ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • শনিবার   ৩০ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৬ শাওয়াল ১৪৪১

১২১

পৌর নির্বাচনে বিএনপিকে নিয়ে সমালোচনার ঝড়

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১০ অক্টোবর ২০১৯  

নবীনগর প্রতিনিধি: আগামী ১৪ অক্টোবর নবীনগর পৌরসভার নির্বাচন। নিবাচনকে ঘিরে নবীনগর বিএনপি কোন পথে হাটছে। বিএনপির ধানের শীষ’ দলীয় প্রতীকে প্রার্থী থাকার পরও বিএনপি ঘরানার আরো তিনজন প্রার্থী ‘মেয়র’ পদে নির্বাচন করছেন। বিএনপির সহ সভাপতি ও বতমান মেয়র মাইন উদ্দিন ও বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাবেক পৌর মেয়র মো মলাই মিয়া, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রদল নেতা ফারুক আহমেদ কে বাদ দিয়ে অন্যজন কে মনোনয়ন দেন এমন অবস্থায় বিএনপিসহ সাধারণ ভোটারদের মুখে মুখে আলোচিত হচ্ছে বিএনপির নিবাচনী অবস্থান নিয়ে।

জানা গেছে, ১৯৯৯ সালে গঠিত নবীনগর পৌরসভায় ২০০৩ সালের জানুয়ারি থেকে ২০০৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত নবীনগর থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মলাই মিয়া পৌর প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর ২০১৪ সালের অক্টোবর মাসে নবীনগর পৌরসভার প্রথম নির্বাচনে নবীনগর থানা বিএনপির সহসভাপতি বর্তমান মেয়র মোহাম্মদ মাঈন উদ্দিন মাইনু মেয়র নির্বাচিত হন।

কিন্তু এবারের পৌর নির্বাচনে বিএনপি থেকে ধানের শীষ প্রতীকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয় নবীনগর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ধনাঢ্য ব্যবসায়ী হাজী মো. শাহাবুদ্দিনকে। এ অবস্থায় বিএনপি নেতা বর্তমান মেয়র মাইনু বিক্ষুব্ধ হয়ে বিএনপি থেকে পদত্যাগ করে ‘মোবাইল’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।

অন্যদিকে নবীনগর থানা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর প্রশাসক মো. মলাই মিয়াও এবার ‘জগ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। পাশাপাশি নবীনগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক ছাত্রদল নেতা ফারুক আহমেদ ‘নারিকেল গাছ’ প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। এ অবস্থায় বিএনপি এবারের নির্বাচনে মেয়র পদটি শেষ পর্যন্ত তাদের দখলে ধরে রাখতে পারবেন কিনা; সেটি নিয়ে খোদ বিএনপিসহ স্থানীয় বিভিন্ন মহলে এখন আলোচনা হচ্ছে। প্রশ্ন উঠছে, বিএনপি কি পারবে ‘মেয়র’ পদটি পূনউদ্বার করতে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি সমর্থিত একাধিক স্থানীয় সাধারণ ভোটাররা জানান, বিএনপির তিন স্বতন্ত্র প্রার্থীর কারনে এবার ধানের শীষের ব্যাপক ক্ষতি হবে। তাই সম্মিলিতভাবে বিএনপির একজন প্রার্থী হলে বিএনপির বিজয় শতভাগ সুনিশ্চিত হতো। বিএনপির তিন প্রথীকে এক করতে বিএনপির উদ্যেগ নিয়ে ও আলোচনা সমালোচনা হচ্ছে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর