ব্রেকিং:
প্রতিদিন কয়েকবার গরম পানির ভাপ নিয়েছি করোনায় ব্যতিক্রমী উদ্যোগ এমপিওভুক্তির সুখবর পেল ১৬৩৩ স্কুল-কলেজ ২০ হাজারের বেশি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রয়েছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে মানুষ, দৃষ্টান্ত স্থাপন করে চলেছে বৈশ্বিক ক্রয়াদেশ পূরণে সক্ষম বাংলাদেশ ॥ শেখ হাসিনা লোকসান ঠেকাতে সরাসরি ক্ষেত থেকে সবজি কিনছে সেনাবাহিনী করোনা পরীক্ষায় দেশে চালু হলো প্রথম বেসরকারি ল্যাব যে দোয়ার আমলে স্মরণশক্তি বৃদ্ধি পাবে ইনশাআল্লাহ! আল্লাহ তিন ধরনের লোকের দোয়া ফিরিয়ে দেন না করোনা রোগীদের বাড়ি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ উপহার ভেন্টিলেটর-সিসিইউ স্থাপনে জরুরি প্রকল্প বঙ্গবন্ধুর মতো নেতা পৃথিবীতে খুব কম দেখা যায়: ট্রাম্প গবেষণা প্রটোকল জমা না দিয়েই বিষোদগার করছেন জাফরুল্লাহ জাতিসংঘের বিশ্ব খাদ্য কর্মসূচিতে নিয়োগ করোনা আক্রান্তের শরীরের অক্সিজেনের পরিমাণ ঘরেই পরীক্ষার উপায় মধ্যবিত্তরাও খাদ্যসহায়তার আওতায়: শিল্প প্রতিমন্ত্রী কর্মস্থল ত্যাগকারীদের তালিকা চায় মন্ত্রণালয় নাসিরনগরে শিশু নিহতের ঘটনায় গ্রেফতার ২ দেশে ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত, আরো ৮ মৃত্যু
  • বৃহস্পতিবার   ০৬ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২২ ১৪২৭

  • || ১৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

৯৪৫

ক্যান্সারের নকল ওষুধ বাজারজাত, ৩ জনকে সাজা

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০১৯  

রাজধানীর পশ্চিম নাখাল পাড়ায় র‌্যাবের ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে ক্যান্সারের নকল ওষুধ সংরক্ষণ, সরবরাহ ও বাজারজাত করার অপরাধে ৩ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানা করেছে। তাদের হলো- মো. আনিছুর রহমান (৩২), মো. দেলোয়ার হোসেন ওরফে নবেল (৩৫) ও মো. জুলফিকার হায়দার (৩৬)।

সোমবার বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত র‌্যাব সদর দফতরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. গাউছুল আজম এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। আদালতকে সহায়তা করে র‌্যাব-৩ এর একটি দল ও বিএসটিআইয়ের বিশেষজ্ঞরা।মঙ্গলবার বিকেলে র‌্যাব-৩ এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবিএম ফজলুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, গোপন সংবাদে ভ্রাম্যমান আদালত এ অভিযান চালায়। এ সময় ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালসের ক্যান্সারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধ ‘ওসিসেন্ট-৮০’ এর মোড়কে বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ উদ্ধার করা হয়। 

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটক তিনজন জানায়, পাশের দেশ ভারত থেকে ক্যান্সারের নিম্নমানের ওষুধ এনে দেশের নামি-দামি কোম্পানীর বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ওষুধের মোড়কে বাজারজাত করে আসছিল তারা। ফুসফুস ক্যান্সারের চিকিৎসায় ব্যবহৃত ‘ওসিসেন্ট’ ব্র্যান্ডের ১ বক্স ওষুধের মূল্য ১৫ হাজার টাকা। কিন্তু প্রতারক চক্র ভারত থেকে আনা নিম্নমানের ভেজাল ওষুধ মাত্র ৭ সাত হাজার ৫শ’ টাকায় অসাধু বিক্রেতাদের কাছে সরবরাহ করত।

জিজ্ঞাসাবাদে আটক আনিছুর রহমান স্বীকার করেছে, সে ইনসেপ্টা ফার্মাসিউটিক্যালসের মেডিকেল প্রমোশন অফিসার হওয়ার সুবাদে দুই সহযোগীর মাধ্যমে ওইসব ওষুধ বাজারে বিক্রি করে আসছে।

আদালত এসব অপরাধে ও আটক তিন জনের দোষ স্বীকারের পর আনিসুর রহমানকে ২ বছর, তার সহযোগী নোবেলকে ২ বছর ও জুলফিকার হায়দারকে ১ বছরের কারাদণ্ড দেন। এছাড়া, প্রত্যেককে ৫ লাখ টাকা করে ১৫ লাখ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
অপরাধ বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর