ব্রেকিং:
জমি-পেনশন হাতিয়ে বাবাকে ফেলে গেছে সন্তানেরা ফের বৃষ্টিতে ভেসে যাবে বাংলাদেশের স্বপ্ন? ভারত-পাকিস্তানের সম্ভাব্য একাদশ বিতর্ক মানুষকে সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী করে : শিক্ষামন্ত্রী মুক্তিযুদ্ধের চেতনা-দক্ষতা বিবেচনায় সেনা সদস্যদের পদোন্নতি নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান আওয়ামীলীগের লক্ষ্য উন্নত সমৃদ্ধ দেশ গড়া ছোট ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে বড় ভাইও ট্রেনের নিচে প্রস্তাবিত বাজেট ব্যবসা সহায়ক: এফবিসিসিআই শেষ ইচ্ছা পূরণ হল না ফিলিস্তিনি শিশুটির মুজিব কোটেই ছয় দফা! মুর্তজার মৃত্যুদণ্ড বাতিল করল সৌদি আরব ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছি’ আজ বিশ্ব বাবা দিবস কেন সুন্দর গন্ধ ভেসে আসে যুবতীর কবর থেকে…কেন? কয়েলের আগুনে ঘর, গরুসহ নগদ টাকা পুড়ে ছাই ! নবীনগরে ‘সেভ আওয়ার জেনারেশন’এর আত্মপ্রকাশ বাজেটে সুদমুক্ত ক্ষুদ্রঋণে বরাদ্দ বেড়েছে গবেষণা ও উন্নয়ন খাতে বরাদ্দ ৫০ কোটি টাকা পদ্মা সেতুসহ ১০ মেগা প্রকল্পে বরাদ্দ ৩৯ হাজার কোটি টাকা

রোববার   ১৬ জুন ২০১৯   আষাঢ় ২ ১৪২৬   ১২ শাওয়াল ১৪৪০

১২৩

এক কেজি মিষ্টিতে ২০০ গ্রাম বাক্স

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯  

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় মিষ্টির দোকানগুলোতে এক কেজির মিষ্টিতে ২০০ গ্রাম ওজনের বাক্স দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এতে ভোক্তারা পাচ্ছেন ৮০০ গ্রাম মিষ্টি।  
পৌর শহরের সড়ক বাজারে বেশ কয়েকটি মিষ্টির দোকান রয়েছে। এই দোকানগুলোর পরিচিতিও বেশ ভাল। স্থানীয় বাজারে প্রতি কেজি মিষ্টি ১৭০ থেকে ১৮০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।
মিষ্টি কিনতে আসা উপজেলার আজমপুরের জামাই মো. রশিদ মিয়া বলেন, ঈদ উপলক্ষে শ্বশুরবাড়ি যেতে সড়ক বাজারের একটি মিষ্টির দোকান থেকে চার কেজি মিষ্টি দুটি বাক্সে দেয়া হয়। মিষ্টি দেয়ার আগে বাক্সগুলোকে উজন দেয়ার কথা বললে ব্যবসায়ীরা বেঁকে বসেন। বাধ্য হয়ে বক্সসহ উজন দিয়ে নিতে হয়েছে।
মো. আরফান হোসেন বলেন, তিন কেজি মিষ্টি কেনা হয়। বক্সগুলো খালি উজন দিতে বললে তারা রাজি হয় না।
উপজেলা স্যানেটারি ইন্সপেক্টর মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, প্রতিটি প্যাকেট ১০০ গ্রামের মধ্যে রাখতে বলা হয়েছে। কেউ অনিয়ম করলে ভোক্তা অধিকার আইনে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর