয় থাকবে। এর মধ্যে টেলিফোন অন্যতম।

গ্রাহাম বেলের মা এবং স্ত্রী দুজনেই ছিলেন বধির। এ সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য তিনি শ্রবণশক্তি সম্পর্কিত ডিভাইস নিয়ে কাজ করেন। এরই এক পর্যায়ে তিনি টেলিফোন অবিষ্কার করেন।

আজকাল আমরা রিসিভার তুলেই ‘হ্যালো’ বলে সম্বোধন করি অপরপ্রান্তে থাকা বাবা-মা, ভাইবোন, স্বামী-স্ত্রী, বন্ধুদের সঙ্গে। এই ‘হ্যালো’ শব্দটি কেন বলি বা এর উৎপত্তি কোথায় বা কখন থেকে কীভাবে হ্যালো বলা শুরু তা হয়তো আমরা অনেকেরই জানা নেই।

‘হ্যালো’ একটি মেয়ের নাম, পুরো নাম মার্গারেট হ্যালো। তিনি ছিলেন আলেক্সান্ডার গ্রাহাম বেলের গার্লফ্রেন্ড। টেলিফোন আবিষ্কার করে গ্রাহাম বেল  টেলিফোনে প্রথম যে কথাটি বলেন, তা হলো ‘হ্যালো’। সেই থেকেই হ্যালো শব্দটি বিশ্বজুড়ে টেলিফোন ব্যবহারকারীদের কাছে একটি প্রিয় শব্দ।

মানুষ গ্রাহাম বেলকে ভুলে গেলেও কিন্তু তার ভালোবাসার মানুষটিকে ভুলেনি। টেলিফোন নামক যন্ত্রটি যতদিন থাকবে ততদিন মার্গারেট হ্যালো বেঁচে থাকবেন মানুষের মুখে মুখে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর