ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১১ শাওয়াল ১৪৪১

৩২৫

ফল খেয়ে মাতাল বন্যপ্রাণী!

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১১ জুলাই ২০১৯  

বনের ফল-মূল খেয়েই বেঁচে থাকে অনেক প্রাণী। তাছাড়া বনের আশেপাশের মানুষও সেইসব ফল খায়। কিন্তু বনের ফল খেয়ে মাতাল হওয়া কি সম্ভব? হ্যাঁ, এই অসম্ভব কাজটি হয়েছে বন্যপ্রাণীদের সঙ্গে। চলুন জেনে নেয়া যাক মাতাল হওয়া এক ফলের কথা-

পৃথিবীতে এমন এক ফল রয়েছে, যা খেলে আর স্বাভাবিক জীবন থাকে না বন্যপ্রাণীর। বেশি দূরে নয়, এমন ফলের সন্ধান পাওয়া গেছে আফ্রিকায়। আফ্রিকার সাভান্না নামক অঞ্চলে রয়েছে এ ফল। সেখানে ‘মারুলা’ নামের এক ধরনের ফল পাওয়া যায়। বনের ওই পাকা ফলটিতে প্রচুর ভিটামিন সি ও প্রোটিন থাকে। ফলে সাভান্না অঞ্চলের মানুষসহ বিভিন্ন প্রাণীর খাবার হিসেবে ফলটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ফলটিতে প্রচুর সুগার থাকায় মাটিতে পড়ার অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই পচে যায়। পচে যাওয়ার কারণে ফলটির ভেতরে প্রচুর অ্যালকোহল তৈরি হয়।

বন্যপপ্রাণীগুলো এসব পচে যাওয়া ফল খেয়ে সহজেই মাতাল হয়ে যায়। এমনকি পাখি থেকে শুরু করে পোকামাকড়ও মাতাল হয়ে যায়। তখন আর তারা ঠিকভাবে হাঁটতে পারে না। হেলে দুলে কিছুদূর যাওয়ার পরে মাটিতে পড়ে যায়। উঠে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। অবশেষে রাত নেমে এলে বনের চারিদিকে গভীর নিস্তব্ধতা নেমে আসে। প্রাণীরা যে যেখানে জায়গা পায়, সেখানেই লম্বা একটি প্রশান্তির ঘুম দেয়। পরদিন সকালে ঘুম ভাঙার পর এসব প্রাণী হয়তো বুঝতেই পারে না, গতকাল তাদের মধ্যে কী ঘটেছিল। এভাবেই আবার কিছুক্ষণ চলে স্বাভাবিক জীবন। পরক্ষণেই ফল খেয়ে মাতাল হয়ে যায় প্রাণীগুলো। এভাবেই চক্রাকারে চলে তাদের মাতাল জীবন।  

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর