ব্রেকিং:
‘আল্লাহর দল’র টার্গেটে ছিল পিলখানার ঘটনায় চাকরিচ্যুতরা আমি চাই সবার সঙ্গে মিশতে: প্রধানমন্ত্রী পানিতে তলিয়ে যেতে পারে জাকার্তা, বাঁচানোর কোনো উপায় নেই! সাত সপ্তাহ পর মন্ত্রিসভার বৈঠক রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন যেকোনো সময়: পররাষ্ট্র সচিব এডিস মশার বিরুদ্ধে ঢাকা উত্তরে ‘চিরুনি অভিযান’ সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ৮৬ শতাংশ ডেঙ্গু রোগী ১০৯ নম্বরে ফোন পেয়ে বাল্যবিয়ে বন্ধ করেছে উপজেলা প্রশাসন স্বাধীনতা বিরোধীরা এখনো ষড়যন্ত্র করছে: আইনমন্ত্রী কর্মসৃজন প্রকল্পে দুর্নীতি, ২১ জেলায় দুদকের অভিযান ৯৯৯ এ ফোন করে উদ্ধার হলেন ২০০ লঞ্চ যাত্রী পাকিস্তানকে ছাড়িয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি পশু কোরবানি বাংলাদেশে বন্যাদুর্গতদের পুনর্বাসনে রয়েছে ১২০ কোটি টাকা বরাদ্দ ঘুষদাতার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেয়া হবে: প্রধানমন্ত্রী হুজুর সেজে ধর্ষককে ধরলেন পুলিশ কর্মকর্তা বিয়ের অনুষ্ঠানে বোমা হামলা, নিহত বেড়ে ৬৩ ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপাইনের রমণীদের পছন্দ বাংলাদেশি ছেলে রোহিঙ্গা নির্যাতন তদন্তে ঢাকায় মিয়ানমারের তদন্ত দল ‘এখনো ষড়যন্ত্র চলছে, বাতাসে চক্রান্তের গন্ধ’ টাইগারদের হেড কোচ হলেন রাসেল ডমিঙ্গো

সোমবার   ১৯ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৪ ১৪২৬   ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

১৯

উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা ধরে রাখার আহ্বান শেখ হাসিনার

প্রকাশিত: ১৩ জুলাই ২০১৯  

উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি ধরে রাখতে জনগণের সমর্থনের পাশাপাশি রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক শক্তি জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন,আমরা একটা লক্ষ পূরণ করতে পেরেছি, কিন্তু উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে যে স্বীকৃতি পেয়েছি সেটাকে ধরে রাখতে রাজনৈতিক শক্তি বেশি প্রয়োজন। এ জন্য প্রয়োজন সাংগঠনিক শক্তি ও জনগণের সমর্থন। 

শুক্রবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভার সূচনা বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সূচনা বক্তব্যের পর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে উপদেষ্টা পরিষদের সভা শুরু হয়।

শেখ হাসিনা বলেন, আমি মনে করি, ১৯৮১ সালে বাংলাদেশে ফিরে আসার পর এ পর্যন্ত যেভাবে আন্দোলন সংগ্রাম করতে হয়েছে এবং আজ সরকার গঠন করে যে জায়গায় পৌঁছাতে পেরেছি তার মূল শক্তিটাই ছিল জনগণ ও তাদের সমর্থন। তবে অবশ্যই মহান আল্লাহর একটা রহমত ছিল।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় ছিল না সে সময়ে পরিকল্পনা ছিল যে রাজনৈতিক দল হিসেবে কীভাবে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়। এ কারণে, যখনই আমরা সরকার গঠন করেছি, পরিকল্পনা অনুযায়ী কঠোর পরিশ্রম করেছি এবং দেশকে এ পর্যায়ে নিয়ে আসতে পেরেছি।

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন,দলের পরিকল্পনা অনুযায়ী প্রস্তুতি নিতে হবে এবং ধাপে ধাপে এগোতে হবে। এ জন্য সব বাধা দূর করে দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের অগ্রগতির জন্য সব চিন্তা-চেতনা সমন্বয় করে সংরক্ষণ করতে হবে যা সব রকমের প্রতিবন্ধকতা দূর করে দেশকে এগিয়ে নিতে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, সরকার গত ১০ বছর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রেখেছে। উন্নয়নের পথে আমরা কখনো নতিস্বীকার করিনি। 

এক শ্রেণির মানুষের সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা সবসময়ই সরকারের কাজ নেতিবাচকভাবে দেখে। তারা গণতান্ত্রিক (চর্চা) ধারাবাহিকতা চায় না। দেশে যখন অস্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করে তখন তাদের দাম বেড়ে যায়।

‘সরকার কখনোই জনগণকে উপেক্ষা করে না। আমরা সুখে-দুঃখে জনগণের বন্ধু হয়ে থাকতে চাই এবং তাদের কল্যাণে কাজ করতে চাই। এটা আমাদের মূলনীতি।’
 
আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, সরকারের ধারাবাহিকতা থাকলে দেশের প্রতিটি জনগণ তাদের জীবনকে অর্থপূর্ণ করতে পারবে। তারা দারিদ্র থেকে মুক্তি পাবে এবং তাদের জীবন হবে সুন্দর। আমরা সেভাবেই দেশ গড়তে চাই।

বন্যার সম্ভাবনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার এ বিষয়ে সজাগ রয়েছে। দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে তথ্য সংগ্রহ করছি। কোথাও দুর্বলতা নেই। প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবিলার সক্ষমতা বাংলাদেশের রয়েছে।

এ সময় তিনি সম্ভাব্য বন্যা মোকাবিলায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর