ব্রেকিং:
শিশু মৃত্যু ৬৩ শতাংশ কমিয়েছে বাংলাদেশ শনিবার সকাল পর্যন্ত ৩১ ব্যাংকের বুথ বন্ধ প্রাথমিক শিক্ষায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শ্রেষ্ঠ আশুগঞ্জের ইউএনও বিজয়নগরে ট্রাক্টর চাপায় শিশু নিহত শাহ মোহাম্মদ শামছুল আলম আর নেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতাল যেনো ভূতের আখড়া! ধর্ষণ শেষে শ্বাসরোধে হত্যা....... নবীনগর ছাত্রকল্যাণ পরিষদের সভাপতি মিনহাজ, সম্পাদক জয় ২০ লাখ পাসপোর্ট কেনার প্রস্তাব অনুমোদন থার্টিফার্স্ট নাইটে রাস্তায় গান-বাজনা নিষেধ: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মেঘালয়ে মোবাইল ইন্টারনেট বন্ধ, শিলংয়ে কারফিউ রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত: আইসিজে প্রেসিডেন্ট রঙিন চেয়ারে বসিয়ে মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা কার্ড জালিয়াতি করে ভাতা উত্তোলন, অতঃপর... ফেন্সিডিল-স্কফ ও ইয়াবাসহ নারী ব্যবসায়ী আটক উন্নয়ন কাজে চাঁদাবাজি ও হুমকি, ঠিকাদারদের নিন্দা ‘সত্য মিথ্যা যাচাই আগে,ইন্টারনেটে শেয়ার পরে’ পিএর বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ আধুনিক ও আদর্শ পৌরসভা করতে সকলের সহযোগিতা প্রয়োজন ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মামলা

শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৯ ১৪২৬   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪১

৪৩৮৭

ওসি’র কথায় মুগ্ধ হয়ে ফিরে গেছেন তাহেরী

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার শাহবাজপুর ও সদরের সৈয়দটুলা গ্রামে শুক্রবার রাতে মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী দু’টি মাহফিলে বক্তব্য রাখার কথা ছিল। কিন্তু ওই দুই মাহফিলে হাজারো ভক্ত গভীররাত পর্যন্ত অপেক্ষা করলেও তিনি আসেননি। পরে মাহফিল দু’টির আয়োজকদের জানানো হয় “তিনি রাতে যথাসময়ে মাহফিলের কাছাকাছি পৌঁছালেও পুলিশের কথায় রাস্তা থেকেই ফিরে যান।”

এ বিষয়ে রাতে সরাইল থানার ওসি সাহাদাত হোসেন টিটো এ প্রতিবেদককে জানান, ওই দুটি মাহফিল ঘিরে এলাকায় অস্থিরতা বিরাজ করছিল। এছাড়াও মাহফিল দুটিতে প্রশাসনের কোনো অনুমতি ছিল না।এলাকায় আইনশৃংখলা অবনতির আশঙ্কায় রাতে মহাসড়কে মুফতি গিয়াস উদ্দিন আত-তাহেরী’র গাড়ি থামিয়ে তাঁকে মাহফিল দুটিতে অংশগ্রহণ না করার জন্য বলা হয়। তিনি বিষয়টি বুঝতে পেরে ফিরে যান।

এ ব্যাপারে জানতে রাত সাড়ে ১১টায় মুফতি তাহেরীর মুঠোফোনে কল দিলে তিনি জানান, শতকরা নব্বই ভাগ মুসলমানের দেশ বাংলাদেশ। এই দেশে আল্লাহ-রাসূলের নামে ওয়াজ করতে গেলেও বাধা, এটা দুঃখজনক। এলাকার গরীব লোকজন সারাবছর কালেকশন করে (চাঁদা তুলে) এই মাহফিলের আয়োজন করেছেন। পুলিশ আমাকে মাহফিলে যেতে দেইনি। মুফতি তাহেরী বলেন, আমার জানা মতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে ১৭ জন বক্তার ওয়াজ মাহফিল মনিটরিং করতে আইনশৃংখলা বাহিনীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, তবে বাধা দিতে বলা হয়নি। সেই তালিকায় আমার নাম নেই। আমি তাহেরী সরকার ও রাস্ট্রের বিরুদ্ধে কথা বলি না। আমার বিরুদ্ধে ধর্মীয় অনুভূতির আঘাত এনে দায়ের করা মিথ্যা মামলা আদালত খারিজ করে দিয়েছেন। আমার বিরুদ্ধে সরকারের কোন দফতর বা আদালতে কোনো অভিযোগ নেই। তারপরও আমাকে মাহফিলে যেতে দেওয়া হয়নি। রাত অনুমান ১০টার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সরাইল উপজেলার প্রবেশ মুখ থেকে পুলিশ আমাকে ফিরিয়ে দিয়েছে, এটা সত্যিই দুঃখজনক। আমি সরাইল থানার ওসি সাহাদাত হোসেন টিটো’র কথায় মুগ্ধ হয়ে, তাঁকে সর্বোচ্চ সন্মান দেখিয়ে মাহফিলে না গিয়ে রাস্তা থেকেই ফিরে এসেছি।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর