ব্রেকিং:
জুয়াড়ি ও সন্ত্রাসীরা লড়ছেন ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদক পদে! বাড়ি লিখে না দেয়ায় স্ত্রীকে তিন তালাক বিয়ের গেটে বরের মাথা ফাটাল কনের লোকজন পোড়ানো হলো ১২ হাজার মিটার জাল আখাউড়ায় তিন নারী ছিনতাইকারী আটক মাদকেই মরণ বিএনপির, রিহ্যাবে অসংখ্য নেতাকর্মীরা বাবার জায়গা নেই ছেলের পাকা ঘরে দুই মুখের মাছ পাওয়া গেল লেকে, মুহূর্তেই ভাইরাল ‘বিয়ে’র দায়ে জেলে গেলেন বর-কনের বাবা চাকরির প্রলোভনে শারীরিক সম্পর্ক, কলেজছাত্রী অন্তঃসত্ত্বা গুগল-ফেসবুককে ৯ হাজার কোটি টাকা দিয়েছে তিন মোবাইল কোম্পানি প্রাথমিকে নিয়োগ হবে ৬১ হাজার শিক্ষক বিমানের যাত্রী সেবার মান বাড়ানোর আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর ‘গাঙচিল’ এর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বিএনপি ছেড়ে জাতীয় পার্টিতে যোগ দিলেন ২ নেতা! গ্রেনেড হামলার দায় খালেদা জিয়া এড়াতে পারেন না: তথ্যমন্ত্রী গর্ভপাতকৃত সন্তান ব্যাগে ভরে থানায় প্রেমিকা, প্রেমিক উধাও দুর্নীতি নির্মূলে নিরলসভাবে কাজ করছে কমিশন ‘প্রত্যাবাসনের বিপক্ষে প্রচারণা চালালে ব্যবস্থা’ শিগগিরই ভূমি সেবায় আসছে ই-পেমেন্ট গেটওয়ে

শুক্রবার   ২৩ আগস্ট ২০১৯   ভাদ্র ৮ ১৪২৬   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

৩৮

অনলাইনে ভিক্ষা’ করে ১৭ দিনে আয় ৪২ লাখ!

প্রকাশিত: ১২ জুন ২০১৯  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেকে ‘স্বামী পরিত্যক্তা’ দাবি করে দুবাইয়ের মানুষের সহমর্মিতাকে পুঁজি করে ১৭ দিনে এক লাখ ৮৪ হাজার দিরহাম (বাংলাদেশি মুদ্রায় ৪২ লাখ টাকারও বেশি) হাতিয়ে নিয়েছেন এক নারী। খবর আরব-আমিরাত ভিত্তিক গণমাধ্যম খালিজ টাইমস। 

দুবাই পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের প্রধান জামাল সালেম আল জাল্লাফ জানিয়েছেন, নিজেকে বিদেশি নাগরিক এবং স্বামী পরিত্যক্তা পরিচয় দিয়ে ফেসবুক, ইন্সটাগ্রাম এবং টুইটারের মাধ্যমে সন্তানদের ভরণ-পোষণের জন্য সহায়তা চান তিনি। কিন্তু, তার স্বামীই স্ত্রীর এমন প্রতারণার বিষয়ে অভিযোগ করেন দুবাই পুলিশের কাছে।

তদন্তে জানা গেছে, ওই নারীর দাবি সম্পূর্ণ অসত্য এবং তিনি স্বামীর সঙ্গেই বসবাস করে আসছিলেন। লোকজনের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য নিজের সন্তানদের ছবিও অনলাইনে প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

পুলিশ জানিয়েছে, অনলাইনে সন্তানদের ছবি দিয়ে সহায়তা চাওয়ার বিষয়টি কয়েকজন আত্মীয়ের মাধ্যমে জানতে পারেন ওই নারীর স্বামী।

দুবাইয়ের আইন অনুযায়ী অনলাইনে ভিক্ষাবৃত্তি এক ধরনের অপরাধ। তবে, অসুস্থতা কিংবা দারিদ্র্যের দোহাই দিয়ে দেশটিতে অনেকেই এ ধরনের কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ছেন। এ ধরনের অপরাধে জেল কিংবা জরিমানা অথবা উভয় শাস্তিরই বিধান রয়েছে।

আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
আলোকিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া
এই বিভাগের আরো খবর