ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭

  • || ২৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১৪০

জরায়ু অপারেশনের নামে পায়ুপথ কাটলেন ডাক্তার!

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০১৯  

জরায়ুর অপারেশন করতে গিয়ে রোগীর পায়ুপথ কেটে ফেলার অভিযোগ উঠেছে নারায়ণগঞ্জে মেডিপ্লাস জেনারেল হাসপাতালের কনসালট্যান্ট গাইনোকোলজিস্ট ও সার্জন ডা. কামরুন নাহারের বিরুদ্ধে। সেই সঙ্গে তার বিরুদ্ধে ভুল চিকিৎসার শিকার রোগীর প্রতি অবহেলারও অভিযোগও উঠেছে।

শনিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। ভুক্তভোগী রোগী ডালিয়া বেগম (৪০) বন্দর উপজেলার লেজার্স এলাকার মঞ্জুরুল ইসলামের স্ত্রী।

রোগীর মা নূরজাত বেগম বলেন, কিছুদিন আগে জরায়ুর সমস্যা নিয়ে ডা. কামরুন নাহারের কাছে আসি। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে তিনি রোগীর জরায়ুতে সমস্যা আছে জানিয়ে অপারেশন করতে বলেন। ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে অপারেশন করতে রাজি হন তিনি। 

শনিবার সকাল ৯টায় হাসপাতালে আসতে বললে আমরা যথা সময়ে চলে আসি। পরে দেড়টার দিকে অপারেশন শুরু হয়। কিন্তু কয়েক ঘণ্টা চলে গেলেও অপারেশন শেষ হয় না। রোগীর কী অবস্থা সে বিষয়েও কিছু বলেন না।

বার বার প্রেসক্রিপশন দিয়ে বিভিন্ন ওষুধ আনতে বলেন। কয়েকবার ওষুধ আনার পর ফার্মেসির লোকেরা বলে যে আপনারা তো জরায়ুর অপারেশন করতে এসেছেন, এই ওষুধ তো পায়ুপথের জন্য। এগুলো দিয়ে কী করবেন? 

তখন আমাদের সন্দেহ হলে আমরা চিৎকার শুরু করি। এরপর তারা ভুল চিকিৎসার কথা স্বীকার করেন। পরে অপর এক ডাক্তারকে এনে অপারেশন করান।

ডাক্তার এসএম ইফতেখার উদ্দীন সাগর বলেন, আমি অন্য একটি রোগী দেখার জন্য এখানে এসেছিলাম। এখানে এসে ঘটনাটি জানতে পারি। পরে আমাকে ওই রোগীর পায়ুপথে অপারেশনের কথা বললে আমি করে দেই। আমি এর বেশি কিছু জানি না।

মেডিপ্লাস জেনারেল হাসপাতালের ম্যানেজার বলেন, এই রোগী ডাক্তার কামরুন নাহারের। তিনিই এখানে পাঠিয়েছেন। অপারেশনের সময় ডা. কামরুন নাহার আমাকে বলেন যে একটা জটিল সমস্যা হয়েছে, একজন সার্জন ডাকতে হবে। আমরা একজনকে ডাকি। 

অপারেশনের সময় মলদ্বার কেটে ফেলেছেন বলে রোগীর স্বজনদের বলে গেছেন ওই ডাক্তার। এখন ঠিক হতে একমাস সময় লাগবে। তবে এই ঘটনার পর বেশ কয়েকবার ফোন করে বলার পরও ডা. কামরুন নাহার রোগীর কোনো খোঁজ নিতে আসেননি।

নারায়ণগঞ্জ সদর মডেল থানার এসআই রিপন আলি খান বলেন, ভুল চিকিৎসার খবর পেয়ে এখানে এসেছি। খোঁজ-খবর নিচ্ছি। তবে এখনো কেউ কোনো অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইন অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
সারাবাংলা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর