ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • মঙ্গলবার   ১৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩০ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

৭২৯

ড্রেজার ব্যবহারে হুমকীর মুখে মহাসড়ক

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৩ অক্টোবর ২০১৯  

বছরের পর বছর ধরে চলছে হাইকোর্ট কর্তৃক নিষিদ্ধ হ্যান্ড ড্রেজার ব্যবহার করে ফসলি জমি খনন। জমির গভীর তলদেশে পাইপ বসিয়ে উত্তোলন করা হচ্ছে বালি। প্রতিদিন ৪টি ড্রেজার বসিয়ে ৩ থেকে ৪ হাজার ফুট বালু উত্তোলণ করে মাসে কয়েক কোটি টাকার বালু বিক্রি করছে একটি প্রভাবশালী মহল। এতে প্রায় ৬ হেক্টর ফসলি জমি বিনষ্ট হয়েছে। হরহামেশাই বালু তোলায় আশে পাশে জমির মাটি ধ্বসে পড়ছে। হুমকীর মুখে পড়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক। 

জমির পাশে অবস্থিত ৩৩ কেভি বৈদ্যুতিক খুঁটিও যে কোন সময় ধ্বসে পড়তে পারে। গত ৫ বছর ধরে অবিরাম চলছে ড্রেজার দিয়ে জমির নীচ থেকে বালু উত্তোলন। কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার তিনলাখ পীর এলাকায় সৈয়দাবাদ গ্রামে চলছে ভয়াবহ এ ড্রেজিং কাজ। 

প্রভাবশালী একটি মহল জমির মধ্যে পাইপ বসিয়ে বালি উঠাচ্ছে। এতে ফসলি জমি তো বটেই আশপাশের বাড়িঘরও ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। সরকারী দলীয় কতিপয় নেতাকর্মীরা রাস্তার পূর্বপাশে সরকারি খাস জমি ও ব্যক্তি মালিকানার ২৫ বিঘা ফসলি জমির নীচ থেকে অর্ধশত ফুট গভীর করে অবৈধ ড্রেজার দিয়ে একটি প্রতিষ্ঠানের বালি নেয়া হচ্ছে। 

এদিকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের প্রতিবাদে মঙ্গলবার এলাকাবাসী বিক্ষোভ করেছে। পরে মানববন্ধন করে। এ সময় সংক্ষিপ্ত এক সভায় ফসলি জমি থেকে বালি উত্তোলণ বন্ধ করে জমি রক্ষার দাবি জানানো হয়। 

এ ব্যাপারে কসবা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে ভুক্তভোগীরা প্রতিকার চেয়ে আবেদন করলেও কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না বলে তারা জানান। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাসুদ উল আলম জানান,  ইতিপূর্বে বেশ কয়েকবার ড্রেজার জব্দ করা হয়েছে। কিন্তু কাজ হয়নি। শিগগিরই আমরা কঠিন ব্যবস্থা গ্রহণ করব।  

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর