ব্রেকিং:
আরো কটা দিন বাঁচার স্বপ্ন দেখছে মাহাবুব ট্রেন দুর্ঘটনায় চালক, সহকারী ও গার্ড দায়ী শ্রেষ্ঠ শিক্ষক সম্মাননা প্রদান প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বীজ ও সার বিতরণ অবশেষে ময়নাতদন্ত ছাড়াই আসমার লাশ ফিরে পেল বাবা-মা ভুয়া সাংবাদিক পরিচয়ে মাদক ব্যবসা, অতঃপর... স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিদর্শিকার সেচ্ছাচারিতা প্রতিটি ফার্মেসি ও ক্লিনিকে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হবে মরদেহ নিয়ে নিহতের পরিবার ও পুলিশের মধ্যে টানাপোড়া ভ্রাম্যমান আদালতে ৬ জুয়াড়ির জরিমানা পিকআপের ধাক্কায় অটো যাত্রীর করুণ মৃত্যু মাদক বিরোধী অভিযানে আটক ৬ নারীর এই তিন রোগে সতর্ক হতে হবে এখনই পঞ্চগড় থেকে স্পষ্ট দেখা দিচ্ছে কাঞ্চনজঙ্ঘা পাত্রীকে সোনা কেনার টাকা দেবে সরকার বাংলাদেশি রাজীবের সততায় স্যালুট জানাল সিঙ্গাপুর পুলিশ আজ থেকে শুরু ‘ব্যাচেলর পয়েন্ট’ ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন স্পষ্ট করে লিখতে চিকিৎসকদের নির্দেশ পরীক্ষার হলে উত্তরপত্র পৌঁছে দেন শিক্ষক! রোহিঙ্গা নির্যাতন: বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন সু চি

শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

১৯৫৩

এ যাবৎকালে প্রিয়া সাহার যত অপতৎপরতা!

প্রকাশিত: ২৩ জুলাই ২০১৯  

বাংলাদেশে সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করে সম্প্রতি সমালোচনার শিকার হয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিয়া সাহা। এই সমালোচনা একেবারে নতুন হলেও তার বিরুদ্ধে রয়েছে আরও নানা অপতৎপরতার অভিযোগ।

জানা গেছে, ছাত্র জীবনে প্রিয়া সাহা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র ইউনিয়ন করতেন, থাকতেন রোকেয়া হলে। শারি নামের একটি এনজিও আছে তার। তিনি ছিলেন মহিলা ঐক্য পরিষদ’র কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক। বিভ্রান্তিমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য গতবছর তাকে মহিলা ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বাংলাদেশের সংখ্যালঘুদের বাড়ি পুড়িয়ে দেওয়ার বিভিন্ন ঘটনা সাজিয়ে এর মাধ্যমে প্রচুর বিদেশি ফান্ড কালেক্ট করারও অভিযোগ রয়েছে।

এদিকে মহিলা ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনকালে প্রিয়া সাহা অসহায় নারীদের জন্য সরকারের নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে কোটি কোটি টাকা অনুদান সংগ্রহ করেন। যদিও তা অসহায় নারীদের কল্যাণে ব্যবহার হতো খুব কমই। কোনো মহিলা আইনি ঝামেলা নিয়ে মহিলা ঐক্য পরিষদে সহযোগিতার জন্য প্রিয়া সাহার কাছে আসলে সেখানেও তিনি আর্থিক সুবিধা আদায় করতেন। যদিও মহিলা পরিষদের নিয়ম অনুযায়ী অসহায় নারীদের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার কোনো নির্দেশনা নেই। এরকম অসংখ্য দুর্নীতি ও অনিয়ম করার কারণে প্রিয়া সাহাকে মহিলা ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

প্রিয়া সাহার এসব কর্মকাণ্ডে তার স্বামী দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) কর্মরত মলয় সাহার ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে সর্বত্র। জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্র সফরে প্রিয়া সাহাকে অফিসিয়াল গাড়ি ব্যবহার করে এয়ারপোর্টে পৌঁছে দেন তার স্বামী দুদক কর্মকর্তা মলয় সাহা।

জানা গেছে, প্রিয়ার দুই মেয়ে কয়েক বছর ধরে আমেরিকায় বসবাস করছেন। নাম প্রকাশ না করার শর্তে সাহা পরিবারের একজন নিকটাত্মীয় জানান, মলয় সাহা দুদকের সহকারী পরিচালক হওয়ার পরেই আঙ্গুল ফুলে কলা গাছ হয়েছেন। নামে-বেনামে মলয় সাহার রাজধানীর গুলশান ও বনানীতে একাধিক বাড়ি রয়েছে বলেও গুঞ্জন উঠেছে। রয়েছে সুইস ব্যাংকে শত কোটি টাকা। মলয় সাহা ও প্রিয়া সাহা একটু গরীব আত্মীয়দের দামি জায়গা জোর-জবরদস্তি ও হুমকি দিয়ে নিজেদের করে নেওয়ার কথাও জানায় ওই ব্যক্তি।

এছাড়া, দুদকে চাকরি প্রত্যাশী মলয় সাহার এক ঘনিষ্ঠজন জানান, দুদকে চাকরি দেওয়ার কথা বলে মলয় সাহা বিভিন্ন সময়ে একাধিক প্রার্থীর কাছ থেকে লাখ লাখ নিচ্ছেন প্রতি বছর।

সচেতন মহলের দাবি, প্রিয়া সাহার দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রের সঙ্গী হওয়ায় তার স্বামী মলয় সাহাকে অতিদ্রুত চাকুরী থেকে অব্যাহতি দিয়ে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় নিয়ে আসা হোক। তারা স্বামী-স্ত্রী মিলে শান্তিপূর্ণ এক বাংলাদেশকে অশান্ত করার পাঁয়তারায় লিপ্ত। মলয় সাহা ও প্রিয়া সাহারা সোনার বাংলাদেশকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর