ব্রেকিং:
দুর্ধর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আটক সাংবাদিকতায় দেশ সেরা অ্যাওয়ার্ড পেলেন মিশু জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত বিষ প্রয়োগে সর্বশান্ত মৎস্য চাষী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সংবর্ধনা পাঁচ দফা দাবিতে ফারিয়ার মানববন্ধন মসজিদের দেয়ালে ফাটল, আতঙ্কে মুসল্লিরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক উদ্ধার মাদক বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত মাদকসেবীর হুমকিতে স্কুলে যাওয়া বন্ধ শিক্ষার্থীর ফুটপাত দখলমুক্ত করলেন ইউএনও শারীরিক সক্ষম হলেই রক্তদান করবে শিক্ষার্থীরা একই তেলে বার বার রান্না ক্যান্সার ও হৃদরোগের কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ তথ্যমন্ত্রীর মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী নারীর মনে জায়গা পাওয়ার উপায় পানিতে পড়া ফোন যেভাবে দ্রুত সারিয়ে তুলবেন যে কারণে ‘সুদ’ হারাম উদ্বোধন হলো শেখ কামাল ক্লাব কাপ আওয়ামী লীগের সম্মেলন মানেই নতুন মুখ: কাদের

সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

৫৪৯

কাটাছেঁড়া ছাড়াই শ্বাসনালি থেকে হিজাব পিন উদ্ধার

প্রকাশিত: ৩ জুলাই ২০১৯  

হিজাব পরতে দাঁতের ফাঁকে পিন রেখেছিলেন কিশোরী সুমনা। তবে পিনটি দাঁত থেকে ফসকে চলে যায় শ্বাসনালিতে। এতে শঙ্কায় পড়ে তার পরিবার। দ্রুত নেয়া হয় সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে।

২৫ জুন সিলেটের জকিগঞ্জের খাদিমান গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। তবে মঙ্গলবার (২জুলাই) সকালে ব্রঙ্কোসকপি দিয়ে প্রায় ২৫ মিনিট চেষ্টা চালিয়ে পিনটি কাটাছেঁড়া ছাড়াই উদ্ধার করেছেন চিকিৎসকরা। ভুক্তভোগী সুমনা ওই গ্রামের আব্দুর রবের মেয়ে।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. নন্দ কিশোর সিনহার তত্ত্বাবধানে পিন উদ্ধারে ছিলেন নাক-কান-গলা ও হেড নেক ক্যান্সার বিশেষজ্ঞ সার্জন ডা. নূরুল হুদা নাঈম। এতে সহযোগিতা করেন নাক-কান-গলা বিভাগের সহকারী রেজিস্ট্রার ডা. আব্দুল হাফিজ শাফী, ডা. হাসনাত আনোয়ার, ডা. মনজুরুল হাসান, ডা. তারেক ও ডা. আয়েশা সিদ্দিকা।

সার্জন ডা. নূরুল হুদা নাঈম বলেন, ২৫ জুন ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নাক-কান-গলা বিভাগে ভর্তি করা হয় সুমনাকে। সব ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে দেখা যায় শ্বাসনালির ভেতরে পিন জাতীয় কিছু আটকে আছে। এরপর চিকিৎসকরা তার অপারেশন করার সিদ্ধান্ত নেন। তবে কোনো কাটাছেঁড়া ছাড়াই শ্বাসনালিতে আটকা পড়া পিনটি বের করা হয়। সে সুস্থ রয়েছে।

সুমনার বাবা আব্দুর রব বলেন, মেয়ে নিয়ে খুবই চিন্তিত ছিলাম। তবে হাসপাতালের চিকিৎসকরা সেই চিন্তা থেকে উদ্ধার করেছেন। এ জন্য তাদের কাছে কৃতজ্ঞ। কয়েক দিনের মধ্যেই মেয়ে বাড়ি ফিরবে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর