ব্রেকিং:
জলাতঙ্ক নির্মূলে মানুষের পাশাপাশি কুকুরকেও ভ্যাকসিন দেওয়া হচ্ছে করোনা ভাইরাস নিয়ে আখাউড়া স্থলবন্দরে সতর্কতা অবলম্বন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শিক্ষকের উপর হামলা, শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ প্রধানমন্ত্রীর কাছে সন্তানহারা মায়ের আকুতি জলাতঙ্ক নির্মূলে কুকুরকে টিকাদান কার্যক্রম শুরু ৩০ জানুয়ারি বোর্ড পরীক্ষায় সফলতার বিকল্প নেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গাঁজাসহ এক নারী ধরা আখাউড়ায় অর্ধশতাধিক স্থাপনা উচ্ছেদ সিটি নির্বাচন: দুই হাজার মণ পলিথিন বর্জ্য তৈরির শঙ্কা নবীনগরে চলছে কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা ভাইরাসবাহী সন্দেহে বাংলাদেশীকে ফেরত পাঠালো ভারত একমাত্র ছেলের ছবি বুকে জড়িয়ে রাস্তায় মা মরদেহ আনতে আখাউড়া বর্ডারে হাজার হাজার মানুষ লেবাননে সড়ক দুর্ঘটনায় কসবায় শোকের মাতম প্রতিবন্ধিতা ও বৈষম্যহীন স্বদেশ, কুষ্ঠমুক্ত হোক আমাদের বাংলাদেশ জমে উঠেছে নবীনগর শিক্ষক সমিতির নির্বাচন অটোরিকশা চার্জ দিতে গিয়ে কিশোরের মৃত্যু আখাউড়ায় মাদকসহ ব্যবসায়ী আটক লুকানো গাঁজাসহ মামা-ভাগিনা আটক অসহায় শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ

মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৫ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

৩৮

‘প্রত্যাবাসনের বিপক্ষে প্রচারণা চালালে ব্যবস্থা’

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২২ আগস্ট ২০১৯  

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের বিপক্ষে যেসব বেসরকারি বিদেশি উন্নয়ন সংস্থা প্রচারণা চালাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন।

বুধবার সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কক্সবাজারের শিবিরগুলোতে প্রচারণা চালানো হচ্ছে যাতে রোহিঙ্গারা ফিরে না যায়। শিবিরগুলোতে লিফলেটও বিতরণ করা হচ্ছে। লিফলেটগুলোতে বলা হচ্ছে পাঁচটি দাবি না মানলে রোহিঙ্গারা ফেরত যাবে না। মিয়ানমারে ফেরত না গেলে রোহিঙ্গারা নিজেদের ভবিষ্যৎ খারাপ করবে। তারা দেশের শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হবে। আর কিছুদিন পর বিদেশিরা সাহায্য কমিয়ে দিলে তারা নানা ভোগান্তিতে পড়বে। আমরা কতো খরচ করবো?

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন আজ বৃহস্পতিবার থেকেই শুরু হবে আশা করে তিনি বলেন, ছেলে-মেয়েদের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে রোহিঙ্গাদের ফেরত যাওয়া উচিৎ। মিয়ানমার বলেছে, দেশটির কর্তৃপক্ষ রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠিকে নিরাপত্তা ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করবে। সেখানে আর কোন ঝামেলা থাকবে না।

তিনি বলেন, নিজ দেশে ফিরে না গেলে তারা ভুল করবে। ‌যারা মিয়ানমারে ফিরে যেতে চাইবেন না তাদেরকে নোয়াখালীর ভাসানচরে পাঠিয়ে দেয়া হবে।

রোহিঙ্গাদের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি উল্লেখ করে মন্ত্রী আরো বলেন, মিয়ানমার তাদের নাগরিকদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে। তাদের জন্য বাড়িঘরও তৈরি করেছে।

এদিকে মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জো এইচটে জানান, প্রথম ধাপে ৩ হাজার ৪৫০ জন রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারে ফিরিয়ে আনা হবে। দুই দেশের সম্মতিতেই প্রত্যাবাসন শুরু হতে যাচ্ছে। তবে স্থানীয় সাংবাদিকরা জানাচ্ছে, প্রত্যাবাসনের তালিকায় থাকাদের মধ্যে মাত্র ১০০ জনের মতো রোহিঙ্গা ফিরে যেতে রাজি হয়েছে। বাকিরা ফিরে যেতে চাচ্ছে না। 

ফেরত না যেতে চাওয়া রোহিঙ্গাদের দাবি; মিয়ানমারে তাদের থাকার পরিবেশ নেই। এই দাবির পক্ষে, জাতিসংঘসহ যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য এবং কানাডার সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরাও জানিয়েছেন, প্রত্যাবাসনের জন্য কোনো অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করেনি মিয়ানমার। রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মিয়ানমার সরকার আন্তরিক নয়।
 
উল্লেখ্য, বাংলাদেশের একাধিক শিবিরে মিয়ানমারের নাগরিক প্রায় ১২ লাখ রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর