ব্রেকিং:
সবজি বেচেই চলে সংসার প্রশাসনের তৎপরতায় বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেল তিন স্কুলছাত্রী ৫০০০ মিটার দৌঁড়ে বিশ্ব রেকর্ড ৯৬ বছরের বৃদ্ধের! আর্থিক সহায়তা পেতেই ট্রাম্পের কাছে মিথ্যাচার করলো প্রিয়া সাহা! কারাগারে মিন্নি মিয়ানমারের উপর যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা পর্যাপ্ত নয়: জাতিসংঘ বদলি খেলোয়াড় নামানোর নতুন নিয়ম চালু আইসিসির বাংলাদেশ-ভারত-ভুটান বাণিজ্যে নবযাত্রার সূচনা জাতীয় মৎস্য পুরস্কারে স্বর্ণপদক পেল নৌবাহিনী ওষুধের পাতায় মেয়াদ-মূল্য স্পষ্ট থাকতে হবে: হাইকোর্ট জিম্বাবুয়েকে বহিষ্কার করল আইসিসি রোহিঙ্গা নির্যাতন: আইসিসি’র অনুমতি পেলে তদন্তে নামবে দল ক্রিকইনফোর একাদশেও সাকিব, নেই কোহলি রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিবের উদ্বেগ রিফাত হত্যায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে মিন্নি জেলা হাসপাতালগুলো দালালমুক্ত করার নির্দেশ জঙ্গি-চরমপন্থীদের আবির্ভাব যেন না হয়: ডিসিদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মাছ উৎপাদনে আমরা প্রথম হতে চাই: প্রধানমন্ত্রী নয়ন বন্ডের ঘনিষ্ঠ রিশান ফরাজী গ্রেফতার ক্রাইস্টচার্চে নিহতদের স্বজনদের হজ করাবে সৌদি

রোববার   ২১ জুলাই ২০১৯   শ্রাবণ ৫ ১৪২৬   ১৮ জ্বিলকদ ১৪৪০

১৫০

ফল খেয়ে মাতাল বন্যপ্রাণী!

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

বনের ফল-মূল খেয়েই বেঁচে থাকে অনেক প্রাণী। তাছাড়া বনের আশেপাশের মানুষও সেইসব ফল খায়। কিন্তু বনের ফল খেয়ে মাতাল হওয়া কি সম্ভব? হ্যাঁ, এই অসম্ভব কাজটি হয়েছে বন্যপ্রাণীদের সঙ্গে। চলুন জেনে নেয়া যাক মাতাল হওয়া এক ফলের কথা-

পৃথিবীতে এমন এক ফল রয়েছে, যা খেলে আর স্বাভাবিক জীবন থাকে না বন্যপ্রাণীর। বেশি দূরে নয়, এমন ফলের সন্ধান পাওয়া গেছে আফ্রিকায়। আফ্রিকার সাভান্না নামক অঞ্চলে রয়েছে এ ফল। সেখানে ‘মারুলা’ নামের এক ধরনের ফল পাওয়া যায়। বনের ওই পাকা ফলটিতে প্রচুর ভিটামিন সি ও প্রোটিন থাকে। ফলে সাভান্না অঞ্চলের মানুষসহ বিভিন্ন প্রাণীর খাবার হিসেবে ফলটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ফলটিতে প্রচুর সুগার থাকায় মাটিতে পড়ার অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই পচে যায়। পচে যাওয়ার কারণে ফলটির ভেতরে প্রচুর অ্যালকোহল তৈরি হয়।

বন্যপপ্রাণীগুলো এসব পচে যাওয়া ফল খেয়ে সহজেই মাতাল হয়ে যায়। এমনকি পাখি থেকে শুরু করে পোকামাকড়ও মাতাল হয়ে যায়। তখন আর তারা ঠিকভাবে হাঁটতে পারে না। হেলে দুলে কিছুদূর যাওয়ার পরে মাটিতে পড়ে যায়। উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। অবশেষে রাত নেমে এলে বনের চারিদিকে গভীর নিস্তব্ধতা নেমে আসে। প্রাণীরা যে যেখানে জায়গা পায়, সেখানেই লম্বা একটি প্রশান্তির ঘুম দেয়। পরদিন সকালে ঘুম ভাঙার পর এসব প্রাণী হয়তো বুঝতেই পারে না, গতকাল তাদের মধ্যে কী ঘটেছিল। এভাবেই আবার কিছুক্ষণ চলে স্বাভাবিক জীবন। পরক্ষণেই ফল খেয়ে মাতাল হয়ে যায় প্রাণীগুলো। এভাবেই চক্রাকারে চলে তাদের মাতাল জীবন।  

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর