ব্রেকিং:
মশারা সংগীতচর্চা করছে, মেয়রকে প্রধানমন্ত্রী দুর্ভোগের সুযোগ নিয়ে দাম বাড়ানো অমানবিক: প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতি হলে কাউকে ছাড়ব না: প্রধানমন্ত্রী ঘরে বসেই করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি পরিমাপ করার ওয়েবসাইট চালু হয়েছে কভিডের পরীক্ষা হবে আরো ৯টি ল্যাবে অহেতুক পিপিই পরবেন না, যারা সেবা করবেন তারাই পরবেন: প্রধানমন্ত্রী মানুষকে সচেতন করা গেছে বলেই করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে করোনা শনাক্তে প্রশ্ন যাবে মোবাইল ফোনে দেশে করোনায় নতুন করে আক্রান্ত দুই, মোট ৫১ ৯ এপ্রিল পর্যন্ত ছুটি, ১০-১১ সাপ্তাহিক বন্ধ রোগ-ব্যাধি ও বিপদ-আপদ থেকে মুক্তির দোয়া নজরদারিতে গুজব সৃষ্টিকারীরা করোনায় অর্ধশত বাংলাদেশির মৃত্যু কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ছেয়ে গেছে সাগরলতায় ত্রাণ নিয়ে অনিয়ম-দুর্নীতি সহ্য করা হবে না: প্রধানমন্ত্রী করোনা নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে জেকে ব্রেকিং নিউজসহ বেনামি নিউজ পোর্টাল! অন্ধপল্লীর দুস্থদের পাশে “সুহৃদ” স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানব কল্যাণের উদ্যোগে জীবানুনাশক স্প্রে ও পরিষ্কার অভিযান আশুগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায় জীবাণুনাশক স্প্রে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আড়াই’শ পরিবারের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
  • বুধবার   ০১ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৭ ১৪২৬

  • || ০৭ শা'বান ১৪৪১

২৮

কসবায় মাটিখেকোরা গিলে খাচ্ছে অন্যের জমি

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া

প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার খাড়েরা ইউনিয়নের দেলী মৌজায় অবৈধ চলছে মাটি কাটার মহোৎসব। এতে করে ভেঙে যাচ্ছে অন্যের ফসলি জমি। ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে কৃষকরা। প্রতিকার চেয়ে হারুন আল রশীদ ভুঁইয়া গতকাল কসবা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কসবা উপজেলা খাড়েরা ইউনিয়নের দেলী গ্রামের জাহাঙ্গীর মোল্লা তার ফসলি জমির মাটি বিক্রি করেছেন। ওই জমিতে একই গ্রামের আল-আমিন অবৈধ খনন যন্ত্র দিয়ে জমির বিশাল আকৃতির একটি গর্ত খুঁড়ে মাটি উত্তলন করে বিভিন্ন জায়গায় বিক্রি করে আসছে। এ অবস্থায় ওই জায়গার আসে পাশের জমি ও ভেঙে যাওয়ার উপক্রম দেখা দিয়েছে। স্থানীয় লোকজনন বাধা দিলেও তা মানছেন।

স্থানীয় কয়েকজন ব্যক্তি বলেন, মাটি ব্যবসায়ী ও খনন যন্ত্রের মালিক আল আমিন এলাকাবাসীর কথা তোয়াক্কা না করে জমিতে অবৈধ ড্রেজার মেশিন লাগিয়ে প্রায় ৩০/৩৫ ফুট মতো গভীর করে বিভিন্ন জায়গায় মাটি বিক্রয় করে আসছেন। তার এই বিশাল আকারে গর্ত খুঁড়ে মাটি বিক্রয় ও জমির গভীরতার কারণে তাদের আশে পাশের জমি গুলো জন্য এখন হুমকী হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত হারুন আল রশীদ ভূইয়া বলেন, খনন যন্ত্র দিয়ে ফসলি জমির মাটি কাটা হচ্ছে। অনেক গভীর করা হয়েছে।  তার ফসলি জমি ভেঙে যাওয়ার আশংকা দেখা দিয়েছে। তাদেরকে বারবার বাঁধা দিলেও কথা শুনছেন না। ফসলি জমি রক্ষা করার জন্য কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

নির্বাহী হাকিম ও ব্রা?হ্মণপাড়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, পুরো উপজেলার অবৈধ খনন যন্ত্র দিয়ে মাটি কাটা বন্ধ করা হয়েছিল। ধ্বংস করা হয়েছিল খনন যন্ত্রও। বর্তমানে কিছু জায়গায় আবারও নতুন করে খনন যন্ত্র বসানো হয়েছে। কয়েকটি লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশের চাহিদা দেওয়া হয়েছে। শিগগিরই অভিযান চালিয়ে খনন যন্ত্র বন্ধ করা হবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর