ব্রেকিং:
আখাউড়ায় বিশেষ অভিযানে ছয় আসামি গ্রেফতার বিয়ের দিন লিচুর চারা রোপণ করলেন বর-কনে স্কুলছাত্রী ধর্ষণ মামলায় দুইজনকে গ্রেফতার শেষ হলো ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সপ্তাহব্যাপী বইমেলা ব্রাহ্মণবাড়িয়া পলিটেকনিকে চিকিৎসকের বিকল্প রোবট আবিষ্কার! জুয়া বন্ধের পূর্ণাঙ্গ রায়ে কোরআনের রেফারেন্স গার্মেন্টস ওয়েস্ট থেকে সেনিটারি প্যাড! বারবার রিফ্রেশে কি কম্পিউটারের গতি বাড়ে? নারী ও শিশুদের রক্ষায় অ্যাপ চালু হচ্ছে: আইজিপি বৃষ্টি নিয়ে দুঃসংবাদ জানালো আবহাওয়া অফিস ইংরেজি উচ্চারণে যারা বাংলা বলে তাদের সমালোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী দেয়ালে আঁকা ছবিতেই ফুল দিলো ৯৯৪ স্কুলের শিক্ষার্থী ভাষা দিবসে বাংলায় রিপোর্ট প্রকাশ করল জাতিসংঘ মুজিববর্ষে চালু হচ্ছে নতুন নতুন শিল্পকারখানা স্কুল জীবনে কলাগাছ দিয়ে শহীদ মিনার বানানোর অনুভূতি বাজার ব্যবস্থাপনা নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মতবিনিময় সভা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অভিনব পন্থায় গাঁজা পাচার ‘নিয়মিত সার পেতে সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক হতে হবে’ ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাজাপ্রাপ্ত আসামি গ্রেফতার অটোরিকশার কারখানা সিলগালা, মালামাল জব্দ
  • শনিবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ||

  • ফাল্গুন ১০ ১৪২৬

  • || ২৭ জমাদিউস সানি ১৪৪১

৩৯৯

টুথব্রাশ ব্যবহারে ভুল করছেন না তো?

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৭ আগস্ট ২০১৯  

টুথব্রাশ যে জীবাণুমুক্ত রাখা প্রয়োজন তা অনেকে মনেই করেন না। দেখা যায় অনেকটা অবহেলায় বাথরুমে রাখা হয় টুথব্রাশ। অথচ এই ব্রাশের মধ্যেই লুকিয়ে থাকে হাজার রকমের জীবাণু, যা দাঁতের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এর কারণে দাঁতে হয়ে থেকে নানা রোগ।

মুখে ঘা হওয়া, মাঁড়ি ফুলে যাওয়া, মাঁড়ি দিয়ে রক্ত পড়া, দাঁত ক্ষয়ে যাওয়া, দাঁতে গর্ত সৃষ্টি হওয়া ইত্যাদি নানা ধরনের সমস্যায় পড়তে হয় ব্রাশে লুকিয়ে থাকা জীবাণুর কারণে। তাই টুথব্রাশ সঠিকভাবে পরিষ্কার ও সংরক্ষণ করা জরুরি।

এ বিষয়ে দন্তবিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী, সবারই ব্যবহার করতে হবে নরম ব্রাশ। কেনার সময় এটা লক্ষ রেখেই ব্রাশ কিনতে হবে। বাসায় যার যার ব্রাশ ভালোভাবে পরিষ্কার করে আলাদা আলাদাভাবে রাখতে হবে। দুইটি ব্রাশ একদম পাশাপাশি না রাখাই ভালো। আর যদি কেউ অন্যের ব্রাশ ভুলক্রমে ব্যবহার করেই ফেলে তাহলে সেটি বাতিল করে দেয়াটাই উত্তম। ব্রাশ রাখতে হবে বাথরুমের বাইরে কোনো সুবিধাজনক স্থানে। বাথরুমের ভেতরের বেসিনে ব্রাশ রাখা একেবারেই অনুচিত।  

কারণ, বাথরুমে থাকে প্রচুর জীবাণু। এসব জীবাণু টুথব্রাশের মাধ্যমে মুখে চলে যায়। এছাড়া, ব্রাশ কখনো প্লাস্টিকের ক্যাপ অথবা টিস্যুর কভারের ভেতরে ভরে রাখা ঠিক না। এতে ব্রাশের আর্দ্রতা সহজে শুকায় না। আর আর্দ্র পরিবেশেই নানা ধরনের জীবাণু বাসা বাঁধার সুযোগ পায়। ব্রাশ ব্যবহারের পর ব্রাশে লেগে থাকা পানি যতটা পারা যায় ঝেড়ে রাখা ভালো।

টুথব্রাশ রাখতে হবে খাড়া করে অর্থাৎ ব্রাশের দিকটা ওপরের দিকে। এতে ব্রাশে থাকা অতিরিক্ত পানি তাড়াতাড়ি শুকিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায়। প্রতি তিন মাস পরপর টুথব্রাশ বদলে ফেলা আবশ্যক। তিন মাসের বেশি সময় ধরে টুথব্রাশ ব্যবহার করলে এতে নানা ধরনের জীবাণু বাসা বাঁধার সুযোগ পায়।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর