ব্রেকিং:
কসবায় ভিজিডি কার্ডের চাউল বিতরণ মাদক বিরোধী অভিযানে আটক তিন কারা থাকছে আখাউড়ায় ছাত্রলীগের কমিটিতে সুশাসনের জন্য দুর্নীতিই প্রধান অন্তরায় সরাইলে অপপ্রচার নিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ বিএনপি নেতা দুদুর বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা বিএনপি’র পকেট কমিটি বাতিলের দাবীতে বিক্ষোভ ও ঝাঁড়ু মিছিল ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত মুসলিম যাত্রী থাকায় আমেরিকান এয়ারলাইনসের ফ্লাইট বাতিল নির্ধারিত সময়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে: এলজিআরডি মন্ত্রী ব্যাংক নোটের আদলে বিল ব্যবহারে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের হুঁশিয়ারি তিন স্পা সেন্টার থেকে ১৬ নারী ও ৩ পুরুষ আটক দেশে বেড়েই চলেছে ইন্টারনেটের গ্রাহক সংখ্যা শাবিপ্রবি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিনের অনিয়ম ও দুর্নীতির শ্বেতপত্র রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সরকারের উদ্যোগের ঘাটতি নেই ক্যাসিনো চালাতে দেয়া হবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তেল স্থাপনায় হামলার প্রতিশোধ নেবে সৌদি আরব অনুপ্রবেশকারীদের চিহ্নিত করছে আওয়ামী লীগ মাদক ব্যবসায়ীদের চেনার উপায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ১১ জন খেলাঘরের জাতীয় পরিষদে

সোমবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯   আশ্বিন ৮ ১৪২৬   ২৩ মুহররম ১৪৪১

১৯

চাপ প্রয়োগ করে শান্ত রাখা হয়েছে কাশ্মীর : শ্রীনগরের মেয়র

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে বিশেষ মর্যাদা ও স্বায়ত্ত শাসন কেড়ে নেবার পর কাশ্মীর শান্ত রয়েছে বলে দাবি করে আসছে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকার। কিন্তু প্রকৃত অর্থে কাশ্মীর মোটেও শান্ত নয় বরং প্রচন্ড চাপ প্রয়োগ করে একে শান্ত রাখা হয়েছে বলে দাবি করেছেন রাজধানী শ্রীনগরের মেয়র জুনাইদ আজিম মট্টু।

মঙ্গলবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, রাস্তায় কোনো মরদেহ পড়ে নেই মানে এই নয় যে, জম্মু কাশ্মীরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক। কাশ্মীরিদের ওপর প্রচন্ড চাপ প্রয়োগ করে পরিস্থীতিকে শান্ত রাখা হচ্ছে।

মাট্টু আরো বলেন, কেন্দ্রীয় সরকার আশ্বাস দিয়েছিল, নিষেধাজ্ঞা ধীরে ধীরে শিথিল করা হবে। কিন্তু কাশ্মীরে এখনো অনেক পরিবার আছে যারা প্রিয়জনদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেনি। পাশাপাশি বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতাদের আটকে রাখারও সমালোচনা করেন তিনি। 

তিনি আরো বলেন, বছরের পর বছর কাশ্মীরের মূলস্রোতের রাজনীতিবিদরা সন্ত্রাসবাদের বিরোধিতা করেছেন। কিন্তু এখন তাদেরই বন্দি করে রাখা হয়েছে। কাশ্মীরিদের অস্তিত্বের সঙ্কট তৈরি হয়েছে। কাশ্মীরবাসী সবসময় সন্ত্রাসের মধ্যেই বাস করে। তবে তা আমাদের অভ্যাস হয়ে গেছে। কিন্তু সন্ত্রাসের অজুহাতে আমাদের মৌলিক অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। 

এদিকে গত সপ্তাহে এক সাক্ষাৎকারে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কাশ্মীরে অস্ত্রধারীরা যেন জমায়েত হয়ে প্রশাসনের বিরুদ্ধে হামলা না করতে পারে, সেজন্যই যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রাখা দরকার ছিল।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর