ব্রেকিং:
কসবায় ভিজিডি কার্ডের চাউল বিতরণ মাদক বিরোধী অভিযানে আটক তিন কারা থাকছে আখাউড়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে সুশাসনের জন্য দুর্নীতিই প্রধান অন্তরায় সরাইলে অপপ্রচার নিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ বিএনপি নেতা দুদুর বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা বিএনপি’র পকেট কমিটি বাতিলের দাবীতে বিক্ষোভ ও ঝাঁড়ু মিছিল ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত মুসলিম যাত্রী থাকায় আমেরিকান এয়ারলাইনসের ফ্লাইট বাতিল নির্ধারিত সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী ব্যাংক নোটের আদলে বিল ব্যবহারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হুঁশিয়ারি তিন স্পা সেন্টার থেকে ১৬ নারী ও ৩ পুরুষ আটক দেশে বেড়েই চলেছে ইন্টারনেটের গ্রাহক সংখ্যা শাবিপ্রবি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিনের অনিয়ম ও দুর্নীতির শ্বেতপত্র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সরকারের উদ্যোগের ঘাটতি নেই ক্যাসিনো চালাতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তেল স্থাপনায় হামলার প্রতিশোধ নেবে সৌদি আরব অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করছে আওয়ামী লীগ মাদক ব্যবসায়ীদের চেনার উপায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১১ জন খেলাঘরের জাতীয় পরিষদে

সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৮ ১৪২৬   ২৩ মুহররম ১৪৪১

১৪

নোয়াখালীর বাসিন্দা পরিচয় দেয়া তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

পালিয়ে তুরস্ক যাওয়ার প্রস্তুতি নেয়ার সময় চট্টগ্রামের আকবরশাহ এলাকা থেকে বাংলাদেশি পাসপোর্টসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার হয়েছে। এদিকে বায়েজিদ এলাকা থেকে বাংলাদেশি জাতীয় পরিচয়পত্রসহ গ্রেফতার হয়েছেন আরো চারজন। মোবাইল সিম ব্যবহারসহ বিনা বাধায় রোহিঙ্গারা পাসপোর্ট করেছিলো বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের আকবরশাহ এলাকা থেকে ইউসুফ, মুসা এবং আজিজ নামে ৩ যুবককে আটক করা হয়। তাদের কাছ থেকে ৩টি পাসপোর্ট জব্দ করা হয়। 

প্রথমে তারা নিজেদের নোয়াখালীর বাসিন্দা বলে দাবি করলেও পরে রোহিঙ্গা বলে স্বীকার করে। তারা জানায়, তুরস্ক দূতাবাসে যাচ্ছিলো ভিসা নিতে। রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট পাইয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে সহযোগিতাকারী ৪ জন দালালের নামও পেয়েছে পুলিশ।

সিএমপি’র আকবরশাহ থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, তারা বাংলাদেশি পাসপোর্ট দিয়ে তুরস্কের ভিসা আবেদন করে সেখানে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ইউরোপের একটি রোহিঙ্গা সংগঠনের সঙ্গে তারা যোগাযোগ করেছিলেন। তাদের পরিবারের সকল সদস্যের কাছে বাংলাদেশি মোবাইল সিমকার্ড রয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা বলেছেন, ক্যাম্প থেকেই তারা এই সিমগুলো কিনেছেন।

একই সময় বায়েজিদ থানা পুলিশ বামা্ কলোনী থেকে এনআইডি কার্ডসহ আরো ৪ রোহিঙ্গাকে আটক করে। এরমধ্যে ৩ জন নারী এবং ১জন পুরুষ। নিধারিত ক্যাম্প ছেড়ে চট্টগ্রামে আসার ব্যাপারে তারা কোনো সুনির্দিষ্ট কারণ জানাতে পারেনি।

বায়োজিদ থানার ওসি আতাউর রহমান খন্দকার বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে তাদের কাছ থেকে কোনো সন্তোষজনক উত্তর পাইনি। একবার বলছেন, বেড়াতে এসেছি, আরেকবার বলছেন, এখানে থাকতে এসেছি।

পাসপোর্ট এবং এআইডিসহ ৭ রোহিঙ্গাকে আটকের ঘটনায় পুলিশের পক্ষ থেকে পৃথক দু'টি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এর আগে বৃহস্পতিবার বিকালে পাসপোর্ট করাতে এসে বিভাগীয় পাসপোর্ট কার্যালয় থেকে এক রোহিঙ্গা যুবককে আটক করা হয়েছিলো।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর