ব্রেকিং:
অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২ আ’লীগ নেতার আগাম জামিন পৌর কলেজে পিঠা ও নবীনবরণ উৎসব অনুষ্ঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় করোনাভাইরাস চিকিৎসায় সেবা কর্ণার স্থাপন বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ঝুঁকিপূর্ণ লোহার ব্রিজ দিয়ে চলছে ভারী যানবাহন কক্সবাজার-সেন্টমার্টিনের জাহাজ ভাড়া ১৫ হাজার! স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের পর হত্যা: ১০ আসামির ৮ জনেরই মৃত্যুদণ্ড বহাল ৬ ফেব্রুয়ারি শুরু হচ্ছে বেসিস সফটএক্সপো সেবার মূল্য তালিকা প্রদর্শনের নির্দেশ বাংলাদেশ ব্যাংকের কন্যাকে স্বামী সম্পর্কে উপদেশ... ‘আমি চাই না বাংলাদেশে এ রোগ ছড়াক, তাই দেশে ফিরবো না’ টাইগারদের আর বিশেষ বিমানে পাকিস্তানে পাঠাবে না বিসিবি উদ্বোধনের আগেই দেবে গেছে কোটি টাকার গণমিলনায়তন একনজরে গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ড পেলেন যারা ধর্ষণের রোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন তিন ছাত্রী ব‌হিরাগত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীদের ঢাকায় আন‌ছে বিএনপি: কা‌দের ভাবির সঙ্গে স্বামীর পরকীয়া, দেখে ফেললেন স্ত্রী!

বুধবার   ২৯ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৬ ১৪২৬   ০৩ জমাদিউস সানি ১৪৪১

৫২

চীন, ভারত ও পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১০ জানুয়ারি ২০২০  

চলতি অর্থ-বছরে বৈশ্বিক জিডিপি প্রবৃদ্ধির যে পূর্বাভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক তাতে ভারত, পাকিস্তান ও শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ চীনকেও  ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ।

সংস্থাটির গ্লোবাল ইকোনমিক প্রসপেক্টাস শীর্ষক এক প্রতিবেদনে এ আভাস দেয়া হয়েছে। প্রতিবেদনটি গত বুধবার বিশ্বব্যাংকের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে ২০১৯-২০ অর্থবছরে (৩০ জুন) বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ৭ দশমিক ২ শতাংশ হবে বলে আভাস দেয়া হয়েছে। পরবর্তী অর্থবছরে তা আরো কিছুটা বেড়ে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ হতে পারে। ২০১৯ সালের ২০ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাওয়া তথ্য বিশ্লেষণ করে এ প্রতিবেদন তৈরি করেছে বিশ্বব্যাংক।

ভারতে ব্যাংক নয় এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো থেকে তেমন বিনিয়োগ আসে না, যে অবস্থা আরো দীর্ঘমেয়াদী হবে। ফলে ২০১৯/২০ অর্থ-বছরে (৩১ মার্চ) দেশটির প্রবৃদ্ধির গতি কিছুটা কমে ৫ শতাংশ হবে। তবে পরবর্তী অর্থ-বছরে তা আবার বেড়ে ৫ দশমিক ৮ শতাংশ হবে।

পাকিস্তানে ২০১৯/২০ অর্থ বছরে (জুন ৩০) জিডিপি প্রবৃদ্ধি ২ দশমিক ৪ শতাংশ হবে। পরবর্তী অর্থবছরে তা বেড়ে ৩ শতাংশ হতে পারে।

কয়েকটি উদীয়মান ও উন্নয়নশীল দেশ গত বছরের সংকট কাটিয়ে নিজেদের অর্থনীতির উন্নয়ন ঘটাবে, এই আশা থেকেই বিশ্বব্যাংক প্রবৃদ্ধির এই পূর্বাভাস দিয়েছে। যদিও একই সঙ্গে বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র এবং আরো কয়েকটি উন্নয়নশীল দেশের মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) কিছুটা হ্রাস পাবে।

চীনের সঙ্গে বাণিজ্য যুদ্ধে জড়িয়ে যুক্তরাষ্ট্রের মোট দেশজ উৎপাদনে যে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে তার জেরে দেশটির জিডিপি প্রবৃদ্ধির হার কিছুটা কমে ১ দশমিক ৮ শতাংশ হবে বলে আভাস দেয়া হয়েছে। শিল্পনির্ভর ইউরো অঞ্চলেও ‘ইন্ডাসট্রিয়াল অ্যাক্টিভিটি’ হ্রাস পাওয়ায় জিডিপিতে নিম্নগতি থাকতে পারে বলে ধারণা করা হয়েছে।

তবে ব্রাজিলের মত উদীয়মান অর্থনীতির দেশে গত বছরের তুলনায় মোট দেশজ উৎপাদন বাড়বে। মেক্সিকো ও তুরস্কে ২০১৯ সালে প্রবৃদ্ধি প্রায় শূন্য ছিল, এ বছর ওই অবস্থার উন্নতি ঘটা উচিত বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক। ধীরে হলেও আর্জেন্টিনার অর্থনৈতিক অগ্রগতিও হচ্ছে। তবে গত দুই বছরের তুলনায় এবার প্রবৃদ্ধির গতি  কমে যেতে পারে।

বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাসে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ক্রম নেতিবাচকগতি এবার থামবে বলা হয়েছে। সেইসঙ্গে ২০২১ সাল নাগাদ দেশটি প্রবৃদ্ধি আবারো অগ্রগতির পথে উঠে আসবে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে ইরানের রাজনীতিতে যে চরম সংকট দেখা দিয়েছে তা বিশ্বব্যাংকের পূর্বাভাসকে পুরো উল্টে দিতে পারে। 

পূর্ব এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চল ২০২০ সালে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ৫ দশমিক ৭ শতাংশ হবে বলে আভাস দেয়া হয়েছে। যদিও বাণিজ্য যুদ্ধের কারণে এই অঞ্চলের শক্তিশালী অর্থনীতির দেশ চীনের প্রবৃদ্ধিতে কিছুটা নিম্নগতি দেখা দিতে পারে। এ বছর দেশটির জিডিপি ৫ দশমিক ৯ শতাংশ হতে পারে। তবে কলম্বিয়া, ফিলিপিন্স, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের জিডিপি বাড়বে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর