ব্রেকিং:
বাংলাদেশের ফুটবলে চমক উপহার দিতে চায় ব্রাজিল জঙ্গিবাদের রূপ দিতে আবির্ভাব হয় সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি চার ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে প্রধানমন্ত্রীর অনুদান রাজধানীতে ৫০ কোটি টাকার সাপের বিষ উদ্ধার ভারতের দূর্বল জায়গায় আঘাত করবে বাংলাদেশের স্পিন অস্ত্র! মাদকাসক্ত হলেই সরকারি কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা রিকশা চালক শিশু স্বপ্না ডাক্তার হতে চায় ১১ বছরে ৩৩৯টি কলেজ সরকারিকরণ করা হয়েছে: সংসদে শিক্ষামন্ত্রী রাজনৈতিক স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশ এখন অনন্য উচ্চতায় রোহিঙ্গাদের ফেরাতে মিয়ানমারকে বোঝানোর জন্য চীনের প্রতি আহ্বান বৃদ্ধা মাকে সড়কে ফেলে গেলো সন্তান, ওসি দিলেন বুকে ঠাঁই জেনারেল আজিজ- একজন নিবেদিতপ্রাণ গলফার সেনাপ্রধান ‘প্রাণ-মিল্কভিটা-আড়ংসহ পাস্তুরিত সব দুধই মানহীন’ বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে লিভার প্রতিস্থাপনে সফল অস্ত্রোপচার ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্য শূন্যের কোটায় আসবে কালো সোনা সাদা করে হাজার কোটি টাকা পাচ্ছে সরকার মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশনে আপত্তি, নার্সকে পেটাল ফার্মেসির লোক ২৮ জুন বসবে পদ্মা সেতুর ১৪তম স্প্যান ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনা ; ৯৯৯-এ ফোন করে শাহান মিয়া বাঁচালো ৩০০ প্রাণ সততার পুরস্কার পেলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের ১৫ কর্মকর্তা

বুধবার   ২৬ জুন ২০১৯   আষাঢ় ১৩ ১৪২৬   ২২ শাওয়াল ১৪৪০

৪০৬

ঈদে অ্যাপের মাধ্যমে রেলের প্রায় দেড় লাখ টিকিট বিক্রি

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০১৯  

এবারের ঈদ উপলক্ষে ইন্টারনেট ও অ্যাপ ব্যবহার করে রেলপথ যাত্রীরা ট্রেনে যাতায়াতের জন্য ১ লাখ ৬৬ হাজার ৬ শ’ ৮৭ টিকিট ক্রয় করেছে।

সোমবার এক তথ্য বিবরণীতে জানানো হয়, ট্রেন যাত্রীরা ইন্টারনেট ও অ্যাপ ব্যবহার করে এসব টিকিট ক্রয় করে।

এতে বলা হয়, যাত্রী সাধারণ নিজের স্মার্টফোনে টিকিট ক্রয় করার ফলে কাউন্টারে উল্লেখযোগ্য পরিমাণ ভিড় কমেছে। সময়, কষ্ট ও ভিজিট কমিয়ে রেলওয়ে যাত্রীদের টিকিট প্রাপ্তি সহজ করতে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সহযোগিতায় বাংলাদেশ রেলপথ মন্ত্রণালয় রেলওয়ের ওয়ান স্টপ টিকিটিং সার্ভিস ‘রেলসেবা’ নামে এই অ্যাপ চালু করে। এবার ঈদে এই অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয় হয়।

সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে ‘রেলসেবা’ অ্যাপটি  যৌথভাবে উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমদ পলক। এই অ্যাপের মধ্যে টিকিট ক্রয়ের পাশাপাশি ট্রেনের সাধারণ তথ্য, সময়সূচি ও সিটের তথ্য রয়েছে। এছাড়া এসএমএস ভিত্তিক ট্রেন ট্র্যাকিং, ট্রেনে বসে খাবারের অর্ডার ও ট্রেনের যাত্রার অভিজ্ঞতার রেটিং দেয়ার সুবিধা রয়েছে।

বাংলাদেশ রেলওয়ের সূত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত প্রায় ২ লাখ ৩১ হাজার অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারী ও ১০ হাজার ৫১৭ জন আইওএস ব্যবহারকারী টিকিট ক্রয়ের জন্য অ্যাপসটি ডাউনলোড করেছেন।

সরাসরি ই-টিকিট ব্যবহার করে ভ্রমণের সুযোগ থাকায় বাংলাদেশ রেলওয়ের প্রচলিত টিকিট প্রিন্ট করার ঝামেলা না থাকায় যাত্রীরা স্বাচ্ছন্দ্যে ট্রেনে উঠতে পেরেছেন।

এছাড়া, অ্যাপ ব্যবহারের ফলে যাত্রীর মোবাইল নম্বর, জাতীয় পরিচয় পত্রের নম্বর, বয়স, লিঙ্গ, নাম ও ঠিকানার তথ্য সার্ভারে সংরক্ষিত থাকায় ও প্রযোজ্য ক্ষেত্রে সেটি টিকিটের গায়ে লেখা থাকায় টিকিটগুলো কাউন্টারে বিক্রিত টিকিটের ন্যায় কালো বাজারে বিক্রি করা সম্ভব হয় না। এর ফলে টিকিট কালোবাজারীও ব্যাপকভাবে হ্রাস পেয়েছে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর