ব্রেকিং:
আজিজুল হকের মায়ের মৃত্যুতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাবের শোক সরকারি নির্মাণাধীন বাসগৃহ পরিদর্শন করেন ইউএনও মৎস্য ব্যবসায়ীদের বাজার বর্জন বাজার ব্যবস্থাপনা ও সংস্কার কাজ পরিদর্শন আকস্মিক কলেজ পরিদর্শনে জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী মধ্যযুগীয় কায়দায় গৃহবধুকে নির্যাতন অতঃপর ৯৯৯-এ ফোন কোচিং বাণিজ্যে ব্যস্ত বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা রেললাইনের পাশ থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার মাদক সেবন ও বিক্রির দায়ে মা-ছেলের কারাদণ্ড ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কওমী মাদরাসার সংবাদ বর্জনের সিদ্ধান্ত সুদমুক্ত ঋণ দিল বসুন্ধরা ফাউন্ডেশন সেচ প্রকল্পের খালে বাঁধ দিয়ে মাছ চাষ ও ময়লার স্তুপ! আত্মসমর্পণ করবেন অর্ধশতাধিক ইয়াবা ব্যবসায়ী সিনহাসহ ১১ জনকে হাজির হতে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির নির্দেশ ভুয়া কাবিননামায় লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে প্রতারক চক্র গরু ব্যবসায়ীর টাকা হাতিয়ে নিয়ে ফেঁসে গেলেন এসআই মধ্যপ্রাচ্যের প্রভাবশালী দৈনিকে বাংলাদেশি শিশু আইমানের আবিষ্কার! ‘দুর্নীতিবাজ মানুষকে আগে ক্ষমা চাইতে হবে’ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বরগুলোর রহস্য জেনে নিন অস্ত্রের মুখে অপহরণের পর নারীকে রাতভর ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

বৃহস্পতিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১০ ১৪২৬   ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৭৬৬

আতঙ্কিত হবেন না: ডেঙ্গু মরণব্যাধি নয়

প্রকাশিত: ৫ আগস্ট ২০১৯  

এডিস মশা বাহিত ডেঙ্গু ভাইরাস জনিত গ্রীষ্মমণ্ডলীয় একটি রোগ ডেঙ্গু জ্বর। এডিস মশার কামড়ের মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রমণের তিন থেকে পনেরো দিনের মধ্যে সচরাচর ডেঙ্গু জ্বরের উপসর্গগুলো দেখা দেয়। উপসর্গগুলোর মাঝে রয়েছে জ্বর, মাথাব্যথা, বমি, পেশিতে ও গাঁটে ব্যথা এবং গায়ের চামড়ায় ফুসকুড়ি। তবে দুই থেকে সাত দিনের মাঝে সাধারণত ডেঙ্গু রোগী আরোগ্য লাভ করে।

কিছু কিছু ক্ষেত্রে রোগটি মারাত্মক রক্তক্ষরী রূপ নিতে পারে, যাকে ডেঙ্গু রক্তক্ষরী জ্বর (ডেঙ্গু হেমোরেজিক ফিভার) বলা হয়। এর ফলে রক্তপাত হয়, রক্ত অনুচক্রিকার মাত্রা কমে যায় এবং রক্ত প্লাজমার নিঃসরণ ঘটে। কখনো আবার ডেঙ্গু শক সিন্ড্রোম দেখা দেয়। ডেঙ্গু শক সিন্ড্রোমে রক্তচাপ বিপজ্জনকভাবে কমে যায়।

ডেঙ্গু জ্বর হলে পরিপূর্ণ বিশ্রাম নিতে হবে এবং বেশি করে তরল খাবার গ্রহণ করতে হবে। জ্বর কমাতে প্যারাসিটামল দেয়া হয়। প্রায়ই স্যালাইন দিতে হতে পারে। মারাত্মক রূপ ধারণ করলে রোগীকে রক্ত দিতে হতে পারে। ডেঙ্গু জ্বরে হলে কোনো ধরণের এন্টিবায়োটিক ও ননস্টেরয়েডাল প্রদাহপ্রশমী ওষুধ সেবন করা যাবে না।

ডেঙ্গু রোগের কিছু সত্য-

১. ডেঙ্গু ভাইরাস জনিত রোগ।

২. ডেঙ্গুর ৪ টা সেরোটাইপ আছে।।

৩. একবার ডেঙ্গু হলে আর হবে না এটা ভুল। যে সেরোটাইপ দিয়ে হয়েছে সেটা হবে না আর। অন্য তিনটি সেরোটাইপ দিয়ে হতে পারে।

৪. ডেঙ্গু ডোরা কাটা এডিস স্ত্রী মশা দ্বারা ছড়ায়।

৫. এটা আবদ্ধ পরিষ্কার পানিতে ডিম পারে।

৬. ফেইসবুক দেখে ডেঙ্গুর চিকিৎসা নিবেন না। কোনো টোটকা ব্যবহার করবেন না।

৭. সব সময় টিপিকাল প্রেজেন্টেশন না নিয়ে ডেঙ্গু হতে পারে।

৮. দুর্বল লাগলে ডাক্তারের কাছে রিপোর্ট করুন।

৯. প্রথমে রক্তের সি বি সি করুন।

১০. NS1 এন্টিজেন ৩০% ক্ষেত্রে নেগেটিভ হয়। ডেঙ্গু এন্টিবডি পজিটিভ হলে এন্টিজেন নেগেটিভ হয়।

১১. নিচে বাম দিকের গুলো ডেঞ্জার সাইন। ডান দিকের গুলো ক্লাসিকাল ডেঙ্গুর ব্যবস্থাপনা।

১২. সব জ্বর ডেঙ্গু নয়।

১৩. আতঙ্কিত না হয়ে চিকিৎসক এর পরামর্শ নিয়ে পজিটিভ হলে হাসপাতালে ভর্তি হন।

১৪. ডাক্তার না ছাড়পত্র দিলে হাসপাতাল ত্যাগ করবেন না।

১৫. এন্টিজেন একটি ডায়াগনস্টিক টেস্ট।

১৬. প্রথমে ব্লাড সিবিসি করে তারপর প্রয়োজন হলে এন্টিজেন করবেন।

 

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. নাছির উদ্দিন আহমেদ
পরিচালক, ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর