ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • বুধবার   ১৫ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ৩১ ১৪২৭

  • || ২৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

৬১

‘ঘরে আইসোলেশনে থেকেই সুস্থ হওয়া সম্ভব’

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৩ এপ্রিল ২০২০  

হাসপাতালে না গিয়ে বাসাতে থেকেই করোনার সংক্রমণ থেকে সুস্থ হওয়া সম্ভব বলে জানালেন করোনায় আক্রান্ত এক চিকিত্সক। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে এ কথাই জানালেন কুয়েত বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতালের চিকিত্সক ডা. মোহাম্মদ আতিয়ার রহমান। শুরু থেকেই কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের চিকিত্সা করছিলেন এ চিকিত্সক। গত ১৫ এপ্রিল তিনি জানতে পারেন যে, করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে তার দেহে। এতে তিনি ভয় পাননি। বরং সাহসের সঙ্গে রোগের পর্যায় পেরিয়ে এসেছেন।

ডা. আতিয়ার বলেন, প্রথমে খবরটা শুনে একটু ভয় পেয়েছি। রাতে ঘুম আসে না। সহকর্মীদের সমবেদনা, সান্ত্বনাতেও কোনো সাহস জোগায়নি। চোখের সামনে কয়েক জন কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীকে মারা যেতে দেখলাম। সেই অনুভূতি বলে বোঝানোর নয়।

তিনি বলেন, আমার করোনার লক্ষণ ছিল না। কোনো কারণ ছাড়াই পরীক্ষা করে জানতে পারি যে, আমি কোভিড-১৯ আক্রান্ত। যেহেতু আমার লক্ষণ ছিল না তাই হাসপাতালে না থেকে আলাদা জায়গায় আইসোলেশনে থাকতে শুরু করি এবং ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছি।

তিনি বলেন, লক্ষণ ছাড়াই এখন অনেকেই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। এতে ভয় না পেয়ে সাহসের সঙ্গে এ রোগকে মোকাবিলা করতে হবে। বাসায় একা বিশ্রামে থেকেই এ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। শুধু প্রয়োজন সাহস। সঠিক নিয়ম মেনে হোম আইসোলেশনে থাকতে হবে। তাহলে সাত থেকে ১৪ দিনে হাসপাতালে না গিয়েও সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়া সম্ভব।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর