ব্রেকিং:
সুষ্ঠু ও নকলমুক্ত পরিবেশে জেএসসি পরীক্ষা সম্পন্ন দিপা হত্যার রহস্য উদঘাটন ট্রেন দুর্ঘটনায় অনেকের দোষ পেয়েছে তদন্ত কমিটি নির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরগণের দায়িত্ব গ্রহণ লাগামহীন পেঁয়াজের বাজার ভুল চিকিৎসায় প্রসূতির মৃত্যু ঝুঁকিপূর্ণ সিলেট-আখাউড়া রেলপথ! কোরআন-হাদিসে জুমা’র গুরুত্ব ও তাৎপর্য যুবলীগের বয়সসীমা শিথিলের সম্ভাবনা নেই পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করার উপায় রেসলার ও হলিউড অভিনেতা রক মারা গেছেন! রোহিঙ্গা নির্যাতনের তদন্তে অনুমোদন দিলো আইসিসি কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক বরখাস্ত রোহিঙ্গার শপিং ব্যাগে মিলল ৪৯ লাখ টাকার ইয়াবা ‘জঙ্গি দমনে পুলিশের ভূমিকা ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে’ ট্রেন দুর্ঘটনার সাহসী সেই পাঁচ যুবক সন্তানের মা হলেন সেই প্রতিবন্ধী ধর্ষিতা পাল্টে গেছে সরাইল বিশ্বরোড মোড়ের দৃশ্যপট! নিয়মিত হাঁটুন সুস্থ থাকুন! ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে কাতারে দোয়া মাহফিল

শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৭১৫

ট্রেনের গার্ডকে মারধর, এসআই প্রত্যাহার

প্রকাশিত: ২৯ অক্টোবর ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ট্রেনের পরিচালককে (গার্ড) মারধরের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় কসবা থানার এসআই মো. কামাল হোসেনকে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। 

রোববার রাতে উপজেলার ইমামবাড়ি রেলওয়ে স্টেশনে মারধরের ঘটনা ঘটে। আহত গার্ড মো. মহিউদ্দিন কুমিল্লায় চিকিৎসা নিচ্ছেন। এ ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

হামলার শিকার মো. মহিউদ্দিন জানান, রোববার রাত ৩ টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া থেকে ট্রেনটি ছেড়ে ইমামবাড়ি রেলওয়ে স্টেশনে অনির্ধারিত যাত্রা বিরতি করে। এ সময় ট্রেনের নিজের বগি থেকে অন্যান্য বগি দেখতে টর্চলাইট জ্বালান তিনি। এতে ক্ষিপ্ত হন দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা। টর্চ লাইটের আলো তাদের চোখে পড়ার অভিযোগ এনে ট্রেনে উঠে মারধর শুরু করেন তারা। এতে তিনি আহত হন। প্রায় এক ঘন্টা পর ট্রেনটি নিয়ে চলে যান তিনি। পরে কুমিল্লায় নেমে হাসপাতালে ভর্তি হন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এএসপি (কসবা সার্কেল) মো. আব্দুল করিম জানান, সড়ক ও বাড়িতে বড় ধরনের ডাকাতির খবরে ইমামবাড়ি এলাকা পুলিশ ঘিরে রাখে। এ সময় দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে ট্রেনের গার্ডের বাগবিতণ্ডা হয়। ওই সময় ঘটনাস্থল থেকে একটু দূরে ছিলেন তিনি। বিষয়টি এসপি ও অতিরিক্ত এসপি তদারকি করছেন। এ ঘটনায় অতিরিক্ত এসপি মো. আলমগীর হোসেনকে প্রধান ও এএসপি (কসবা সার্কেল), জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার ওসিকে সদস্য করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অতিরিক্ত এসপি মো. আলমগীর হোসেন বলেন, এ ঘটনায় এসআই কামালকে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়েছে। ঘটনাটির তদন্ত না করা পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে টর্চ লাইটের আলো নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত বলে জানান তিনি।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর