ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২২ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

১৬৮

গাঢাকা দিয়েছে মাদক ব্যবসায়ীরা!

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ১২ জানুয়ারি ২০২০  

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চলমান মাদকবিরোধী অভিযানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলার সংশ্লিষ্ট অনেক মাদক ব্যবসায়ী গাঢাকা দিয়েছেন। যার কারনে মাদক বেচা কেনার পয়েন্ট গুলিতে অভিযান চালিয়েও পুলিশ কোনো মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করতে পারছেনা। মাঝে-মধ্যে দু-একটা ছিচকে মাদক বিক্রেতা ২০-৫০ পিছ ইয়াবা টেবলেট সহ ধরা পরলেও প্রকৃত মাদক ব্যবসায়ীরা থকেন ধরা ছোয়ার বাইরে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, যেসব ছিচকে মাদক ব্যবসায়ী মাদক সহ আটক হয় তাদের অধিকাংশই মাদক সেবি। তারা নিজেদের নেশার উপাদান যোগার করতেই ছোটখাট মাদক ব্যবসার সাথে জড়িত হয়।

দেখা যায়, গত দু’বছরে মাদকের যে সকল বড় বড় চালান ধরা হয়েছে এবং তাদের সাথে আটক কৃতরা কেউ এ এলাকার নয়। ব্রাহ্মনবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলাটি পাশ্বরর্তী দেশ ভারতের সিমানা বর্তী এলাকার কাছাকাছি হওয়ায় উপজেলার শিবপুরের রাধিকা সড়কটি মাদক ব্যবসায়ীদের সবচাইতে বড় যোগাযোগের মাধ্যম হয়ে উঠেছে। এ রাস্তা দিয়েই রাজধানি সহ দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলা গুলিতে মাদকের বড় যোগান মিলে।

স্থানীয়রা জানায়,আইনশংখলা বাহিনীর চলমান অভিযানে আনেকেই নবীনগর থেকে অন্যত্র গিয়ে আত্মগোপন করেছেন। উপজেলার শিবপুর-কনিকারা ও সোহাতা-রছুল্লাবাদের সড়কটিতে প্রশাসনের কঠোর নজরদারি থাকলে এ এলাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলায় মাদকের বিস্তার অনেকটাই কমে যাবে।

নবীনগর থানা ওসি রনোজিত রায় জানান,আমাদের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যহত আছে। উপজেলার মাদক ব্যবসায়ীদের একটি লিষ্ট আমাদের হাতে আছে। ইতিমধ্যেই আমরা কিছু মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করেছি,বাকিদের গ্রেপ্তার করতে আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর