ব্রেকিং:
দুর্ধর্ষ মাদক ব্যবসায়ী আটক সাংবাদিকতায় দেশ সেরা অ্যাওয়ার্ড পেলেন মিশু জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত বিষ প্রয়োগে সর্বশান্ত মৎস্য চাষী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সংবর্ধনা পাঁচ দফা দাবিতে ফারিয়ার মানববন্ধন মসজিদের দেয়ালে ফাটল, আতঙ্কে মুসল্লিরা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মাদক উদ্ধার মাদক বিরোধী প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত মাদকসেবীর হুমকিতে স্কুলে যাওয়া বন্ধ শিক্ষার্থীর ফুটপাত দখলমুক্ত করলেন ইউএনও শারীরিক সক্ষম হলেই রক্তদান করবে শিক্ষার্থীরা একই তেলে বার বার রান্না ক্যান্সার ও হৃদরোগের কারণ বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণার ওপর জোর দেয়ার তাগিদ তথ্যমন্ত্রীর মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিকে অগ্রাধিকার দেয়া হচ্ছে: বাণিজ্যমন্ত্রী নারীর মনে জায়গা পাওয়ার উপায় পানিতে পড়া ফোন যেভাবে দ্রুত সারিয়ে তুলবেন যে কারণে ‘সুদ’ হারাম উদ্বোধন হলো শেখ কামাল ক্লাব কাপ আওয়ামী লীগের সম্মেলন মানেই নতুন মুখ: কাদের

সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

২৬৭

ইউএনও’র উদ্যোগে দৃষ্টিনন্দন বঙ্গবন্ধু ম্যুরাল

প্রকাশিত: ৮ অক্টোবর ২০১৯  

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, মহান স্বাধীনতার স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম রয়েছে এদেশের লাখো কোটি মানুষের হৃদয়ে। এবার তার অমর স্মৃতির উদ্দেশ্যে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালটি শিল্পরূপ পেয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর উপজেলায়।

উপজেলা চত্ত্বরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি মহোদয়ের নির্দেশনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মেহের নিগার এর উদ্যোগে নির্মিত এ ম্যুরালটির উচ্চতা ১৫ ফুট প্রস্থ ৮ ফুট। উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে চতুুুর্রভূজ আকৃতিতে স্থাপিত এ ম্যুরালটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে জনগণের অভিবাদন গ্রহণকারী জননেতা বঙ্গবন্ধুকে।

গত শোকাবহ মাস আগস্টে শুরুতে এ ম্যুরালের নিমার্ণ কাজ শুরু হয়ে মাস ব্যাপী চলে এর নির্মাণ কাজ। বর্তমানে ম্যুরালটির চুনকার্যের কাজ বাকী রয়েছে। চলতি বছর শেষে  স্বাগত বছরেই শুরু হবে মুজিব বর্ষ। আর মুজিব বর্ষকে সামনে রেখেই বিজয়নগরে প্রথম নির্মিত হল বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, উপজেলায় প্রবেশ পথ থেকেই দৃষ্টি কাড়ে ম্যুরালটি। মেইন ফটক থেকে খুবই সুন্দর দেখায় দাঁড়িয়ে থাকা দৃষ্টিনন্দিত বঙ্গবন্ধুর ছবি সম্বলিত নির্মিত ম্যুরালটি।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী অফিসার  (ইউএনও) মেহের নিগার বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার নির্দেশে দেশে এসেছে মহান স্বাধীনতার ঘোষণাও। তিনি মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিধন্য এ উপজেলাতে নেই জাতির জনকের কোনো ম্যুরাল। তাই বঙ্গবন্ধুর স্মৃতির প্রতি সম্মান জানাতে এ উপজেলায় একটি ম্যুরাল স্থাপন করা হয়েছে। যে ম্যুরালটি উপজেলায় আগত সর্বস্থরের মানুষের নজরে আসবে আর শিশু কিশোরদের মনে জাগ্রত হবে বঙ্গবন্ধু প্রতিচ্ছবি দেখে মুক্তিযুুুদ্ধের ইতিহাসের তাৎপর্য। বঙ্গবন্ধুকে আমি ভালবাসি আর ম্যুরাল নিমার্ণ করাটা আমার একটি স্বপ্ন ছিল। আজ আমি আমার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছি। বঙ্গবন্ধুর এ প্রতিকৃতি নিমার্ণ করতে পেরে নিজেকে আজ ধন্য মনে করছি।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর