ব্রেকিং:
সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে পরিবহন ধর্মঘট,পণ্যের দাম বৃদ্ধির পাঁয়তারা! মাদকসহ দুই ব্যবসায়ী আটক গৃহবধূর মৃত্যুতে শ্বশুর বাড়ির লোকজন পলাতক মানব কল্যান সংঘঠনের উদ্যোগে শীতবন্ত্র বিতরণ ফেসবুক স্ট্যাটাসে ধরা পড়লো প্রতারক দম্পতি! বিদ্যালয়ের মাঠে গণ-কবরের স্মৃতি অনির্বাণ উদ্বোধন ট্রেনের ধাক্কা থেকে অল্পের জন্যে রক্ষা পেল অটোরিকশা তিন শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে স্কুলছাত্র আটক ধর্মীয় বিষয় নিয়ে বিবাদ করা যাবে না জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলছে পথচারী ও যাত্রীরা গাঁজার বস্তায় ঘুমিয়ে পড়ল মাদকাসক্ত যুবক! দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন মোটরসাইকেল নিয়ে ফেঁসে গেলেন এসআই সাজেকে চান্দের গাড়ির ভাড়া নির্ধারণ দৃশ্যমান হচ্ছে পদ্মা সেতুর আড়াই কিলোমিটার বেড়েছে ডলারের দাম ফোনের স্টোরেজ বাড়াবেন যেভাবে রোহিঙ্গাদের জন্য নেদারল্যান্ডের ৩৯ লাখ পাউন্ড অনুদান ক্যানসারের বিরুদ্ধে লড়তে সক্ষম কাঁচা মরিচ! র‌্যাবের ম্যাজিস্ট্রেট সারোয়ার আলমকে হাইকোর্টে তলব

বুধবার   ২০ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৫ ১৪২৬   ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৮৫

প্রকাশ্যে গলার হার নিয়ে গেল সংঘবদ্ধ চক্র

প্রকাশিত: ৮ নভেম্বর ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পঞ্চাশোর্ধ এক নারীর গলা থেকে অভিনব কায়দায় প্রকাশ্যে দেড় ভরি ওজনের একটি সোনার চেইন চুরি (!) করে পালিয়ে গেছে একদল সংঘবদ্ধ চক্র। বৃহস্পতিবার সকালে সংঘটিত এই ঘটনা সিসি ক্যামেরায় দেখার পর এ নিয়ে হাসপাতালে তোলপাড় শুরু হয়।

জানা গেছে, উপজেলার জিনোদপুর ইউনিয়নের মালাই মেরকুটা গ্রামের আবদুল ওয়াহেদ মিয়ার স্ত্রী হোসনে আরা (৫৫) বৃহস্পতিবার সকালে তার বোনের মেয়ে অসুস্থ সখিনাকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে (সরকারি হাসপাতাল) আসেন। পরে সখিনাকে হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে হোসনে আরা ওষুধ নেওয়ার জন্য নীচ তলার টিকেট কাউন্টারের লম্বা লাইনে এসে দাঁড়ান।

সিসি ক্যামেরায় ধারণ হওয়া দৃশ্যে দেখা যায়, সকাল ১০-১৭ মিনিটে চারজন বোরখা পরিহিতা নারী হোসনে আরার সামনে, পেছনে ও ডানে বাঁয়ে দাঁড়িয়ে যায়। এরপর মাত্র ৬ মিনিটের মধ্যে ওই সংঘবদ্ধ চার সদস্যের নারী চোর দলের সদস্যরা অত্যন্ত সুকৌশলে লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা হোসনে আরার গলা থেকে অর্ধ লক্ষাধিক টাকা মূল্যের প্রায় দেড় ভরি ওজনের সোনার চেইনটি খুলে নিতে দেখা যায়।

ভিডিও ফুটেজের দৃশ্যে দেখা যায়, চেইনটি গলা থেকে খুলে নেওয়ার পর ওই চার নারী চোর একে একে লাইন থেকে ধীরে ধীরে সটকে পড়ছেন।

ঘটনার প্রায় আড়াই মিনিট পর হোসনে আরা তার গলা থেকে সোনার চেইনটি চুরি হওয়ার বিষয়টি বুঝতে পেরে কাঁদতে থাকেন। এ সময় পুরো হাসপাতালে সোনার চেইন চুরি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। তিনি বিষয়টি পরে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে অবগত করেন।

এ বিষয়ে হোসনে আরা কান্নাজড়িত কণ্ঠে এ প্রতিবেদককে বলেন, বিদেশে থাকা আমার ছেলে মাত্র দুমাস আগে দেড় ভরি ওজনের সোনার চেইনটি আমাকে দেয়। দিনের বেলায় সরকারি হাসপাতাল থেকে আমার চেইন কেউ নিয়ে যাবে, এটি আমি এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) হাবিবুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে কালের কণ্ঠকে বলেন, সিসি ক্যামেরায় চুরির পুরো ঘটনাটি ধারণ করা আছে। পুলিশের সহযোগিতায় দ্রুত এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর